ধর্ম: দেখুন কত ধর্ম আছে বাংলায়; ধর্মঘট: হরতাল; বদ্ধ বন্‌ধ বন্দ ও বন্ধ

ড. মোহাম্মদ আমীন
সংযোগ: https://draminbd.com/ধর্ম-দেখুন-কত-ধর্ম-আছে-বাং/
ধর্মঘট
সংস্কৃত ধর্ম ও  ঘট মিলে ধর্মঘট। যার আক্ষরিক বা শাব্দিক অর্থ ধর্মের ঘট। তবে প্রায়োগিক অর্থ ভিন্ন। সকলে ঐক্যবদ্ধভাবে কিছু করা বা করা হতে বিরত থাকার প্রতিজ্ঞা নিয়ে দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত কাজ বন্ধ রাখা অর্থে  ‘ধর্মঘট’ শব্দটি ব্যবহৃত হয়। যারা ধর্মঘটের পক্ষে থাকে, তাদের কাছে প্রতিজ্ঞার বিষয়টি ছিল ধর্ম রক্ষার ঘটের মতো।
বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধান মতে,  তৎসম ধর্মঘট (ধর্ম +ঘট) অর্থ (বিশেষ্যে)— দাবি আদায়ের জন্য শ্রমিকদের  ঐক্যবদ্ধ কর্মবিরতি, হরতাল; বৈশাখ মাসে পালনীয় ঘটদানের ব্রত। 
তবে ধর্মঘট শব্দের ব্যুৎপত্তির সঙ্গে বর্তমানে প্রচলিত অর্থের মিল নেই।  ‘ধর্মঘট’ শব্দের আদি অর্থ লৌকিক দেবতা ধর্ম ঠাকুরের উদ্দেশে নিবেদিত ঘট,  ধর্ম রক্ষার্থে ঘট।  বর্তমান ধর্মঘট, ধর্ম রক্ষার্থে নিবেদিত ঘট নয়,  পার্থিব দাবি আদায় ও তা আদায়ের প্রতিজ্ঞা রক্ষার্থে ঘট। ধর্ম ঠাকুরকে সাক্ষী রেখে প্রতিবছর বৈশাখ মাসে গঙ্গাজল পূর্ণ করে এ ঘট স্থাপন করে কোনো বিষয়ে সিদ্ধিলাভের জন্য প্রতিজ্ঞা করা হতো। ধর্ম ঠাকুরের নামে ঘটা স্থাপন করা হতো। তাই নাম ধর্মঘট। যারা এই ঘট স্থাপন করত, তাদের বলা হতো ধর্মঘটি। ধর্ম ঠাকুরের উপাসকদের বিশ্বাস, কোনো অধার্মিকের পক্ষে ধর্মঘট উত্তোলন বা ভঙ্গ করা সম্ভব নয়।  ধর্মঘট স্পর্শ করে প্রতিজ্ঞা ও সিদ্ধিলাভের জন্যই ধর্মঘট শব্দটি ক্রমান্বয়ে ধর্ম ছেড়ে পার্থিব দাবি আদায়ের দৃঢ়প্রতিজ্ঞ আন্দোলনে চলে আসে। 
মধ্যযুগের বাংলা কবিতায় ধার্মিক শব্দের প্রতিশব্দ হিসেবে ধর্মঘটি শব্দ প্রচলিত ছিল। তবে, আধুনিক বাংলা অভিধান মতে,  তৎসম ধর্মঘটি (ধর্মঘট+ই) অর্থ (বিশেষণে) ধর্মঘটকারী (ধর্মঘটি রিকশাচালক) এবং (বিশেষ্যে) যে ব্যক্তি দাবি আদায়ের জন্য ধর্মঘটে অংশ নেয়। 
অর্থাৎ এখন ধর্মঘট ও ধর্মঘটির সঙ্গে ধর্মের কোনো সম্পর্ক নেই। তাই  ধর্মঘটি বলতে ধার্মিক নির্দেশ করে না, ধর্মঘটে অংশগ্রহণকারীদের নির্দেশ করে।  যারা ধর্মঘট করে তারা নিজেদের দাবি ন্যায্য গণ্যে উদ্দেশ্য হাসিল না হওয়া পর্যন্ত তা চালিয়ে যাবার  দৃঢ় প্রতিজ্ঞায় আবদ্ধ হয়ে আন্দোলন করে। অন্যদিকে প্রতিপক্ষরা ধর্মঘটিদের দাবি ও কর্মকে অন্যায্য আর সন্ত্রাসী আখ্যায়িত করে প্রতিহত করার দৃঢ় প্রয়াস নেয়। 

সবধর্মে ধর্ম আছে ধর্মঘটে নেই

দেখুন কত ধর্ম—
ধর্মকন্যা, ধর্মকর্ম, ধর্মকাম, ধর্মকেতু, ধর্মগ্রন্থ, ধর্মগ্রহণ, ধর্মচক্র, ধর্ম,

