কম্পিউটার যুগ ও তথ্যপ্রযুক্তি

কম্পিউটার যুগ
বর্তমান যুগকে বলা হয় আধুনিক যুগ আর এই আধুনিক যুগের সব থেকে বড় বিস্ময় হল কম্পিউটার । হা বন্ধুরা আজ আমি আপনাদের সাথে এই কম্পিউটার সম্পর্কিত নানা জানা অজানা বিষয় তুলে ধরতে চাই । তাহলে চলুন শুরু করা যাক আমাদের জানার পর্ব ।

১) ডিজিটাল কম্পিউটারের মূল ভিত্তি বাইনারি সংখ্যা ।

২) বাইনারী নাম্বার পদ্ধতিতে ব্যবরিত অংক ০ (শুন্য) এবং ১ (এক) কে বিট বলে ।

৩) ৮ বিটে এক বাইট হয় , ১০২৪ বাইটে এক কিলোবাইট হয়, ১০২৪ কিলোবাইটে এক মেগাবাইট হয়, ১০২৪ মেগাবাইটে এক গিগাবাইট হয়, ১০২৪ গিগাবাইটে এক টেরাবাইট হয়,

৪) সর্ব প্রথম পার্সোনাল কম্পিউটার বাজারে আনা হয় ১৯৭৬ সালে ।

৫) প্রথম কম্পিউটার প্রোগ্রাম রচয়িতা -ব্রিটিশ কবি লর্ড বায়রনের কন্যা এডা অগাস্টা লাভলেস, এবং প্রথম কম্পিউটার প্রোগ্রামিং ভাষাটির নাম ছিল এডা ।

৬) কম্পিউটার আবিষ্কারক হল হাওয়ার্ড একিন এবং কম্পিউটারের জনক হচ্ছে চার্লস ব্যাবেজ।

৭) বাংলাদেশে সর্ব প্রথম কম্পিউটার আনা হয় ১৯৬৪ সালে IBM 1620 নামক একটি মেইনফ্রেম কম্পিউটার, যা স্থাপন করা হয় ঢাকার পরমাণু শক্তি কমিশনে ।

৮) ১৯৭১ সালে সর্বপ্রথম আমেরিকার ইন্টেল কোম্পানি মাইক্রোপ্রসেসর তৈরি করে ।

৯) কম্পিউটারের কাজ করার গতি হিসাব করা হয় ন্যানো সেকেন্ডে আর ১ সেকেন্ডের ১০০ কোটি ভাগের ১ ভাগ সমান ১ ন্যানো সেকেন্ড ।

১০) নিম্ন লিখিত শব্দগুলো পূর্ণ্রুপ জেনে নিন ঃ-

ক) RAM = Random access memory .

খ) ROM = Read only memory .

গ) IC = Integrated Circuit .

ঘ) CPU = Central Processing Unit .

ঙ) UPS = uninterruptible power supply.

চ) ALU = Arithmatic Logical Unit .

ছ) IO = Input – Output .

জ) ENIAC = Electronic Numerical Integrator and Calculator.

ঝ) UNIVAC = Universal Automatic Calculator.

ঞ) LSI = Large Scale Integration.

ট) VLSI = Very Large Scale Integration.

ঠ) IBM = International Business machine.

ড) ASCII = American Standard Code for Information Interchange .

১১) পৃথিবীর প্রথম আবিষ্কৃত ইলেক্ট্রনিক কম্পিউটারের নাম হচ্ছে ইউনিভ্যাক (UNIVAC).

১২) অ্যাপল কোম্পানী সর্বপ্রথম পার্সোনাল কম্পিউটার ( PC ) বাজারজাত করে ।

১৩) সফটওয়্যার ঃ কম্পিউটারের যে অংশ দেখা যায় না বা স্পর্শ করা যায় না অথচ কম্পিউটারকে সচল করে কম্পিউটারের সেই অংশ কে সফটওয়্যার বলে ।

সফটওয়্যার এর প্রকারভেদ ঃ সফটওয়্যার মূলত দুই প্রকার , যথা ঃ-

সিস্টেম সফটওয়্যার
অ্যাপ্লিকেশন সফটওয়্যার

অ্যাপ্লিকেশন সফটওয়্যার আবার কয়েক প্রকার হতে পারে , যথা ঃ

কাস্টমাইজ সফটওয়্যার, যেমন ঃ Game.
মাল্টিমিডিয়া সফটওয়্যার, যেমন ঃ media player.
গ্রাফিক্যাল সফটওয়্যার, যেমন ঃ Photoshop.
ইন্টারনেট বেইসড সফটওয়্যার, যেমন ঃ Mozilla Firefox.

সিস্টেম সফটওয়্যার ও কয়েক প্রকার হতে পারে , যথা ঃ

Operating System Software, যেমন ঃ Windows 7.Windows 8.
System Utility Program . Partition magic

error: Content is protected !!