জারজকথন: জারজ শব্দ: সব শব্দ বাংলার অথবা অজ্ঞাতকুলশীল জারজ

ড. মোহাম্মদ আমীন
 
 
সাক্ষাৎকার বোর্ডের কথোপকথন
অসম্পূর্ণ ও খসড়া
 
চাকুরিপ্রার্থী মনিরের সাক্ষাৎকার।
বেশ মেধাবী। বিশ্রামকক্ষের এক কোনায় বসে অন্যান্য প্রার্থীর আচরণ দেখছিলেন। হঠাৎ ডাক পড়ল তার। ধীরপদে রুমে ঢুকে সালাম দিয়ে বললেন, স্যার, আমি কি বসতে পারে?
বসুন, সাক্ষাৎকার বোর্ডের চেয়ারম্যান জামাল সাহেব  বললেন।
ধন্যবাদ জানিয়ে বসে পড়লেন মনির।
বাংলায় বিদেশি শব্দের সংখ্যা সম্পর্কে কী জান?  জামাল সাহেবের প্রথম প্রশ্ন।
মনির বললেন, বাংলায় কোনো বিদেশি শব্দ নেই। বাংলায় ব্যবহৃত শব্দ শব্দই বাংলা শব্দ।
আমি জানতে চাইছি বাংলায় কথা বলার সময় ব্যবহৃত বিদেশি শব্দের সংখ্যা কত?
আপনি কি স্যার বাংলিশের কথা বলছেন?
না।
বাংলায় কথা বলার সময় আমরা যেসব বিদেশি শব্দ ব্যবহার করি সেসব শব্দের কথা বলছি।
বাংলায় কথা বলার সময় আমি একটাও বিদেশি শব্দ ব্যবহার করি না। অন্যে কয়টা ব্যবহার করে তা জানি না। 
বাংলায় কি তাহলে বিদেশি শব্দ নেই?
বাংলায় যেসব শব্দ দিয়ে আমরা দীর্ঘকাল ধরে কথা বলে আসছি এবং বাংলাভাষীর কাছে মাতৃভাষার শব্দের মতো পরিচিত তার সবগুলো বাংলা শব্দ। তাই বাংলায় কোনো বিদেশি শব্দ নেই। আমাদের পরিবারে বাইরের অনেক লোক আসতে পারে। স্বল্পকাল থেকে চলে যায়। তারা আমাদের মেহমান, আমার মা-বাবার সন্তান নয়। আমরা যারা জ্ঞানমতে আমাদের মা-বাবার সন্তান এবং রক্তসম্পর্কিত তারা আমাদের পরিবারে বিদেশি কেউ নয়। বাবা-মায়ের সন্তান যেমন জারজ হতে পারে না, তেমনি পারে না মাতৃভাষার শব্দ বিদেশি হতে। জগৎ জুড়ে একটি জাতি, একটি ভাষা একটি রীতি। স্থানভেদে কেবল তার প্রকাশটা ভিন্ন।
আরবি, ফারসি, ইংরেজি, পোর্তুগিজ, তুর্কি, গ্রিক ফরাসি, চায়না, হিন্দি, তামিল প্রভৃতি ভাষার শব্দ কী বাংলায় নেই?
না। বাংলায় বাংলা শব্দ ছাড়া আর কোনো ভাষার শব্দ নেই। ঠিক আমার মায়ের সন্তানের মতো। আমরা যে শব্দকে বাংলা ব্যাকরণমতে বাংলা বানানে বাংলা বাক্যে বসিয়ে পদ বানিয়ে কথা বলছি সব শব্দ বাংলার। 
“দেখা যাক, আছে কি না”, জামাল সাহেব মনিরকে ইংরেজিতে লেখা  একটি অনুচ্ছেদ দিয়ে বললেন, এটি বঙ্গানুবাদ করো।
জি,স্যার। 
কিন্তু একটি শব্দও বিদেশি থাকতে পারবে না। 
থাকবে না।  আমার মাতৃভাষা বাংলা, সে আমার মা। আমার মায়ের পেটে অন্য জনের সন্তান নেই। এমন করা উচিত নয়। ভাষার প্রতিটি শব্দ তার সন্তানের মতো। যারা এক মায়ের সন্তানকে অন্য মায়ের সন্তান হিসেবে পরিচিত করে তারা কুলাঙ্গার, অবিবেচক।  আবদুল হাকিমের ভাষায় জারজ। 
কী বলতে চাও?
যে জন বঙ্গেত জন্মি হিংসে বঙ্গবাণী
সে সব কাহার জন্ম নির্ণয় ন জানি। 
তুমি বঙ্গানুবাদটা করে দাও। তারপর বুঝব তোমার অজারজত্বের বাহাদুরি। বিদেশি ভাষার শব্দ বলা বা শ্রুত হওয়া মাত্র একটা ভিন্ন দ্যোতনার সৃষ্টি হয়। যেমন: অ্যান্ড – – । এসব শব্দ বললে বোঝা যায় আমরা বাংলার সঙ্গে ইংলিশ মিশিয় দিচ্ছি। থাক, এসব; আগে অনুবাদটা করে দিই স্যার।
 
