নাপ্পি তৈরি

ড. মোহাম্মদ আমীনৎ

নাপ্পি তৈরি

নাপ্পি

নাপ্পি বার্মিজ শব্দ। এর অর্থ— (বিশেষ্যে) খোসা ছড়ানো চিংড়ি মাছের সঙ্গে নানারকম মসলা সহযোগে তৈরি তীব্র গন্ধযুক্ত চাটনিজাতীয় খাদ্যবস্তু যা মায়ানমার ও বাংলাদেশের পাহাড়ি এলাকায় বিশেষভাবে সমাদৃত। অনেকে লিখেন ঙাপ্পি।
বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভধানমতে, একমাত্র নাপ্পি বানানই প্রমিত।এই অভিধানে ঙ দিয়ে শুরু এমন কোনো শব্দ নেই। প্রসঙ্গত, বাংলায় ঙ ঞ য় ড় ঢ় ৎ ং এবং ঃ দিয়ে শুরু হওয়া কোনো শব্দ নেই।
নজরুল (পুতুলের বিয়ে) লিখেছেন— এক ডজন পচা ডিম আর খানিকটা নাপ্পি যোগাড় করে আন, বুঝলি? ভোজ হবে।
সুকুমার রায় তাঁর ‘খাই খাই’ কবিতায় নাপ্পি বানান ঙ দিয়ে লিখেছেন—
“খাই খাই কর কেন, এস বস আহারে—
খাওয়াব আজব খাওয়া, ভোজ কয় যাহারে।
—–
ব্যাঙ খায় ফরাসিরা (খেতে নয় মন্দ),
বার্মার ‘ঙাপ্পিতে’ বাপরে কী গন্ধ!
মান্দ্রাজি ঝাল খেলে জ্বলে যায় কন্ঠ,
জাপানেতে খায় নাকি ফড়িঙের ঘন্ট!”
তৈরি তৈরী
তৈরী বানানের কোনো শব্দ বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধানে নেই। থাকা উচিতও নয়, প্রয়োজনও নেই। এটি বিদেশি শব্দ। বিদেশি শব্দে ঈ-কার হয় না। অধিকন্তু, তৈরি শব্দটি একই সঙ্গে ক্রিয়াবিশেষ্য ও বিশেষণ হিসেবে কাজ করে। যেমন: মা জাপানের তৈরি মেশিনে আমাদের জন্য নাস্তা তৈরি করছেন। প্রসঙ্গত, তৈরি আরবি এবং তৈয়ারি ফারসি উৎসের শব্দ।
error: Content is protected !!