অ্যাসাইনমেন্ট এসাইনমেন্ট: কোনটি শুদ্ধ; মুমূর্ষু পিপীলিকা,  ওয়াকিবহাল না কি ওয়াকিফহাল

ড. মোহাম্মদ আমীন

সংযোগ:https://draminbd.com/অ্যাসাইনমেন্ট-এসাইনমেন্/

মুমূর্ষু পিপীলিকা 
‘মুমূর্ষু’ শব্দে প্রথমে উ-কার, দ্বিতীয় ঊ-কার এবং তৃতীয় উ-কার। অর্থাৎ ১২১। কিন্তু কেন? এর কারণ আছে। বর্ণমালার সজ্জা অনুযায়ী উ-কার এক(১) ও ঊ-কার দুই(২) দ্বারা চিহ্নিত করার পর অনুরূপ উচ্চারণের আর কোনো বর্ণ নেই বলে বানান চক্রকে আবার প্রথম থেকে শুরু করতে হয়। তাই বানান ক্রমটি হয়ে যায়: ই ঈ ই= ই-কার ঈ-কার ই-কার= ১২১। অর্থাৎ প্রথমে উ-কার, দ্বিতীয় ঊ-কার এবং তৃতীয় আবার উ-কার= মুমূর্ষু=১২১।
‘পিপীলিকা’ শব্দে প্রথমে ই-কার, দ্বিতীয় ঈ-কার এবং এরপর সমোচ্চারিত আর কোনো বর্ণচিহ্ন নেই বলে পুনরায় প্রথম থেকে শুরু করা হয়েছে। তাই পিপীলিকা বানানের প্রথম ই-কার, দ্বিতীয়ত ঈ-কার এবং তৃতীয় স্থানে আবার ই-কার= পিপীলিকা= ১২১। এরূপ ১২১ বানান ক্রমের আরও কিছু শব্দ হলো: উপচিকীর্ষা, নির্মীলিত, নিপীড়িত, পরিবীক্ষিত, বিভীষিকা, নিশীথিনি পিরীতি, চিকীর্ষিত, নিরীক্ষিত, পরিকীর্তিত।
 ওয়াকিবহাল না কি ওয়াকিফহাল
ওয়াকিবহাল। বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধান মতে, ওয়াকিবহাল আরবি উৎসের শব্দ। অর্থ— (বিশেষণে) কোনো বিশেষ অবস্থা সম্পর্কে জ্ঞাত বা অভিজ্ঞ, কোনো বিষয়ে অবগত। তার শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে আমি ওয়াকিবহাল।
খণ্ড-ত (ৎ) বিধি
ব্যতিক্রান্ত ক্ষেত্র ব্যতিরেকে অতৎসম শব্দের বানানে সাধারণত ‘খণ্ড-ত’ হয় না। সুতরাং, ‘খণ্ড-ত’ আছে এমন শব্দকে সাধারণভাবে তৎসম ধরে নেওয়া যায়। কয়েকটি ব্যতিক্রম: উৎকপালি (বাংলা), গৎ(হিন্দি), নাৎসি(জার্মান/জর্মন), পিৎজা(ইতালি), হঠাৎ (হিন্দি), তৎকালে (বাংলা); তৎপূর্বে (মিশ্র) ইত্যাদি।
অ্যাসাইনমেন্ট বানানের যথার্থতা
ইংরেজি ‘Schwa’ ( ə ) ধ্বনিটির হুবহু উচ্চারণ লেখার জন্যে বাংলায় কোনো বর্ণ নেই। শব্দের মধ্যে অবস্থানভেদে ধ্বনিটির উচ্চারণ কয়েকভাবে হতে পারে। কোনো শব্দের শুরুতে এই /ə/ ধ্বনির উচ্চারণ অনেকটা /æ/ ধ্বনির কাছাকাছি। আর, ইংরেজি /æ/ ধ্বনির বাংলা লিখিত রূপ হচ্ছে /অ্যা/। তাই, যে-সকল ইংরেজি ভাষা থেকে আগত বা ইংরেজি ভাষার মাধ্যমে আগত শব্দের উচ্চারণে আদিতে /ə/ ধ্বনি পাওয়া যায়, সে-সকল শব্দের আত্তীকৃত বাংলা রূপ লেখার সময় আদ্যবর্ণ ‘অ্যা’ লিখতে হয়। assignment, alarm, adventure, academy, arrest প্রভৃতি শব্দের উচ্চারণে আদিতে /ə/ ধ্বনি পাওয়া যায় বলে শব্দগুলোর আত্তীকৃত বাংলা রূপের বানান ‘অ্যাসাইনমেন্ট’, ‘অ্যালার্ম’, ‘অ্যাডভেনচার’, ‘অ্যাকাডেমি’, ‘অ্যারেস্ট’ প্রভৃতি বানানে লিখতে হয়। (এবি ছিদ্দিক)
————-

error: Content is protected !!