জাতীয় সংগীত

জাতীয় সংগীত
রবীন্দ্রনাথের ‘আমার সোনার বাংলা, গানটি বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত। ১৯০৫ খ্রিষ্টাব্দে বঙ্গভঙ্গ আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে গানটি রচিত হয়েছিল। ১৯৭২ খ্রিষ্টাব্দের ১৩ই জানুয়ারি বাংলাদেশের মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠকে গানটির প্রথম দশ লাইন বাংলাদেশ রাষ্ট্রের জাতীয় সঙ্গীত হিসেবে গৃহীত হয়।

যেভাবে বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত হলো
১৯৭১ খ্রিস্টাব্দের ১লা মার্চ গঠিত হয় স্বাধীন বাংলা কেন্দ্রীয় সংগ্রাম পরিষদ। ১৯৭১ খ্রিষ্টাব্দের ৩রা মার্চ তারিখে পল্টন ময়দানে অনুষ্ঠিত জনসভা শেষে ঘোষিত ইশতেহারে বঙ্গবন্ধুর প্রস্তাবক্রমে এই গানকে জাতীয় সঙ্গীত হিসাবে ঘোষণা করা হয়। ১৯৭১ খ্রিষ্টাব্দের ১৭ই এপ্রিল মুজিবনগরে স্বাধীন বাংলাদেশের সরকারের শপথ অনুষ্ঠানে গানটি প্রথম জাতীয় সঙ্গীত হিসাবে গাওয়া হয়।

জাতীয় সংগীতের বিশ্ব রেকর্ড
২০১৪ খ্রিষ্টাব্দের ২৬ শে মার্চ, ঢাকার জাতীয় প্যারেড ময়দান একসঙ্গে ২,৫৪,৫৩৭ লোক একসঙ্গে জাতীয় সঙ্গীত গাওয়ার মাধ্যমে গিনেস বিশ্ব রেকর্ড করে। শ্রোতৃবৃন্দের পছন্দানুসারে বিবিসি বাংলার তৈরি সেরা বিশটি বাংলা গানের তালিকায় এই গানটি প্রথম স্থান দখল করে।

জাতীয় সংগীত

জাতীয় পতাকা

জাতীয় পতাকা বিধিমালা

জাতীয় সংগীত

জাতীয় সংগীত

রণসংগীত

আমার সোনার বাংলা 

জাতীয় পাখি ফুল ফল মাছ বৃক্ষ পশু ব্যক্তিত্ব পোশাক

জাতীয় গাড়ি

error: Content is protected !!