গুয়েতেমালা (Guatemala) : ইতিহাস ও নামকরণ

কীভাবে হলো দেশের নাম ( উত্তর আমেরিকা)

ড. মোহাম্মদ আমীন

গুয়েতেমালা (Guatemala)

 মাইয়া টলকেট (Maya-Toltec) ভাষায় গুয়েতেমালা (Guatemala) শব্দের অর্থ বন। নাহ্ওয়াট (Nahuatl) কিছি কিইচি (K’iche’ K’ii’chee’)

প্রকাশক: পুথিনিলয়। উত্তর আমেরিক।

শব্দের অনুবাদ কুয়াওহটেমালান (Cuauhtemallan)। শব্দটির অর্থ বহুবৃক্ষের স্থান। বিশেষজ্ঞ পণ্ডিতগণের অভিমত এ শব্দ হতে গুয়েতেমালা নামের উৎপত্তি। এটি সত্য হলে গুয়েতেমালা শব্দের অর্থ এমন একটি বন বা ভূখণ্ড যেখানে প্রচুর বৃক্ষ রয়েছে। আবার অনেকে মনে করেন, গুয়েতেমালা শব্দের অর্থ land of trees। গুয়েতেমালার সরকারি নাম রিপাবলিক ও গুয়েতেমালা। দেশটি সারা বছর সবুজে আচ্ছাদিত থাকে।  তাই এটাকে চিরন্তন বসন্তের দেশও বলা হয়। অনেকে বিশ্বাস করেন, গুয়েতেমালা নামটি গুয়েতজমালাহ( Guhatezmalh) হতে সৃষ্টি হয়েছে। যার অর্থ জল বমি-করা পর্বত (Mountain that vomits water) বা এমন পর্বত যা জল নির্গত করে বা এমন পর্বত যা থেকে নদীর সৃষ্টি হয়।

১৮২১ খ্রিষ্টাব্দের  ১৫ সেপ্টেম্বর গুয়েতেমালা স্পেন হতে স্বাধীনতা লাভ করে। এর সরকারি ভাষা স্পেনিশ। তবে অনেকে স্থানীয় আদিবাসী তাদের নিজস্ব আঞ্চলিক ভাষায় কথা বলেন। কুয়েটজাল দেশটির মুদ্রার নাম। ২০১৫ খ্রিষ্টাব্দের  হিসাবমতে, জিডিপি (পিপিপি) ১২৪.৯৪১ বিলিয়ন ইউএস ডলার এবং সে হিসাবে মাথাপিছু আয় ৭,৬৮০ ইউএস ডলার। অন্যদিকে, জিডিপি (নমিনাল) ৬৬.০৩৭  বিলিয়ন ইউএস ডলার এবং সে হিসাবে মাথাপিছু আয় ৪,০৫৯  ইউএস ডলার। গুয়েতেমালা মধ্য আমেরিকায় অবস্থিত একটি স্বাধীন রাষ্ট্র। এর সরকারি নাম রিপাবলিক অব গুয়েতেমালা। গুয়েতেমালার উত্তর ও পশ্চিমে মেক্সিকো,  দক্ষিণ-পশ্চিমে প্রশান্ত মহাসাগর, উত্তর-পূর্বে বেলিজ, পূর্বে ক্যারিবিয়ান ও হন্ডুরাস এবং দক্ষিণ-পূর্বে এল সালভাদর। গুয়েতেমালার রাজধানী ও বৃহত্তম শহর  নুয়েভা গুয়েতেমালা ডি লা অ্যাসুনচিয়ন (Nueva Guatemala de la Asunción)। এটি গুয়েতেমালা সিটি নামেও পরিচিত। রাজধানীর নাম গুয়েতেমালা সিটি। সরকারি ভাষা স্প্যানিশ। গুয়েতেমালার জনগণকে বলা হয়, গুয়েতেমালান।

