নাগর বোমা সলিল সলীল

ড. মোহাম্মদ আমীন

নাগর বোমা সলিল সলীল ক্ষুধামান্দ্য

নাগর: নগর থেকে নাগর

অবৈধ প্রেমিকা, গোপন প্রণয়ী, প্রগলভ প্রণয়ী প্রভৃতি অর্থে নাগর শব্দটির ব্যবহার দেখা যায়। নগর থেকে নাগর। এককালে ‘নাগর’ বলতে বোঝাত নগরবাসী বা নাগরিক। এটাই ছিল শব্দটির মূল অর্থ। তাছাড়া বিদগ্ধ, শান্তশিষ্ট, সভ্য, ভদ্র, রসিক প্রভৃতি অর্থে ‘নাগর’ শব্দটির বহুল প্রচলন ছিল। এখন ‘নাগর’ শব্দটি এসব অর্থ হারিয়ে সত্যিকার অর্থে নিঃস্ব এবং নেতিবাচক হয়ে পড়েছে। মধ্যযুগে এসে নাগর শব্দটি তার আদি মোহনীয় অর্থ হারিয়ে নায়ক, প্রিয়া, বঁধু প্রভৃতি অর্থ ধারণ করতে থাকে। পরবর্তীকালে শব্দটির আরও ব্যাপক অর্থাবনতি ঘটতে থাকে এবং এরূপ ঘটতে ঘটতে অবৈধ প্রেমিকা, গোপন প্রণয়ী, প্রগলভ প্রণয়ী প্রভৃতি অর্থে স্থিতি পায়।
নাগর বা শহরবাসীদের গ্রহণযোগ্যতা ছিল সর্বত্র অধিক। কোথাও গেলে তাদের নাগর বা শহরবাসী হিসেবে যথেষ্ট খাতির-যত্ন করা হতো। তাই বিদগ্ধ, শান্তশিষ্ট, সভ্য, ভদ্র, রসিক প্রভৃতি অর্থে নগরাগত লোকদের সম্মান করে নাগর বলা হতো। পরবর্তীকালে এর অর্থ পরিবর্তন হয়ে গেল কেন? এর কারণ রয়েছে। সেকালে নগরবাসীরা অবৈধ প্রেমিকা বা গোপন প্রণয়ী হিসেবে গ্রাম থেকে গরিব ঘরের নিরীহ মেয়েদের নগরে নিয়ে আসত। নগরে থেকে গ্রামে গেলে তাদের ডাকা হতো নগরাগত বা নাগর। এভাবে এককালের নাগর তথা শান্তশিষ্ট, সভ্য, ভদ্র ও রসিক প্রমুখ আধুনিক যুগে এসে নাগর তথা অবৈধ প্রেমিকা হয়ে যায়।

বোমা

বোমা হলো বস্তা থেকে দ্রব্যের নমুনা বের করার নিমিত্ত ব্যবহৃত একটি সরল যন্ত্রবিশেষ। ধান-চাল ও খাদ্যশস্যের গুদাম এবং দোকানে এই সরল যন্ত্রটির ব্যবহার দেখা যায়। এ বোমা দিয়ে খাদ্যশস্য-বোঝাই বস্তা হতে খাদ্যশস্য বা মালামালের কিছু নমুনা বের করে যাচাই করা হয়। বোমা দিয়ে বস্তা না খুলে বস্তা থেকে পণ্যদ্রব্যের নমুনা বের করা অতিপ্রাচীন কিন্তু খুব সহজ একটি পদ্ধতি। এ বোমার অনুষঙ্গে অনেকে বোমা মেরে আড়তের বস্তার মতো মানুষের শরীর-মন না খুলে কথা বের করার চেষ্টা করে।কিন্তু, মানুষ তো আর বস্তা নয়; তাই সবসময় এমনটি সম্ভব হয় না। যখন সম্ভব হয় না তখন বলা হয় ‘পেটে বোমা মেরেও তার পেট থেকে কিছু বের করা গেল না’। অবশ্য বের হয়ে গেলে তো আর বোমার প্রয়োজন হয় না বলে পেটে বোমা মেরে কথা বের করা বাগ্‌ভঙ্গিটিও সুপ্ত থেকে যায়।
সহজ-সরলভাবে পণ্য নমুনা যাচাইয়ের জন্য ব্যবহৃত বোমা ছাড়াও আর একপ্রকার বোমা, যা ফাটিয়ে মানুষ মারা হয়, যুদ্ধে ব্যবহার করা হয়। এটি একটি মারাত্মক অস্ত্র। এ বোমা অনেক প্রকার। আকাশ হতে ছোঁড়া হতে পারে, হাত দিয়ে ছোঁড়া হতে পারে বা মাটির নিচে পুঁতেও রাখা হতে পারে। যেভাবেই ব্যবহার করা হোক না কেন, এ বোমার কাজ হচ্ছে জানমালের অনিষ্টসাধন। এ বোমা কিন্তু পর্তুগিজ ‘বোম্বারডেরিয়ান’ শব্দ হতে এসেছে।

সলিল বনাম সলীল

সলিল: সংস্কৃত সলিল (√সল্+ইল) অর্থ (বিশেষ্য) পানি, জল, বারি।
“সলিলে রোদের কণা, ঝকঝকে বিল;
মাছ খোঁজে উড়ে উড়ে শ্যেনচোখা চিল।”
সলীল: সংস্কৃত সলীল (সহ+লীলা) অর্থ (বিশেষণে) লীলা-সহ, লীলাযুক্ত, সুন্দর ভঙ্গিযুক্ত, সাবলীল, স্বচ্ছন্দ।
“সলিলে ঢেউ নাচে ঝড়ো-বাতাসে,
সলীল প্রকৃতি যেন অবিরাম হাসে।”
 
error: Content is protected !!