একনজরে বাংলা সাহিত্যের প্রথম ও প্রধান/১৬

ড. মোহাম্মদ আমীন

মানবীয় আখ্যায়িকা ধারার প্রবর্তক: মধ্যযুগের বাংলা সাহিত্য যখন দেবদেবীর মাহাত্ম্য কীর্তনে সয়লাব তখন আরাকানের বৌদ্ধ রাজাদের সভায় বাংলা সাহিত্যচর্চার ব্যতিক্রমী নিদর্শন হিসেবে কবি দৌলত কাজী একটি নব ধারার সূচনা করেন। তিনি থিরি থুধর্ম্মা বা শ্রী সুধর্মার (১৬২২খ্রি. -১৬৩৮ খ্রি.) শাসনামলে লস্কর উজির বা সমরসচিব আশরাফ খানের অনুরোধে হিন্দি কবি সাধনের ‘মৈনাসত’ কাব্যের ভাবানুবাদ অবলম্বনে ‘সতীময়না ও লোরচন্দ্রানী’ কাব্য রচনা করে বাংলা সাহিত্যের ইতিহাসে প্রথম মানবীয় আখ্যায়িকা ধারার প্রবর্তন করেন।

মহাভারতের প্রথম বাংলা অনুবাদক: খ্রিষ্টপূর্ব পঞ্চম-চতুর্থ শতকের পূর্ব হতে এদেশে প্রচলিত কুরুপাণ্ডবের যুদ্ধবিষয়ক নানা উপকাহিনি নিয়ে কৃষ্ণ দ্বৈপায়ন ব্যাসদেব আনুমানিক খ্রিষ্টপূর্ব ২য় শতকে ‘মহাভারত’ কাব্যগ্রন্থটি রচনা করেন। মহাভারতের প্রথম বাংলা অনুবাদক কবীন্দ্র পরমেশ্বর। তিনি গৌড়ের সুলতান আলাউদ্দিন হুসেন শাহ (১৪৯৩-১৫১৮ খ্রি.) এর সেনাপতি পরাগল খানের পৃষ্ঠপোষকতায় মহাভারত বঙ্গানুবাদ করেন। পরাগল খানের উৎসাহ ও উদ্দীপনায় ‘মহাভারত’ অনূদিত হয়েছিল বলে গ্রন্থটি ‘পরাগলী মহাভারত’ নামে পরিচিতি পায়।

বিশ্বের প্রথম আর্থনীতিক ও রাজনীতিক গ্রন্থ: বিখ্যাত মৌর্য সম্রাট চন্দ্রগুপ্তের প্রধান পরামর্শদাতা কৌটিল্য লিখিত ‘অর্থশাস্ত্র’ নামক গ্রন্থটি বিশ্বের প্রথম ‘আর্থনীতিক ও রাজনীতিক’ গ্রন্থ। খ্রিষ্টপূর্ব ৩২৪- খ্রিষ্টপূর্ব ১৮৫ এর মধ্যে গ্রন্থটি রচিত।

পৃথিবীর আদিকবি: রামায়ণ রচয়িতা মহর্ষি বাল্মিকি পৃথিবীর আদিকবি। রামায়ণে ২৪ হাজার শ্লোক ও ৫ শত অধ্যায় রয়েছে। ‘রামায়ণ’ই পৃথিবীর একমাত্র এবং প্রথম গ্রন্থ যা সাধারণ একটি কাব্যগ্রন্থ হওয়া সত্ত্বেও ধর্মীয় গ্রন্থ হিসেবে স্বীকৃতি পায়।

মধ্যযুগের প্রথম কাব্য : ‘শ্রীকৃষ্ণকীর্তন’ মধ্যযুগের প্রথম কাব্য। কাব্যটির রচয়িতা বড়ূচণ্ডীদাস হলেন মধ্যযুগের আদিকবি। লোকসমাজে প্রচলিত রাধাকৃষ্ণের প্রেমবিষয়ক গ্রাম্য গল্প অবলম্বনে কবি বড়ূচণ্ডীদাস ‘শ্রীকৃষ্ণকীর্তন’ কাব্যগ্রন্থটি রচনা করেন।

বিদ্যাসুন্দর প্রণয়কাহিনীর প্রথম রূপকার: বিদ্যাসুন্দর কবিদের অন্যতম সংস্কৃত কবি বিলহন চৌরপঞ্চশিকা বিদ্যাসুন্দর প্রণয়কাহিনীর প্রথম রূপকার হিসেবে পরিচিত।

মধ্যযুগের প্রথম মহিলা কবি: কবি চন্দ্রাবতী মধ্যযুগের প্রথম মহিলা কবি। তিনি ছিলেন চিরকুমারী। ‘দস্যু কেনারাম‘ চন্দ্রাবতীর একটি উল্লেখযোগ্য গ্রন্থ।

বাংলা গদ্যে লিখিত প্রাচীনতম মুদ্রিত পুস্তক : ঢাকার ভাওয়ালে অবস্থানকালে পর্তুগিজ পাদ্রি মনোএল দা আসসুম্পসাঁউ, ১৭৪৩ খ্রিষ্টাব্দে ভাওয়ালের প্রচলিত মৌখিক ভাষায় ‘কৃপা শাস্ত্রের অর্থভেদ’ নামক একটি পুস্তক রচনা করেন। পুস্তকটি লিসবনে রোমান অক্ষরে মুদ্রিত ও প্রকাশিত হয়। এটি বাংলা সাহিত্যের ইতিহাসে বাংলা গদ্যে লিখিত প্রাচীনতম মুদ্রিত পুস্তক।

উপমহাদেশের প্রথম মহিলা ঐতিহাসিক:  সম্রাট হুমায়ুনের ভগ্নী গুলবদন উপমহাদেশের প্রথম মহিলা ঐতিহাসিক। তিনি তাঁর ভাই সম্রাট হুমায়ুনের রাজত্বকালের ইতিহাস লিখে উপমহাদেশের  প্রথম মহিলা ঐতিহাসিক হিসাবে খ্যাত হয়ে আছেন।

বাংলা সাহিত্যবিষয়ক লিংক

মঙ্গলকাব্য

বাংলা সাহিত্য অনুবাদ প্রথম ও প্রধান/১

বাংলা সাহিত্য অনুবাদ প্রথম ও প্রধান/২

বাংলা সাহিত্য অনুবাদ প্রথম ও প্রধান/৩

বাংলা সাহিত্য অনুবাদ প্রথম ও প্রধান/৪

বাংলা সাহিত্যে মুসলিম প্রথম ও প্রধান/৫

বাংলা সংবাদপত্র সাময়িকী ও সাহিত্যপত্রিকা প্রথম ও প্রধান/১

বাংলা সংবাদপত্র সাময়িকী ও সাহিত্য পত্রিকা প্রথম ও প্রধান/২

বাংলা সংবাদপত্র সাময়িকী ও সাহিত্যপত্রিকা প্রথম ও প্রধান/৩

বাংলা সংবাদপত্র সাময়িকী ও সাহিত্যপত্রিকা প্রথম ও প্রধান/৪

বাংলা সংবাদপত্র সাময়িকী ও সাহিত্যপত্রিকা প্রথম ও প্রধান/৫

বাংলা সংবাদপত্র সাময়িকী ও সাহিত্যপত্রিকা প্রথম ও প্রধান/৬

বাংলা সংবাদ পত্র সাময়িকী ও সাহিত্য পত্রিকা প্রথম ও প্রধান/৭

বাংলা সংবাদপত্র সাময়িকী ও সাহিত্যপত্রিকা প্রথম ও প্রধান/৮

error: Content is protected !!