তিলোত্তমা : বাংলা বানান কোথায় কী লিখবেন

ড. মোহাম্মদ আমীন
বাংলা একাডেমি ব্যবহারিক বাংলা অভিধানে তিলোত্তমার অর্থ বলা হয়েছে— (১) হিন্দু পুরাণমতে সুন্দ ও উপসুন্দকে বিনষ্ট করার লক্ষ্যে সৃষ্টির সকল প্রকার সৌন্দর্য থেকে তিল তিল করে আহৃত উৎকৃষ্ট অংশ দ্বারা সৃষ্ট অপ্সরাবিশেষ। (২) স্বর্গের পরমাসুন্দরী অপ্সরা।তিলোত্তমা শব্দটির উদ্ভব ভারতীয় পুরাণের একটি কাহিনির সঙ্গে জড়িত। এবার কাহিনিট কী জানা যাক:

কথিত হয়, দৈত্যরাজ নিকুম্ভের দুই পুত্র সুন্দ ও উপসুন্দ ব্রহ্মার কঠোর তপস্যা করে ত্রিলোক বিজয়ের জন্য অমরত্ব প্রার্থনা করেন। ব্রহ্মার অনুগ্রহে  দুভাই প্রত্যাশিত অমরত্ব লাভ করেন। অমরত্ব লাভের পর তাদের অত্যাচার বৃদ্ধি পেতে থেকে।সুন্দ-উপসু্ন্দের অত্যাচারে দেবতাগণ অতিষ্ঠ হয়ে পড়ে। দেবতাগণ ব্রহ্মার কাছে এর প্রতিকার প্রার্থনা করেন।

ব্রহ্মা বললেন, আমার বর পাওয়ার পর এরা অমর। কেউ তাদের মারতে পারবে না। তবে পরস্পরের হাতেই এদের মৃত্যু হবে— অন্য কারও হাতে নয়। দেবতৃবেৃন্দের অনুরোধে ব্রহ্মা বিশ্বকর্মাকে এক পরমাসুন্দরী নারী সৃষ্টি করতে বললেন। ত্রিভুবনের সমস্ত উত্তম জিনিস তিল তিল করে সংগ্রহ করে বিশ্বকর্মা- এ সুন্দরীর সৃষ্টি করেছিলেন। ফলে এর নাম হয় তিলোত্তমা। তাঁকে দেখার জন্য ব্রহ্মার চারিদিকে চারটি মুখের সৃষ্টি হয় এবং ইন্দ্রের সহস্র চক্ষু সৃষ্টি হয়। সুন্দ ও উপসুন্দ তিলোত্তমার রূপে মুগ্ধ হয়ে তাকে পাবার জন্য পরস্পর যুদ্ধ আরম্ভ করে। যুদ্ধে একে অন্যকে হত্যা করে। এভাবে তিলোত্তমার কারণে দুই ভাই মারা যায়।

উৎস: বাংলা শব্দের পৌরাণিক উৎস, ড. মোহাম্মদ আমীন, পুথিনিলয়, বাংলাবাজার, ঢাকা।

সাধারণ জ্ঞান সমগ্র/২

সাধারণ জ্ঞান সমগ্র/১

বাংলা বানান কোথায় কী লিখবেন এবং কেন লিখবেন/১

বাংলা বানান কোথায় কী লিখবেন এবং কেন লিখবেন

কীভাবে হলো দেশের নাম

বাংলা ভাষার মজা, ড. মোহাম্মদ আমীন, পাঞ্জেরী পাবিলিকেশন্স লি.।

error: Content is protected !!