অন্তর্ধান বনাম গুম: ভোর বনাম সকাল

ড. মোহাম্মদ আমীন
সংযোগ: https://draminbd.com/অন্তর্ধান-বনাম-গুম-ভোর-বন/
অন্তর্ধান: সংস্কৃত অন্তর্ধান (অন্তর্‌+ধা+অন) অর্থ (বিশেষ্যে)— তিরোধান, পলায়ন। শব্দটির উচ্চারণ— অন্তর্‌ধান্‌। প্রসঙ্গত, সংস্কৃত তিরোধান (তিরস্‌ধা+অন) অর্থ— (বিশেষ্যে) মহাপুরুষের প্রয়াণ, অন্তর্ধান।
উদাহরণ:  আকস্মিক তার অন্তর্ধান দলের সবাইকে হতভম্ব করে দিয়েছে। আজ ঠাকুরের তিরোধান দিবস।
গুম: অভিধানে দুটি গুম দেখা যায়। একটি দেশি গুম আরেকটি ফারসি গুম। দেশি গুম অর্থ— (অব্যয়ে) অপ্রকাশিত বা বদ্ধ অবস্থাসূচক ভাব; (বিশেষ্যে)— উচ্চ ও গম্ভীর শব্দ; (বিশেষণে)— নির্বাক, নিশ্চুপ ও গম্ভীর, স্তম্ভিত, স্তব্ধ। ফারসি গুম অর্থ— (বিশেষ্যে) গায়েব, নির্খোঁজ, লাপাত্তা এবং (বিশেষণে)— গুপ্ত, লুকায়িত।
যেমন: অফিস হতে বাড়ি আসার পথে তাকে গুম করা হয়েছে।  আমাদের আলোচ্য বিষয় ফারসি গুম।
অন্তর্ধান বনাম গুম:  পলায়ন অর্থদ্যোতক অন্তর্ধান নিজের ইচ্ছায় সাধিত হয়। মহাপ্রয়াণ অর্থদ্যোতক অন্তর্ধান অর্থ মৃত্যু, ইনতেকাল, পরলোকগমন। কিন্তু গায়েব, নির্খোঁজ, লাপাত্তা, গুপ্ত, লুকায়িত প্রভৃতি অর্থদ্যোতক গুম অন্যের দ্বারা সাধিত হয়। অন্তর্ধান প্রাকৃতিক বা স্বেচ্ছাধীন। গুম নিজের ইচ্ছার বিরুদ্ধে অন্যের দ্বারা সাধিত হয়। তবে, কেউ লাপাত্তা বা নিখোঁজ হলে এর প্রকৃত কারণ না জানা পর্যন্ত গুম করা হয়েছে অনুমান করা হয়।
ভোর:অভিধানে ভোর শব্দের দুটি পৃথক ভুক্তি দেখা যায়। একটি হিন্দি উৎসের ভোর আরেকটি সংস্কৃত উৎসের ভোর। আমাদের বেশি প্রয়োজন হয় হিন্দির উৎসের ভোর। বাক্যে বিশেষ্য হিসেবে ব্যবহৃত হিন্দি উৎসের বাংলা শব্দ ভোর অর্থ প্রাতঃকাল, উষা, প্রত্যুষ, প্রভাত; নিশাবসান। ভোর হলো দোর খোলো খুকুমনি উঠরে— (নজরুল) সংস্কৃত বিহ্বল থেকে উদ্ভূত ভোর অর্থ (বিশেষণে) বিভোর, অভিভূত, মুগ্ধ, তন্ময়।
সকাল:সংস্কৃত সকাল (স+কাল) অর্থ— (বিশেষ্যে) প্রাতঃকাল, প্রভাত (সকালবেলা); ত্বরা, তাড়াতাড়ি। দেরি করো না, সকাল সকাল চলে এসো।
জানা অজানা অনেক মজার বিষয়: https://draminbd.com/…
শুবাচ গ্রুপের সংযোগ: www.draminbd.com
শুবাচ যযাতি/পোস্ট সংযোগ: http://subachbd.com/
আমি শুবাচ থেকে বলছি
— — — — — — — — √— — — — — — — — —
প্রতিদিন খসড়া
আমাদের টেপাভুল: অনবধানতায়
— — — — — — — — √— — — — — — — — —
error: Content is protected !!