কেতাবি কেতাবি বিকাল বিরুদ্ধ কাল, রাক্ষসী বেলা

ড. মোহাম্মদ আমীন
সংযোগ: https://draminbd.com/কেতাবি-কেতাবি-বিকাল-বিরু/

আরবি কেতাব শব্দের অর্থ (বিশেষ্যে) কোরানশরিফ, ঐশীগ্রন্থ। বই, পুস্তক, গ্রন্থ অর্থও বাংলায় শব্দটির ব্যবহার আছে। কেতাব থেকে কেতাবি। কেতাবি অর্থ (বিশেষ্যে) কেতাবের বা ঐশীগ্রন্থের অনুসারী কিন্তু মুসলমান নয় (খ্রিষ্টান বা ইহুদি)। অর্থাৎ কেতাবি হচ্ছে খ্রিষ্টান ও ইহুদি। বিশেষণে কেতাবি শব্দের অর্থ পুথিগত বিদ্যা আছে কিন্তু অভিজ্ঞতা নেই এমন (কেতাবি বিদ্যা), হাতে কলমে আয়ত্ত করেনি এমন; পুথিগত, বইসংক্রান্ত প্রভৃতি। বিদেশি বলে কেতাবি বানানে ই-কার বিধেয়।

বিকাল মানে বিরুদ্ধ কাল, রাক্ষসী বেলা

বিকাল শব্দের আভিধানিক অর্থ দিনের শেষভাগ। দুপুরের পর শুরু হয় বিকাল এবং সন্ধ্যা পর্যন্ত তার স্থায়িত্ব। মানুষের জীবনেও আছে সকাল, দুপুর, বিকাল আর সন্ধ্যা। সন্ধ্যা দিনের শেষ প্রহর; তার পূর্বের প্রহর বিকাল হচ্ছে শেষ প্রহরের আগমন বার্তা। তাই বিকালকে কাব্যে যতই মধুরভাবে চয়ন করা হোক না কেন, জীবন ও দিনের জন্য বাস্তববাদীগণের কাছে এটি অন্যভাবে চিত্রিত।
বিকাল শব্দের ব্যুৎপত্তিগত অর্থ বিরুদ্ধ কাল এবং ‘বিরুদ্ধ কাল’ মানে খারাপ কাল। এটাকে অনেকে ‘রাক্ষসী বেলা’ও বলে থাকেন। রাক্ষস যেমন সবকিছু দ্রুত ধ্বংস করে দেয় এ সময়টাও জীবনের সময়টুকু দ্রুত খেয়ে ফেলে। তাই দিনের শেষ অংশের নাম হয়েছে বিকাল বা রাক্ষসী কাল। অভিধানমতে, দিনের শেষ আড়ািই ঘণ্টা সময়কে বলা হয় রাক্ষসী বেলা।
error: Content is protected !!