খানা খানা চারদিক খানা আর খানা: অন্তিমকাল বনাম অন্তিমদশা

ড. মোহাম্মদ আমীন

খানা খানা চারদিক খানা আর খানা: অন্তিমকাল বনাম অন্তিমদশা

খানা খানা খানা খানা
 
বাংলায় প্রচুর খানা দেখা যায়। যেমন: বড়োখানায়  খানা  খেয়ে খানার পেছনের খানায় হাতখানা ধুয়ে নিলেন ভদ্রলোক। তবে দেশি খানা মাত্র একখানা।  তাও এই খানা  খানায় বসে আহার্য হিসেবে মুখ দিয়ে খাওয়া কোনো খানা নয়। এ খানার অর্থ গর্ত, খানাখন্দ। মুখ দিয়ে মানুষ যা খায় সে খানা বাংলা নয়। সে খানা হিন্দি হতে আমাদের বাংলায় বেড়াতে  এসে বাংলা প্রেমে আটকে গেছে বেমালুম। তাই মেহমান হিসেবে তার প্রতি আমাদের এত দরদ। এই খানা দেখলে জিহ্বা শুধু খাইখাই করে।
 
 অভিধানে খানা শব্দের চারটি পৃথক ভুক্তি পাওয়া যায়। যেমন:
 
সংস্কৃত খানা:  সংস্কৃত খণ্ড থেকে উদ্ভূত -খানা অর্থ— (অব্যয় ও বিশেষ্যে) টুকরো। যেমন: 
একখানা মেঘ ভেসে এলো আকাশে,
এক ঝাঁক বুনোহাঁস পথ হারালো;
একা একা বসে আছি জানালাপাশে—
সে কি আসে আমি যারে বেসেছি ভালো?
 
সংস্কৃত হতে উদ্ভূত -খানা  নির্দিষ্ট বস্তু বা বিষয়নির্দেশক একটি বহুল ব্যবহৃত শব্দ (যেমন: বইখানা, শাড়িখানা)। এর আর একটি অর্থ— সংখ্যামাত্র। যেমন: তিনখানা বাড়ি, নয়খানা ওড়না।
 
দেশি খানা:  দেশি খানা অর্থ— (বিশেষ্যে) গর্ত, গহ্বর, খাত (যেমন: খানাখন্দ); ছোটো জলশায় ( খানায় ছোটো মাছ ধরছেন বাবা)।
 
ফারসি খানা: ফারসি খানা অর্থ— (বিশেষ্যে) গৃহ, কক্ষ ( যেমন: বৈঠকখানা, পায়খানা, হাজতখানা)। মুরুব্বিরা বৈঠকখানায় বসে গল্প করছেন।
 
হিন্দি খানা: এই খানা সবচেয়ে জনপ্রিয় খানা। শুধু বাংলায় নয় হিন্দিতেও। ইংরেজিতে যাকে বলে food। হিন্দি খানা অর্থ— (বিশেষ্যে) খাদ্য, আহার্য ( খানাটা খেয়ে  যাও); বৃহৎ ভোজসভা (রাজকীয় খানা, বড়োখানা)।
 
 
বড়োখানায় (ভোজসভায়) খানা (খাদ্য) খেয়ে খানার (বাড়ির) পেছনের খানায় (পুকুরে) হাতখানা সংখ্যা) ধুয়ে নিলেন ভদ্রলোক।

অন্তিমকাল বনাম অন্তিমদশা

অন্তিম: সংস্কৃত অন্তিম (অন্ত+ইম) অর্থ— (বিশেষণে) শেষ (অন্তিম যাত্রা); মৃত্যুকালীন (অন্তিম ইচ্ছা)। শব্দটির অর্থ— শেষ বা চূড়ান্ত প্রভৃতি হলেও শব্দটি বিশেষত মত্যুকালীন বা মুমূর্ষু প্রভৃতি সম্পর্কিত বিষয়ে ব্যবহার হয়।
 
অন্তিমকাল: সংস্কৃত অন্তিমকাল (অন্তিম+কাল) অর্থ— (বিশেষ্য) মৃত্যুকাল, শেষ সময়। অন্তিমকাল শব্দটি সময় বা কাল নির্দেশক। শব্দটি অবস্থার বা ঘটনা ঘটার শেষ সময় বা শেষ কাল নির্দেশ করে।
 
অন্তিমদশা: সংস্কৃত অন্তিমদশা (অন্তিম+দশা) অর্থ— (বিশেষ্যে) মুমূর্ষু অবস্থা। এটি অবস্থা বা ঘটনা বা প্রতিক্রিয়া নির্দেশ করে।
 
অন্তিম অবস্থা:অন্তিম অবস্থা বাগ্‌ভঙ্গির অর্থ—(বিশেষ্যে) মুমূর্ষু অবস্থা, শেষ দশা, অন্তিম দশা। অর্থাৎ, অন্তিমদশা ও অন্তিম অবস্থা সমার্থক। কিন্তু অন্তিম শব্দটি অবস্থা থেকে ফাঁকে রেখে বসে।
 
মনে রাখুন: সম-মেরুতে বিকর্ষণ। অ সহ্য করতে পারে না অ-বর্ণকে। তাই অন্তিম ও অবস্থা ফাঁক রেখে লিখতে হয়।
 
অন্তিমকাল সময় সম্পর্কিত, কিন্তু অন্তিমদশা বা অন্তিম অবস্থা ঘটনা সম্পর্কিত।
 
অন্তিমকালে অন্তিমদশা— এ তো প্রকৃতির নিয়ম।
 
এই পোস্টের লিংক: 
https://draminbd.com/খানা-খানা-চারদিক-খানা-আর-খ/
 
error: Content is protected !!