গুয়েতেমালার মোট আয়তন ১,০৮,৮৮৯ বর্গকিলোমিটার বা ৪২,০৪২ বর্গমাইল। তন্মধ্যে জলীয়ভাগ ০.৪%। ২০১৪ খ্রিষ্টাব্দের  অনুমিত হিসাবমতে, ১,৫৮,০৬,৬৭৫ জন এবং প্রতি বর্গকিলোমিটারে জনসংখ্যার ঘনত্ব ১২৯ বর্গকিলোমিটার। আয়তন বিবেচনায় গুয়েতেমালা পৃথিবীর ১০৭-তম বৃহত্তম

প্রকাশক: পুথিনিলয়। দক্ষিণ আমেরিকা।

দেশ কিন্তু জনসংখ্যা বিবেচনায়  এটি ৬৬-তম জনবহুল দেশ কিন্তু জনসংখ্যার ঘনত্ব বিবেচনায়  ৮৫-তম। ১৮২১ খ্রিষ্টাব্দের  ১৫ সেপ্টেম্বর স্পেন হতে স্বাধীনতা লাভ করে। ১৮২৩ খ্রিস্টাব্দ ১ জুলাই প্রথম মেক্সিকান সাম্রাজ্য হতে স্বাধীনতা ঘোষণা করে। ১৯৮৫ খ্রিষ্টাব্দের  ৩১ মে বর্তমান সংবিধান গৃহীত হয়।

ম্যয়াইন যুগে গুয়েতেমালায় প্রথম চকোলেট বার গুয়েতেমালায় আবিষ্কৃত হয়। ব্লু ডেনিম প্রথম এখানে প্রস্তুত হয়। আয়তনে দেশটি ছোট হলেও এখানে সক্রিয় আগ্নেয়গিরির সংখ্যা ৩৩। স্পেনিশ প্রভাবের কারণে গুয়েতেমালার অধিকাংশ লোক ক্যাথলিক, তন্মধ্যে অধিকাংশ রোমান ক্যাথলিক। কফি, চিনি, কলা, দামি ধাতু-আকরিক প্রভৃতি এ দেশের প্রধান রপ্তানি পণ্য। গুয়েতমালা মাইয়ান সভ্যতার কেন্দ্রভূমি। এখানকার মোট জনসংখ্যার অর্ধেক প্রত্যক্ষভাবে মায়া (Maya)বংশোদ্ভুদ। স্পেনিশ সরকারি ভাষা হলেও এখানে ২১টি মায়া আঞ্চলিক ভাষা রয়েছে। এখানে ২০০ মায়া এলাকা রয়েছে। যেগুলোর উৎপত্তি খ্রিস্টপূর্ব ৩৫০ অব্দ হতে ৯০০ খ্রিষ্টাব্দের  মধ্যে। এখানে একটি প্রাচীন কিংবদন্তি রয়েছে। এটি হচ্ছে মায়া শিশুরা কাদে না। কারণ তারা সবাই যোদ্ধা হিসাবে জন্মগ্রহণ করে।


বার্বাডোস (Barbados ) : ইতিহাস ও নামকরণ

বেলিজ (Belize) : ইতিহাস ও নামকরণ

কানাডা (Canada) : ইতিহাস ও নামকরণ

কোস্টারিকা (Costa Rica) : ইতিহাস ও নামকরণ

কিউবা ( Cuba) : ইতিহাস ও নামকরণ

ডোমিনকা (Dominica) : ইতিহাস ও নামকরণ

 ডোমিনিকান রিপাবলিক (Dominican Republic) : ইতিহাস ও নামকরণ

এল স্যালভেডর (El Salvador) : ইতিহাস ও নামকরণ

গ্রেনাডা (Grenada) : ইতিহাস ও নামকরণ

সূত্র:  কীভাবে হলো দেশের নাম, ড. মোহাম্মদ আমীন, পুথিনিলয়, বাংলাবাজার, ঢাকা।

All Link

সাধারণ জ্ঞান সমগ্র

Knowledge Link

বাংলাদেশ ও বাংলাদেশবিষয়ক সকল গুরুত্বপূর্ণ সাধারণজ্ঞান লিংক

আফ্রিকা মহাদেশ : ইতিহাস ও নামকরণ লিংক

ইউরোপ মহাদেশ : ইতিহাস ও নামকরণ লিংক

এশিয়া মহাদেশ : ইতিহাস ও নামকরণ লিংক

error: Content is protected !!