কুয়েত (Kuwait): ইতিহাস ও নামকরণ

 

কীভাবে হলো দেশের নাম (এশিয়া)

ড. মোহাম্মদ আমীন

কুয়েত (Kuwait)

কুয়েত একটি ছোট কিন্তু তেলসমৃদ্ধ ধনী রাষ্ট্র। এর দক্ষিণে সৌদি আরব ও উত্তরে ইরাক। এটি রাজতান্ত্রিক রাষ্ট্র। রাজধানীর নাম কুয়েত সিটি। ১৯৬১ খ্রিষ্টাব্দের ২১ জুন কুয়েত যুক্তরাজ্য হতে স্বাধীনতা লাভ করে।

আরবি কুট বা কোউট (Kut or Kout) শব্দের সংক্ষিপত রূপ কুয়েত। এর অর্থ জলের নিকট নির্মিত দুর্গসমূহ (fortress built near water)। প্রাচীনকাল হতে উপসাগরীয় অঞ্চলে জলের প্রচ- অভাব ছিল। তাই জলের নিকবর্তী স্থানে গৃহ বা দুর্গাদি নির্মাণ করাকে পরম সৌভাগ্য ও মর্যাদাকর বলে বিবেচিত হতো। অভিজাত ও প্রভাবশালীরা জলের প্রাপ্তি সহজলভ্য করার জন্য জলের নিকট বসতবাটি গড়ে তুলত। রাজন্যবর্গও নিজেদের এবং তাদের সৈন্যসামন্তের জলপ্রাপ্তি ও যোগাযোগের সুবিধার দিকে লক্ষ রেখে জলের কাছাকাছি দুর্গ গড়ে তুলত। বর্তমান কুয়েত নামে পরিচতি দেশটির জলের নিকটবর্তী স্থানে সমৃদ্ধ জনপদ ও সে জনপদকে রক্ষা করার দুর্গরাজি গড়ে উঠেছিল। তাই এর নাম হয় কুয়েত। ক্রমান্বয়ে পুরো দেশটি কুয়েত নাম ধারণ করে।

কুয়েতের আয়তন ১৭,৮২০ বর্গকিলোমিটার বা ৬,৮৮০ বর্গমাইল। জলীয় ভাগ নেই বললেই চলে। ২০১৪ খ্রিষ্টাব্দের অনুমিত হিসাবমতে জনসংখ্যা ৪,০৪৪,৫০০ এবং প্রতিবর্গ কিলোমিটার লোক সংখ্যা ২০০.২। আয়তন বিবেচনায় কুয়েত পৃথিবীর ১৫৭-তম বৃহত্তম কিন্তু জনসংখ্যা বিবেচনায় ১৪০-তম বৃহত্তম দেশ। অন্যদিকে জনসংখ্যার ঘনত্ব বিবেচনায় কুয়েত পৃথিবীর ৬১-তম জনবহুল দেশ। সরকারিভাবে কুয়েতের অধিবাসীদের কুয়েতি বলা হয়।
২০১৪ খ্রিষ্টাব্দের হিসাবমতে, কুয়েতের জিডিপি (পিপিপি) ২৮৩.৯৭৬ বিলিয়ন ইউএস ডলার এবং সে হিসাবে মাথাপিছু আয় ৭১,০২০ ইউএস ডলার। আবার জিডিপি (নমিনাল) ১৭২.৩৫০ বিলিয়ন ইউএস ডলার এবং মাথাপিছু আয় ৪৩,১০৩ ইউএস ডলার।

আদর্শ আরবি ভাষা কুয়েতের সরকারি ভাষা। এ ভাষাটি ধ্রুপদী আরবি ভাষার একটি আধুনিক রূপ। ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠানে এখনও ধ্রুপদী আরবি ব্যবহৃত হয়। অন্যান্য সমস্ত আনুষ্ঠানিক কাজকর্ম, শিক্ষা ও গণমাধ্যমে আদর্শ আরবি ভাষা ব্যবহৃত হয়। কুয়েতের জনগণের প্রায় ৮৫% ভাগ লোক কথা-বার্তায় উপসাগরীয় আরবি ভাষা ব্যবহার করেন। এছাড়া দক্ষিণী আরবি ভাষা মেহরিতেও কিছু কুয়েতি কথা বলেন। বিদেশী ভাষা হিসেবে ইংরেজি ভাষা বহুল প্রচলিত। ১৯৬১ খ্রিষ্টাব্দের ৭ সেপ্টেম্বর কুয়েতের পতাকা গৃহীত হয় এবং ওই বছর২৪ নভেম্বর তা আনুষ্ঠানিকভাবে উত্তোলন করা হয়।