বার অফিস থেকে আতাঁত করে বার হয়ে ইউনিভার্সিটিহাসনুহানা ঝোপড়ার নিকটবর্তী অ্যাকাদেমির টুলে রুটি চা খেয়ে  আলখাল্লা পরিহিত উকিল তমাল হাসান খান সাহেবের সঙ্গে আখরোট হস্তে আস্তে করে বারের গুদাম কামরায় ঢুকে লুঙ্গিপরিহিত বয়কে, দুই পেগ হুইস্কি ও তিন পেগ ভদকার দাম দিয়ে বললেন, তাড়াতাড়ি করো। 
 
বার: ইংরেজি (উকিল সমাজ)
অফিস: ইংরেজি
 
আঁতাঁত ফারসি
 
বার: সংস্কৃত- বাহির
 
ইউনিভার্সিটি: লাতিন
হাসনুহানা:  (জাপানি) [হাসনাহেনা নয়]
ঝোপড়া: হিন্দি ( লতাপাতায়  আচ্ছাদিত ছোটো ঘর)  
নিকটবর্তী: সংস্কৃত
অ্যাকাদেমি: গ্রিক; অ্যাকাডেমি: ইংরেজি
টুলে: ইংরেজি
 
রুটি:  তামিল
 
চা: চিনা
 
অতঃপর: সংস্কৃত
 
আলখাল্লা: আরবি 
পরিহিত: সংস্কৃত
উকিল: আরবি
তমাল: সংস্কৃত
হাসান: আরবি
খান: তুর্কি
সাহেব: আরবি
 
আখরোট: পসতু
হস্ত: সংস্কৃত
 
আস্তে:  ফারসি
করে
বারের: ইংরেজি (পানশালা)
গুদাম: পোর্তুগিজ
কামরা:পোর্তুগিজ
ঢুকে
লুঙ্গি: বর্মি
পরিহিত: সংস্কতৃ
বয়: ইংরেজি
ইসা: হিব্রু
হুইস্কি: আইরিস
ভদকা: (রুশীয়)
দাম: (গ্রিক)
 
তোমার অনুবাদে এগুলো বিদেশি শব্দ। চেয়ারম্যান বললেন।
না এগুলো বিদেশি নয়। কোন দেশি তা কেউ জানে না। এ শব্দগুলোর বাবা কে আর মা কে এবং কোথায় জন্ম নিয়েছে তা কেউ জানে না।  যারা বিদেশি বলছে তারা আমার আর আপনার মতো আন্দাজে  নিজের দেখা বিষয়কে দাবি করছে। ভাষা ছিল একটি। সে ভাষা হতে সব ভাষার জন্ম। বাংলাও ওই ভাষা হতে সৃষ্টি হয়েছে। তাই বাংলায়  যেসব শব্দকে বিদেশি ভাবা হচ্ছে অন্য ভাষায় সেসব শব্দও বিদেশি হতে পারে।
চেয়ারম্যান সাহেব বললেন, আমি কী আন্দাজে বললাম?
এগুলো যদি বিদেশি হয়, তাহলে ওই বিদেশ ওই শব্দগুলো কোত্থেকে পেয়েছে, স্যার? যে ভাষাগুলোর কথা বললেন, এগুলোর গড় বয়স সর্বোচ্চ তিন হাজার বছরের ন্যায়।সত্য বলতে কী কোনো শব্দই বিদেশি নয়। বিদেশি শব্দের সংজ্ঞার্থ বিশ্লেষণ করলে এটি প্রতিভাত হবে। স্যার, আপনি কোন দেশি?
বাংলাদেশি।
আপানি কি জানেন আপনার আদি পুুরুষ কে? এবং কততম পুরুষ এখানে এসেছে? জানেন না, তবে এটি জানেন আপনার পূর্বপুরুষ বাংলাদেশি ছিলেন না। তবু বলেন বাংলাদেশি।
বাংলাদেশিই তো।
স্যার, আপনার বাবার নাম?
কামাল চৌধুরী।
দাদার নাম?
বজলুল চৌধুরী।
তার বাবার নাম?
হাসিম চৌধুরী।
তার বাবর নাম?
জানি না।
চার পুরুষ পূর্বের  লোকটির নাম  জানেন না। এর আগে কী ছিলেন এভাবে  যেতে যেতে আপনি পেয়ে যাবেন আপনার পূর্বপুরুষ একজনই। তার মানে এই না যে তিনি আপনার জন্মদাতা। আমার বর্তমান জ্ঞান নিয়ে আমার অবস্থিতি। ঠিক ভাষার ক্ষেত্রেও তেমনি। বরং আমি বলতে পারি, আপনি যেসব  ভাষার কথা বলছেন, সেসব ভাষা বাংলা ভাষার শব্দ নিয়ে রচিত। পৃথিবীর আদি ভাষা যদি সংস্কৃত হয় তাহলে সব ভাষাই সংস্কৃত ভাষা হতে সৃষ্ট। বাংলায় ব্যবহৃত শব্দ যদি নানা দেশের শব্দ হিসেবে চিহ্নিত করেন এবং বাংলা ভাষার শব্দ নয় বলে চিহ্নিত করে তাহলে, আপনাকে এটাও মেনে নিতে হবে যে,  আপনার বর্তমান বাবাও আপনার বাব নন। আপনার পিতামহও আপনার বাবার বাবা নন। 
 
 
এই পোস্টের লিংক:
https://draminbd.com/জারজকথন-জারজ-শব্দ-সব-শব্দ/
 
 
 
 
 
error: Content is protected !!