বাম থেকে হায়াৎ মামুদ, ড. মোহাম্মদ আমীন ও অধ্যাপক আবুল কাসেম ফজলুল হক।

ধর্মচক্র, ধর্মচর্চা, ধর্মচারী, ধর্মচিন্তা, ধর্মচ্যুত, ধর্মজ, ধর্মজায়া, ধর্মজীবন, ধর্মজ্ঞ, ধর্মঠাকুর, ধর্মত, ধর্মতত্ত্ব, ধর্মত্যাগ, ধর্মত্যাগী, ধর্মদ্বেষী, ধর্মদ্রোহ, ধর্মদ্রোহী, ধর্মধ্বজী, ধর্মনাশ, ধর্মনিরপেক্ষ, ধর্মনিষ্ঠা, ধর্মনীতি, ধর্মপত্নী, ধর্মপথ, ধর্মপরায়ণ, ধর্মপাল, ধর্মপিতা, ধর্মপিপাসা, ধর্মপুত্র, ধর্মপুস্তক,ধর্মপ্রচারক, ধর্মপ্রবক্ত, ধর্মপ্রবণ, ধর্মপ্রাণ, ধর্মবিদ, ধর্মবিপ্লব, ধর্মব্যবসায়ী, ধর্মভয়, ধর্মভাই, ধর্মভীরু, ধর্মমন্দির, ধর্মমাতা, ধর্মযাজক, ধর্মযুদ্ধ, ধর্মরক্ষা, ধর্মরাজ, ধর্মলক্ষণ, ধর্মলোপ, ধর্মশালা, ধর্মশাসন, ধর্মশাস্ত্র, ধর্মশিক্ষা, ধর্মসংহিতা, ধর্মসভা, ধর্মসম্প্রদায়, ধর্মসম্মত, ধর্মসাক্ষী, ধর্মস্থান, ধর্মহানি, ধর্মহীন এবং — — —

সব ধর্মে এমনকি ধর্মোন্মাদ, ধর্মনাশ ও ধর্মহীন শব্দেও ধর্ম আছে। ধর্মের সঙ্গে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ সম্পর্ক আছে। কিন্তু ধর্মঘট শব্দে কোনো ধর্ম নেই। অথচ এখানে ঘট আছে। ধর্ম নিয়েই শুরু হয়েছিল এর যাত্রা। এখন ধর্মঘটের আচরণ ধর্মহীন।

বদ্ধ বন্‌ধ বন্দ ও বন্ধ

বদ্ধ: সংস্কৃত বদ্ধ (√বধ্‌+ত) অর্থ— (বিশেষণে) বাঁধা, আবদ্ধ (নিয়মবদ্ধ, জলাবদ্ধ)। গ্রথিত (বেণিবদ্ধ কবরী)। রুদ্ধ (বদ্ধপথ, বদ্ধদরজা)। গতিহীন (বদ্ধস্রোত, বদ্ধজীবন)। বন্দি, আটক (পিঞ্জরাবদ্ধ পাখি)। যুক্ত (বদ্ধাঞ্জলি)। স্থির(বদ্ধদৃষ্টি)। সজ্জিত, সুবিন্যস্ত (শ্রেণিবদ্ধ পুস্তক)। দৃঢ় ও অনমনীয় (বদ্ধমূল বিশ্বাস)। নিরেট, সম্পুর্ণ, পুরেপুরি (বদ্ধ উন্মাদ)। নজরুল লিখেছেন: থাকব নাকো বদ্ধ ঘরে- – -।
বন্‌ধ: বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধানমতে, সংস্কৃত বন্ধ থেকে উদ্ভূত বন্‌ধ অর্থ— (বিশেষ্যে) বিরোধী রাজনৈতিক দলের প্রতিবাদ শক্তি প্রদর্শন বা শ্রমিক সংগঠনের দাবি আদায়ের জন্য আহুত ধর্মঘট, হরতাল। বিরোধী দলীয় নেতৃবৃন্দ জনগণকে আগামী তিন দিন বন্‌ধ পালনের আহ্বান করেছেন। ভারতে আজ বন্‌ধ।
বন্দ: ফারসি বন্দ (উচ্চারণ বন্দো) অর্থ— দৈর্ঘ্যপ্রস্থের সমষ্টির পরিমাণ। অংশ। অবরোধ।
বন্ধ: সংস্কৃত (√বন্ধ+অ) অর্থ— বাঁধার উপকরণ, বন্ধনী (কোমরবন্ধ, বাজুবন্ধ)। বন্ধন, বাঁধন (মুক্ত করো হে বন্ধ, রবীন্দ্রনাথ)। রোধ (দমবন্ধ, নিঃশ্বাস বন্ধ)। গ্রন্থন, সংযোগ (সেতুবন্ধ)। আবেষ্টন (ভুজবন্ধ)। ছুটি, অবকাশ (আজ আমাদের ছুটি ও ভাই, রবীন্দ্রনাথ)। বিশেষণে বন্ধ অর্থ— রুদ্ধ (বদ্ধ কপাট)। আড়ি (কথা বন্ধ)। স্থগিত আছে এমন ( নিয়োগ বন্ধ, চলাচল বন্ধ)। অচল, নিশ্চল, নষ্ট (বন্ধ ঘড়ি)। বাধাপ্রাপ্ত । আটক, বন্দি (বন্ধ শিশু)। বন্ধ করো সব অনৈতিক কাজকর্ম।
বাকি অংশ এবং অন্যান্য প্রশ্নের উত্তর দেখার জন্য নিচের লিংক: https://draminbd.com/ধর্ম-দেখুন-কত-ধর্ম-আছে-বাং/
error: Content is protected !!