দশ হাতের গল্প

SalMa Sara

দশ হাতের গল্প

লাইলীকে হাত করার জন্য নয়া মজনু বিদেশি হাতঘড়ি পরে লাইলীর বাড়ির সামনে হাজির। মজনুর হাতছানিতে লাইলী যখন

উত্তরণ

জানালার পাশে এল তখন মজনু তাকে একটি হাতচিঠি দিলো। লাইলীর বাবা দূর থেকে দেখে ভাবল এই বেটার হাতটান আছে। খবর দিলো পুলিশকে। তার আগেই একদফা হাত ওঠানো শেষ। মজনু কতবার হাতজোড় করলো। কিন্তু কে শুনে কার কথা! পুলিশের নিকট মজনুকে হাতবদল করা হলো। পুলিশ তাকে হাতকড়া দিয়ে নিয়ে গেল থানায়। হাত কচলানো ছাড়া মজনুর আর কিছুই করার রইলো না।

শব্দের অর্থ
হাত করা=বশে আনা
হাতঘড়ি =হাতের কব্জিতে ধারণ করা যায় এমন ঘড়ি
হাতছানি =হাত নেড়ে ইঙ্গিত প্রদান, আহ্বান
হাতচিঠি=প্রাপ্তিস্বীকারপত্র, রসিদ, খুব ছোটো চিঠি
হাতটান =অর্থাভাব, ছিঁচকে চুরির অভ্যাস
হাত ওঠানো =প্রহার করতে উদ্যত হওয়া
হাতজোড় করা=দুই করতল যুক্ত করে মিনতি বা নমস্কার
হাতবদল =অধিকার বদল, হস্তান্তর
হাতকড়া =আসামিকে আটকে রাখার উদ্দেশ্যে হাতে পরানোর তালাচাবিযুক্ত লোহার বলয় বিশেষ
হাত কচলানো=ক্রমাগত দুহাত রগড়ে অসহায়ত্ব প্রকাশ করা
উৎস: বাংলা বানানে শব্দের ফাঁক-ফোকর, ড. মোহাম্মদ আমীন।
———————

উৎস:  দশ হাতের গল্প, SalMa Sara, শুদ্ধ বানান চর্চা (শুবাচ)

SalMa Sara, শুবাচ লিংক

‘গোটা কাহিনি’, SalMa Sara, শুদ্ধ বানান চর্চা (শুবাচ)

SalMa Sara, ওয়েব লিংক
শুবাচ গ্রুপের লিংক: www.draminbd.com
তিনে দুয়ে দশ: শেষ পর্ব ও সমগ্র শুবাচ লিংক
error: Content is protected !!