অকালি মাকালী

অকালি ও মাকালী

অকালি, কিন্তু মাকালী— একটা ল-য়ে ‘ই-কার’ এবং আরেকটায় ‘ঈ-কার’, কিন্তু কেন? ‘অকালি’ একটি সম্প্রদায়ের নাম। শিখ সম্প্রদায়ের যেসকল অনুসারী অকাল-পুরুষ উপাসনা করেন তাদের অকালি বলা হয়। 

ভারতে এরা বিশেষভাবে ‘অকালি’ হিসেবে পরিচিত। এটি অতৎসম শব্দ। এজন্য শব্দটির বানানে দীর্ঘ-ঈ নেই। ‘কালী’ বা ‘মা-কালী’  একজন হিন্দু দেবী। তাঁর অপর নাম শ্যামা বা আদ্যাশক্তি। শাক্ত সম্প্রদায়ের লোকেরা মা কালীর পূজা করে থাকে। এটি তৎসম শব্দ। তাই এর বানানে দীর্ঘ ঈ-কার আবশ্যক। বাঙালি হিন্দু সমাজে কালীর মাতৃরূপের পূজা বিশেষ জনপ্রিয়। তাই কালীকে মা কালী বা মা-কালী বলা হয়। প্রসঙ্গত, যারা শক্তির উপাসনা করেন, তাদের শাক্ত বলা হয়।

অগুরু ও গুরু
গুরু শব্দের অর্থ মুরুব্বি, শ্রদ্ধেয় ব্যক্তি, শিক্ষক, ওস্তাদ, জ্ঞানদাতা প্রভৃতি, কিন্তু অগুরু অর্থ এক ধরনের গন্ধকাঠ বা কৃষ্ণ চন্দন। অগুরু শব্দটি সংস্কৃত থেকে এসেছে। শব্দটি মধ্যযুগের বাংলা সাহিত্যে পাওয়া যায়। তবে, ‘অগুরু’ শব্দটি ‘গুরু’ শব্দের বিপরীতার্থক অর্থ দ্যোতনার আশঙ্কায়  আধুনিক বাংলায় গ্রহণীয় নয়। দেখুন : অচেনা বনাম অজ্ঞাত

দেখুন:  বাংলা বানান কোথায় কি লিখবেন)।

আরও জানার জন্য : শুদ্ধ বানান চর্চা (শুবাচ) লিংক- এ ক্লিংক করুন।

error: Content is protected !!