জ্যামাইকা (Jamaica) : ইতিহাস ও নামকরণ

কীভাবে হলো দেশের নাম ( উত্তর আমেরিকা)

ড. মোহাম্মদ আমীন

জ্যামাইকা (Jamaica)

জ্যামাইকা ক্যারিবিয়ান সাগরে অবস্থিত এক দ্বীপরাষ্ট্র। এটি কিউবা থেকে ১৪৫ কিলোমিটার দক্ষিণে এবং হিস্পানওলা থেকে ১৯১ কিলোমিটার পশ্চিমে

প্রকাশক: পুথিনিলয়। উত্তর আমেরিক।

অবস্থিত। এ দ্বীপপুঞ্জে হাইতি ও ডমিনিকান রিপাবলিক অবস্থিত।জ্যামাইকা ক্যারিবিয়ান অঞ্চলের পঞ্চম বৃহত্তম দ্বীপ।জ্যতাইনো/অ্যারাওয়াক (Taíno/Arawak) ইন্ডিয়ান জ্যাইমাকা (Xaymaca) বা হ্যামাইকা (Hamaica) হতে জ্যামাইকা নামের উদ্ভব। জ্যাইমাকা বা হ্যামাইকা শব্দের অর্থ কাঠ ও জলের দেশ (Land of Wood and Water)। আবার অনেকের মতে এর অর্থ বসন্তের দেশ (Land of Springs)। অবশ্য দুটো অর্থই প্রায় অভিন্ন। এ জন্য অনেকে মনে করেন, জ্যামাইকা শব্দের অর্থ ‘কাঠ ও জলের দেশ’ বা ‘বসন্তের দেশ’। জল ও কাঠ বসন্তের মধ্য দিয়ে আসে। কথিত হয়, তাইনো (Taíno) নামের জনগোষ্ঠীর লোকেরা ওই দ্বীপের নাম রেখেছিল জ্যাইমাকা। জ্যামাইকানরা আঞ্চলিক ভাষায় তাদের দ্বীপকে বলেন রক। অবশ্য এর অপনাম জ্যামরুক (Jamrock) বা জ্যামডাউন বা জ্যামাডাঙ (Jamdown, Jamdung) বা সংক্ষেপে জ্যা (Ja)। উল্লেখ্য জ্যামডাঙ বা জ্যমডাউন অর্থ জ্যামাইকান প্যাটিওস (Jamaican Patois) ভাষার শব্দ।

জ্যামাইকার আয়তন ১০,৯৯১ বর্গকিলোমিটার বা ৪,২৪৪ বর্গমাইল। জলীয় ভাগ ১.৫%। ২০১৫ খ্রিষ্টাব্দের  হিসাবমতে মোট জনসংখ্যা ২৯,৫০,২১০ এবং প্রতি বর্গকিলোমিটার জনসংখ্যা ২৫২ জন। আয়তন বিবেচনায় এটি পৃথিবীর ১৬৬-তম বৃহত্তম দেশ কিন্তু জনসংখ্যার দিক হতে ১৩৯-তম। তবে জনসংখ্যার ঘনত্ব বিবেচনায় এটি পৃথিবীর ৪৯-তম জনবহুল দেশ। ২০১২ খ্রিষ্টাব্দের  হিসাবমতে, জ্যামাইকার জিডিপি (পিপিপি) ২৫.৩১৭ বিলিয়ন ইউএস ডলার এবং মাথাপিছু আয় ৯,১৯৯ ইউএস ডলার। অন্যদিকে, জিডিপি (নমিনাল) ১৫.৫৬৯ বিলিয়ন ইউএস ডলার এবং মাথাপিছু ৫,৬৫৭ আয় ইউএস ডলার। মুদ্রার নাম ডলার। রাজধানী কিংসটন, সরকারি ভাষা ইংরেজি।

জ্যামাইকায় এক সময় সাপ ছিল। ইঁদুর মারার জন্য ১৮৭২ খ্রিস্টাব্দে বেজি আমদানি করায় বেজি দেশের সব সাপ মেরে ফেলে। তাই এখন জ্যামাইকায় সাপ নেই বললে চলে। এ দেশের জাতীয় পানীয় রাম। ক্যারিবিয়ান অঞ্চলে জ্যামাইকা প্রথম বাণিজ্যিকভিত্তিতে রাম উৎপাদন করে। পশ্চিম গোলার্ধে

প্রকাশক: পুথিনিলয়। ইউরোপ

জ্যামাইকায় প্রথম বাণিজ্যিক ভিত্তিতে কলা উৎপাদন করে। ব্রিটিশ লেখক আইয়ান ফ্লেমিং এর বিখ্যাত চরিত্র জেমস বন্ড। তিনি জেমস বন্ডের ১০টি থ্রিলার জ্যমাইকায় বসে লিখেছেন। ক্যারিবিয়ান অঞ্চলে জ্যামাইকা জনসংখ্যা বিবেচনায় বৃহত্তম ইংরেজিভাষী দেশ  এবং যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার পর পশ্চিম গোলার্ধে তৃতীয় বৃহত্তম ইংরেজিভাষী দেশ।