১৯৬২ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত কুয়েত প্রতিবছর ১৯ জুন স্বাধীনতা উৎসব উপলক্ষে জাতীয় দিবস উদ্্যাপন করা হতো। কিন্তু জুন মাসের গরম আবহাওয়ার কারণে ১৯৬৩ খ্রিষ্টাব্দে ওই তারিখ পরিবর্তন করে ২৫ ফেব্রুয়ারি জাতীয় দিবস পালনের রেওয়াজ চালু হয়। ১৯৫০ খ্রিষ্টাব্দের ২৫ ফেব্রুয়ারি শেখ আবদুল্লাহ কুয়েতের আমির হন। তাই ওই দিনকে গরমের অজুহাতে জাতীয় দিবসে পরিণত করা হয়। এটি এমন জাতি, যে গরমের ভয়ে জাতীয় দিবস পর্যন্ত পরিবর্তন করে ফেলে।

তেল সম্পদের মওজুদ বিবেচনায় বিশ্বে কুয়েতের স্থান পঞ্চম। কুয়েতের জাতীয় পাখি ফ্যালকন। পৃথিবীর একমাত্র দেশ কুয়েত যার কোন প্রাকৃতিক পানি সরবরাহ ব্যবস্থা নেই। এ দেশে রমজান মাসে দিনের বেলা প্রকাশ্যে খাওয়া, উচ্চৈঃস্বরে গানবাজনা এবং নৃত্য করা নিষিদ্ধ। ২০০৬ খ্রিষ্টাব্দ হতে কুয়েত উট প্রতিযোগিতার জকি হিসাবে প্রথম দূর নিয়ন্ত্রিত রোবট ব্যবহার শুরু করে। এর আগে বাংলাদেশসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দরিদ্র রাষ্ট হ্রতে আনা শিশুদের জকি হিসাবে ব্যবহার করা হতো।
কুয়েত ৯টি দ্বীপ নিয়ে গঠিত। যেগুলো আসলে তেলসমৃদ্ধ মরুভূমি। কুয়েতকে বলা হয় কুয়েত স্টেট। রাজধানী কুয়েত সিটি, কুয়েত উপসাগরের কূলে অবস্থিত। জুন থেকে আগস্ট মাসে কুয়েত পৃথিবীর সবচেয়ে তপ্ত দেশের একটিতে পরিণত হয়। বছরে গড়ে কেবল দুদিন বৃষ্টি হয়। বৃষ্টি না হলেও প্রতিবছর অসংখ্য বজ্রপাত হয়। কুয়েতের মুদ্রার নাম দিনার। মাথাপিছু আয় হিসাবে এটি পৃথিবীর পঞ্চম ধনী দেশ। কুয়েত হচ্ছে প্রথম আরবীয় দেশ, যেখানে প্রথম নির্বাচিত সংসদ গঠন করা হয়।

মোটা ও মেদবহুল লোকের ঘনত্ব বিবেচনায় কুয়েত বিশ্বে দ্বিতীয়। অধিকাংশ কুয়েতি শুধু খায় আর ঘুমায়। কুয়েতের মুদ্রা পৃথিবীর সবচেয়ে দামি। ১ কুয়েতি দিনার ৩.৩০ ডলার বা বাংলাদেশি ২৫৫ টাকার সমান। দেশের ৮৫% জিডিপি আসে পেট্রল ও পেট্রলজাত দ্রব্য হতে। কুয়েতে প্রতি মহিলার জন্য ১.৪৩ পুরুষ রয়েছে।


কিরগিজিস্তান (Kyrgyzstan) : ইতিহাস ও নামকরণ

জাপান (Japan) : ইতিহাস ও নামকরণ

জাপান (Japan) : ইতিহাস ও নামকরণ

জর্ডান (Jordan) : ইতিহাস ও নামকরণ

কাজাখস্তান (Kazakhstan) : ইতিহাস ও নামকরণ

সূত্র:  কীভাবে হলো দেশের নাম, ড. মোহাম্মদ আমীন, পুথিনিলয়, বাংলাবাজার, ঢাকা।

error: Content is protected !!