ধুর

Jim Rihan

মেজাজের উঠানামা হলে ধুর শালা, ধুর ছাই ইত্যাদি শব্দগুলোর ব্যবহার আমরা করে থাকি। আমার এক স্নেহজ ছোট ভাই মেজাজ খারাপ হলেই – ধুর ভাই ‘ বলে মেজাজ প্রকাশ করে। আমার বেশ মজাই লাগে। ” ধুর ” বলতে আসলে কী বোঝায়?
ইংরেজীতে Shouting Word হিসেবে Shit শব্দের বহুল ব্যবহার হয়ে থাকে। ধুর শব্দের প্রয়োগ অনেকটা ইংরেজি Shit শব্দের অর্থদ্যোতকের মতো। ধুর শব্দটি আমাদের বিক্ষিপ্ত মনোভাবের বিরক্তি প্রকাশ করে।

ধুর শব্দের বাংলা অর্থ হলো হালচাষের গরুর জোয়াল। ঘানি হলেও মন্দ হতো না। গরুর জন্য জোয়াল আর ঘানি টানা দুটোই সমান। দুটোই ভারি বা বোঝা। ঘাড়ে বা কাঁধে বোঝা চাপলেই মানুষ ভারত্বের বোঝাটা টের পাই। অবলা প্রাণী বলে হালচাষের পশু কিছুই বলতে পারে না। অথচ, আমাদের মানুষের মনে বিরক্তিকর কোনও কিছুর বোঝা উদ্রেক হলেই হলো। আমরা মেজাজকে হালকা করতে ধুর শালা, ধুর ছাই কত কী বলে থাকি।
অভিধানের ধুর বা জোয়াল শব্দটির একালের প্রায়োগিক দিক বুঝতে হলে ধুর দিয়ে শুরু ধুরন্ধর শব্দটির অর্থ বিবেচনা করা যেতে পারে।
ধুরন্ধর শব্দটি একালে প্রতারক, বাটপার ইত্যাদি নেতিবাচক অর্থে ব্যবহৃত হয়। শুরুতে ধুরন্ধর শব্দটি ইতিবাচক অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে। পশুর পক্ষে ধুর বা ভার বহনের ক্ষমতা থেকেই ধুরন্ধর শব্দটির সৃষ্টি। সম্প্রসারিত অর্থে যে সক্ষমতার সাথে ভার বইতে পারে এমন কর্মদক্ষ মানুষ বোঝাতে ধুরন্ধর শব্দটির উল্লেখ ছিল।

বর্তমানে ধুরন্ধর শব্দটির অর্থ সংকোচন যেমন ঘটেছে তেমনি ধুর শব্দেরও অর্থ সংকুচিত হয়েছে। কাউকে অপদার্থ বোঝাতে আমরা হরহামেশাই বলছি – শালা একটা ধুর।’ এমনকী বিরক্তিকর কোনো কিছু প্রকাশের আগে আমরা ধুর শব্দটি জুড়ে দিচ্ছি। অনেকের ব্যক্তিক ভাষায় ধুর শব্দটি এখন মুদ্রা দোষেও পরিণত হয়েছে।
সে যাই – হোক। ধুর ছোট একটি শব্দ। অথচ এত কথা লিখে ফেললাম। পাঠকমন বিক্ষুব্ধ হলে আমাকে ধুর বলতেই পারেন। বিশ্বাস করুন আমি একটুও রাগ করবো না।

সূত্র: ধুর, Jim Raihan, শুদ্ধ বানান চর্চা (শুবাচ)

error: Content is protected !!