তিমিঙ্গিল তুরান তুরানি তুতিনাম তৈলবট

ড. মোহাম্মদ আমীন
ড. মোহাম্মদ আমীন
সংযোগ: https://draminbd.com/তিমিঙ্গিল-তুরান-তুরানি-ত/
তিমিঙ্গিল: তৎসম তিমিঙ্গিল (তিমি+√গিল্‌+অ) অর্থ (বিশেষ্যে) পুরাণে কল্পিত অতিকায় প্রাণিবিশেষ যা তিমিকেও গিলে ফেলতে পারে। এটি অতি বিরাটকায় একটি পৌরাণিক প্রাণী। একটি বড়ো বোয়াল মাছ যেমন একটি বড়ো আকারের টাকি মাছকে সহজে গিলে ফেলতে পারে, একটি তিমিঙ্গিলও বিশাল আকারের একটি তিমিকে ঠিক তেমন সহজে গিলে ফেলতে পারে। অনেকে মনে করেন, তিমিঙ্গিল নামের জন্তুটির অস্তিত্ব ছিল। ডাইনোসরের মতো এটিও  বিলুপ্ত হয়ে গেছে। আর একটি প্রাণীর কথাও কল্পনা করা হয়। এর নাম তিমিতিমিঙ্গিল বা তিমিঙ্গিলগিলতিমিঙ্গিলগিল প্রাণীটা তিমিঙ্গিলকেও গিলে ফেলতে পারে।
তাঁর আজ্ঞা উলঙ্খিলে, সুবিপদ তিমিঙ্গিলে, গ্রাসে পাছে হইয়া করাল।” কলিকুতূহল, নারায়ণ চট্টরাজ
তুরান:বাক্যে বিশেষ্য হিসেবে ব্যবহৃত তুরান অর্থ তুরস্ক নামের দেশ, তুরস্ক। তুরান থেকে তুরানি। ইরান থেকে সৃষ্ট ইরানি শব্দের প্রভাবে তুরানি শব্দটির উদ্ভব। এর অর্থ বিশেষ্যে তুরস্কের নাগরিক, তুর্কিযোদ্ধা এবং বিশেষণে তুরস্কদেশীয়। ইরান তুরান কাবার পথে নসিম হিজাজির লেখা একটি বিখ্যাত বই।
“আমি রূপনগরের রাজকন্যা রূপের যাদু এনেছি
ইরান তুরান পার হয়ে আজ তোমার দেশে এসেছি।”
তুতিনামা: তুতিনামা ফারসি উৎসের শব্দ। ফারসি তুতিনামাহ্ শব্দের সমন্বয়ে তুতিনামা শব্দটি গঠিত। তুতি অর্থ শুকপক্ষী বা তোতা এবং নামাহ অর্থ কাহিনি।  সুতরাং, তুতিনামা অর্থ (বিশেষ্যে) শুকপক্ষীর বিবরণ বা কাহিনি,  শুকপক্ষীর বিবরণ বা কাহিনি অবলম্বনে রচিত পারসিক গ্রন্থ বা তার অনুবাদকে তুতিনামা বলা হয়। বিস্তারিত (নিচের সংযোগে)
“. . .টামস্‌ ডিস্ প্রণীত ‘স্পেলিং বুক’, ‘স্কুল মাস্টার’, ‘কামরূপা’, ও  ‘তুতিনামা’ এই সকল পুস্তক পাঠ করিত।” সেকাল আর একাল, রাজনারায়ণ বসু

বাংলার প্রথম তুতিনামা হলো তোতা ইতিহাস। এটি ফারসি সাহিত্যিক  কাদির বখস কর্তৃক ফারসি ভাষায় রচিত বিখ্যাত তুতিনামা গ্রন্থের বঙ্গানুবাদ। ফোর্ট উইলিয়াম কলেজের বাংলাা ভাষার শিক্ষক চণ্ডীচরণ মুনশী ১৮০৪ খ্রিষ্টাব্দে কাদির বখশ রচিত তুতিনামা গ্রন্থটি মূল ফারসি ভাষা হতে বাংলায় অনুবাদ করেন এবং ১৮০৫ খ্রিষ্টাব্দে শ্রীরামপুর মিশন প্রেস থেকে গ্রন্থাকারে প্রকাশিত হয়। এতে মোট ৩৫টি গল্প আছে। গ্রন্থটি ফোর্ট উইলিয়াম কলেজের বাংলা শিক্ষাক্রমের অন্তর্ভুক্ত ছিল। তোতা ইতিহাস অনুবাদ  এবং উপাখ্যানগ্রন্থ হলেও বাংলা গদ্য সাহিত্যের অন্যতম আদি নিদর্শন হিসেবে অশেষ ঐতিহাসিক মূল্য ধারণ করে।

প্রায় একই সময়ে লন্ডন থেকে তোতা ইতিহাস গ্রন্থের দুটি সংস্করণ মুদ্রিত ও প্রকাশিত হয়। ১৮১১ খ্রিষ্টাব্দে প্রকাশিত সংস্করণের পৃষ্ঠা সংখ্যা ছিল ১৩৮। ১৮২৫ খ্রিষ্টাব্দে প্রকাশিত সংস্করণের পৃষ্ঠা সংখ্যা ছিল ১৪০। স্যার গ্রেভস হটন্‌ ১৮২২ খ্রিষ্টাব্দে  Bengali Selection নামে যে গ্রন্থটি প্রকাশ করেন তাতে তোতা ইতিহাস গ্রন্থের  ১০টি কাহিনির ইংরেজি অনুবাদ ছিল। ১৮৪৭ খ্রিষ্টাব্দে ডব্লিউ, ইয়াটস তার Introduction to the Bengali Language গ্রন্থের ২য় খণ্ডে তোতা ইতিহাস গ্রন্থের ১৮ টি কাহিনি সংকলন করেন। 

তৈলবট: ব্যবস্থাপত্রের মূল্যস্বরূপ স্মার্তপণ্ডিতকে দেয় অর্থ। এককালে ব্যবস্থার মূল্যস্বরূপ স্মার্তপণ্ডিতগণকে তেল এবং বট (কড়ি) দেওয়া হতো। এজন্য এর নাম তৈলবট। তৈলবট শব্দটি বাক্যে বিশেষ্য হিসেবে ব্যবহৃত হয়।
“এই বলিয়াই সহাস্যে বলিলেন, ‘নবদ্বীপের অধ্যাপকেরা তৈলবট না পাইলে ব্যবস্থা দেন না— আমারও তৈলবট চাই।”— তৈলবট, বঙ্গদর্শন, ২বর্ষ, অগ্রহায়ণ, অষ্টম সংখ্যা, যোগেন্দ্রকুমার চট্টোপাধ্যায়।

ঘটিবাঙাল কথাটাতে ঘটি মানে কী

নেড়ে নাড়্যে নানকর নালিতা নালো

নাটা নাটাফল; কাটি কাঠি; ঘুণাক্ষর শব্দের উৎপত্তি

নলুয়া পাখমার ব্যধ পাখি শিকারিনলুয়া পাখমার

পৃথিবী: ওয়ার্ল্ড World এবং পৃথিবী নামের উৎস, নামকরণ বৃত্তান্ত, নামকরণের ইতিহাস, World নামের উৎপত্তি ও ব্যুৎপত্তি

 

error: Content is protected !!