এক মিনিটের পাঠশালা (১০-১৫)

এক মিনিটের পাঠশালা/১০
নিচে কিছু দুষ্ট শব্দের শুদ্ধ বানান দেওয়া হলো। কয়েক বার পড়লে মনে রাখা কঠিন হবে না।
অপাঙ্‌ক্তেয় / অলঙ্ঘ্য / আকাঙ্ক্ষা / আর্দ্র/
উজ্জ্বল / উত্ত্যক্ত / কৃচ্ছ্র / ক্বচিৎ / ক্রূর
ক্ষুন্নিবৃত্তি / জ্যোৎস্না /জোছনা/ জ্যোতিষ্ক / তৎক্ষণাৎ
তদ্ব্যতীত / দুর্নিরীক্ষ্য / দ্ব্যর্থ / দ্যূতক্রীড়া
দারিদ্র্য / দৌরাত্ম্য / ন্যুব্জ /ন্যূন
পঙ্‌ক্তি / পরাঙ্মুখ / পার্শ্ব / প্রতিদ্বন্দ্বিতা
প্রতিদ্বন্দ্বী / গার্হস্থ্য
কর্ত্রী।

এক মিনিটের পাঠশালা / ১১

নানাভাবে নানা ভাবে, সেভাবে সে ভাবে।
নানা ভাবে : এই শব্দজোড়ের অর্থ মাতামহ (মায়ের বাবা) চিন্তা করে
নানাভাবে : শব্দটির অর্থ বিভিন্ন উপায়ে, বিভিন্ন কৌশলে।
প্রয়োগ :
নানা ভাবে সে হয়রানির শিকার হচ্ছে। (নানা মনে করে, সে হয়রানির শিকার হচ্ছে।)
নানাভাবে সে হয়রনির শিকার হচ্ছে। ( বিভিন্ন উপায়ে বা বিভিন্ন দিক হতে সে হয়রানির শিকার হচ্ছে।)
নানা ভাবে, সে নানাভাবে হয়রানির শিকার।
সে ভাবে : এই শব্দ জোড়ের অর্থ সে চিন্তা করে
সেভাবে : শব্দটির অর্থ সেই প্রকারে, সেই উপায়ে, সেই কৌশলে।
ফাউ
৩. মেম্বারশীপ নয়, লিখুন মেম্বারশিপ
৪. অন্তস্থল নয়, লিখুন অন্তস্তল (অন্তর্‌+তল = অন্তস্তল)।
৫. ধরণী নয়, লিখুন, ধরণি
৬. নিরবিচ্ছিন্ন নয়, লিখুন নিরবচ্ছিন্ন (নির্‌+ অবচ্ছিন্ন = নিরবচ্ছিন্ন)।
এক মিনিটের পাঠশালা /১২
কৌতূক নয়, কৌতুক (দীর্ঘ ঊ-কার নয়)।
ক্রুর নয়, ক্রূর (দীর্ঘ ঊকার)।
ক্ষীয়মান নয়, ক্ষীয়মাণ।
ক্ষুন্ন নয়, ক্ষুণ্ণ ( ণ+ন)।
ক্ষুব্দ নয়, ক্ষুব্ধ (ব+ধ)।
ক্ষেপন নয়, ক্ষেপণ
ক্ষেপনাস্ত্র নয়, ক্ষেপণাস্ত্র
খঞ্জনী নয়, খঞ্জনি
খুটিনাটি নয়, খুঁটিনাটি
খুড়ী নয়, খুড়ি
খুশী নয়, খুশি
গড্ডালিকা নয়, গড্ডলিকা (ড্ড আকার-বিহীন)।
ক্ষেতমজুর নয়, খেতমজুর
খেলাধূলা নয়, খেলাধুলা/ খেলাধুলো
গত্যান্তর নয়, গত্যন্তর
এক মিনিটের পাঠশালা / ১৩
 
কাঁচ নয়, কাচ। কাংখিত নয়, কাঙ্ক্ষিত।
কানপাতা নয়, কান পাতা (কিন্তু কানপাতলা)।
 
কানমলা নয়, কান মলা (কিন্তু কানফুল, কানবালা, কানভাঙানি)।
কিংবদন্তী নয়, কিংবদন্তি।
কুটনীতি নয়, কূটনীতি।
 
কুৎসিৎ নয়, কুৎসিত।
কূটিল নয়, কুটিল।
কৃচ্ছতা নয়, কৃচ্ছ্রতা।
 
কৃচ্ছসাধন নয়, কৃচ্ছ্রসাধন।
কুহরণ নয়, কুহরন (কূজন, কুহুধ্বনি)।
কৃষ্টিবান নয়, কৃষ্টিমান।
 
কেন্দ্রিয় নয়, কেন্দ্রীয়।
কেরাণী নয়, কেরানি।
কোণাকুণি নয়, কোনাকুনি।
এক মিনিটের পাঠশালা / ১৪
অধিবিন্না : বাক্যে বিশেষ্য হিসেবে ব্যবহৃত সংস্কৃত অধিবিন্না শব্দের অর্থ দ্বিতীয় বার বিবাহ করেছে এমন পুরুষের জীবিত প্রথম স্ত্রী।
অধীত: বাক্যে বিশেষণ হিসেবে ব্যবহৃত সংস্কৃত অধীত শব্দের অর্থ পাঠ করা হয়েছে এমন বা পঠিত।এই শব্দের বানানে ধ-য়ে ঈ-কার অপরিহার্য। আমাদের এক বন্ধুর ছোটো ভাইয়ের নাম ছিল অধীত।
অধীতি : বাক্যে বিশেষ্য হিসেবে ব্যবহৃত সংস্কৃত অধীতি শব্দের অর্থ অধ্যয়ন। এই শব্দের বানানে ধ-য়ে ঈ-কার এবং ত-য়ে ই-কার। আমার এক ছাত্রীর নাম অধীতি।
অধীতী : সংস্কৃত অধীতী শব্দের অর্থ বিশেষ্যে ছাত্র, শিক্ষার্থী পাঠক এবং বিশেষণে অধ্যয়নকারী, কৃতবিদ্য প্রভৃতি। এই শব্দের বানানে ধ-য়ে ঈ-কার এবং ত-য়ে ঈ-কার। অধীতী নামের দুই ছাত্রী পেয়েছি আমি। দুজনেই কৃতবিদ্য হয়েছে।
এক মিনিটের পাঠশালা / ১৫
প্রাঙ্গন নয়, প্রাঙ্গণ; কিন্তু অঙ্গন, যেমন: শিক্ষাঙ্গন।
মনখোলা : মনের কথা অকপটে খুলে বলা।
মনখোলা : খোলা মনের অধিকারী)।
 
মনগলা নয়, লিখুন মন গলা।
মহামতী নয়, লিখুন মহামতি, কিন্তু শ্রীমতী।
মাননীয়াষু নয়, লিখুন মাননীয়াসু (মহিলার ক্ষেত্রে)।
 
মাননীয়েসু নয়, লিখুন মাননীয়েষু (পুরুষের ক্ষেত্রে)।
মুহূর্মুহ নয়, লিখুন মুহুর্মুহু (চারটি ‍উ-কার)।
মৃত্যুত্তর নয়, লিখুন মৃত্যূত্তর (ত-য়ে ঊ-কার), কিন্তু মরণোত্তর।
 
মৃণ্ময় নয়, মৃন্ময় (ন+ম; মৃৎ+ময়ট্‌; মাটির তৈরি), কিন্তু হিরণ্ময়।
লেখালেখি নয়, লেখালিখি।
Language
error: Content is protected !!