পর্যটন জ্যামাইকার দ্বিতীয় বিদেশি মুদ্রা অর্জনকারী খাত। মিচেল লি-চিন ক্যারিবীয় অঞ্চলের প্রথম বিলোনিয়ার। হোটেল ব্যবসাতেও জ্যামাইকা পৃথিবী বিখ্যাত। বক্সাইট এ দেশের অন্যতম অর্থকর খনিজ। কলা, আম প্রভৃতি রপ্তানি করেও জ্যামাইকা প্রচুর আয় করে। পাহাড়-পর্বত, স্বচ্ছনদীর দূরন্ত প্রবাহ, সাদা বালির বিস্তীর্ণ সমুদ্র সৈকত এবং তৎসঙ্গে পর্যটকদের অবারিত সুযোগ-সুবিধা দেশটিকে আর্থিকভাবে সমৃদ্ধ করে তোলেছে।

প্রতি বর্গমাইলে জ্যমাইকাতে গির্জার সংখ্যা পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি। এখানে রয়েছে প্রায় ১৭০০ গির্জা। ক্যারিবিয়ান অঞ্চলে জ্যামাইকাতে ১৯৯৪ খ্রিস্টাব্দে  প্রথম ওয়েব সাইট ব্যবহার শুরু হয়। জ্যামাইকা প্রথম ব্রিটিশ উপনিবেশ ,১৬৮৮ খ্রিস্টাব্দে ডাক সেবা চালু করে।  ১৫৯৪ খ্রিস্টাব্দে কলম্বাস জ্যামাইকা দেখতে পান এবং এটি স্পেনের বলে দাবি করে। তিনি এর নাম দিয়েছিলেন সেন্ট ইয়াগো বা ( সেন্ট জেমস)। ১৬৬৫ খ্রিস্টাব্দে ব্রিটিশ দেশটির অধিকার স্পেন হতে ছিনিয়ে নেয় এবং পরবর্তী ৩০০ বছর জ্যামাইকা শাসন করতে থাকে। cassava, maize, papaya and savannah প্রভৃতি শব্দ জ্যামাইকার টাইনো (Taino) ভাষার শব্দ।

জ্যামাইকা ও মৌরিতানিয়ার জাতীয় পতাকায় কোনো লাল রঙ নেই। পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম প্রজাপতি (Giant Swallowtail ) জ্যমাইকাতে পাওয়া যায়। জ্যামাইকার সংগীত বিশ্ববিখ্যাত।


উত্তর আমেরিকা (North America) : ইতিহাস ও নামকরণ

এন্টিগুয়া এন্ড বারবুডা (Antigua and Barbuda) : ইতিহাস ও নামকরণ

 দি বাহামাস (Bahamas) : ইতিহাস ও নামকরণ

বার্বাডোস (Barbados ) : ইতিহাস ও নামকরণ

বেলিজ (Belize) : ইতিহাস ও নামকরণ

কানাডা (Canada) : ইতিহাস ও নামকরণ

কোস্টারিকা (Costa Rica) : ইতিহাস ও নামকরণ

কিউবা ( Cuba) : ইতিহাস ও নামকরণ

ডোমিনকা (Dominica) : ইতিহাস ও নামকরণ

 ডোমিনিকান রিপাবলিক (Dominican Republic) : ইতিহাস ও নামকরণ

এল স্যালভেডর (El Salvador) : ইতিহাস ও নামকরণ

গ্রেনাডা (Grenada) : ইতিহাস ও নামকরণ

গুয়েতেমালা (Guatemala) : ইতিহাস ও নামকরণ

ইউনাইটেড স্টেটস (United States) : ইতিহাস ও নামকরণ

হাইতি (Haiti) : ইতিহাস ও নামকরণ

হন্ডুরাস (Honduras) : ইতিহাস ও নামকরণ

সূত্র:  কীভাবে হলো দেশের নাম, ড. মোহাম্মদ আমীন, পুথিনিলয়, বাংলাবাজার, ঢাকা।

All Link

সাধারণ জ্ঞান সমগ্র

Knowledge Link

বাংলাদেশ ও বাংলাদেশবিষয়ক সকল গুরুত্বপূর্ণ সাধারণজ্ঞান লিংক

আফ্রিকা মহাদেশ : ইতিহাস ও নামকরণ লিংক

ইউরোপ মহাদেশ : ইতিহাস ও নামকরণ লিংক

এশিয়া মহাদেশ : ইতিহাস ও নামকরণ লিংক

error: Content is protected !!