পত্নীতলা উপজেলার নামকরণ: মলদ্বীপ বনাম মালদ্বীপ: মহাসাগর, সাগর, উপসাগর ও হ্রদ

ড. মোহাম্মদ আমীন

পত্নীতলা উপজেলার নামকরণ

সংযোগ: https://draminbd.com/পত্নীতলা-উপজেলার-নামকরণ/

বাংলাদেশে পত্নীতলা নামে একটা জায়গা আছে। এই নাম কীভাবে এলো? এটার অর্থই বা কী?

পত্নীতলা নওগাঁ জেলার একটি উপজেলা। ১৭৯৩ খ্রিষ্টাব্দে পত্নীতলা, বৃহত্তর দিনাজপুর জেলার থানা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়। পত্নীতলা নামকরণের তিনটি বহুল প্রচলিত মতবাদ বা জনশ্রুতি রয়েছে। যেমন:

  • পাঠান আমলে বর্তমান পত্নীতলা নামে পরিচিত এলাকাটি জনেকপাঠান জমিদারের আওতাধীন ছিল। জমিদারের কর্মচারীবৃন্দ বর্তমান পত্নীতলা নামে পরিচিত বাজারে অবস্থিত কাচারি থেকে জমি পত্তনি দিতেন এবং পত্তনি তুলতেন। এই পত্তনি তোলা থেকে এলাকাটির নাম হয় পত্তনিতোলা। যার অপভ্রংশ পত্নীতলা।
  • অনেকে মনে করেন, পাটনিটোলা থেকে পত্নীতলা। পাঠান আমলে আত্রাই নদীতে খেয়া পারাপারের জন্য বিহারের দারভাঙা থেকে পাটনি সম্প্রদায়ের কিছু লোক আনা হয়। তাদের বসবাসের জন্য বর্তমান পত্নীতলা বাজারে পাটনিটোলা নামের একটি টোল বা মহল স্থাপন করা হয়। ফলে এলাকাটির নাম হয়ে যায় পাটনিটোলা। যার অপভ্রংশ পত্নীতলা। প্রসঙ্গত, পাটনি সম্প্রদায়ের কিছু লোক এখনও আত্রাই নদীতে খেয়া পারাপারের কাজে নিয়োজিত।
  • অনেকে বলেন, কংশ নারায়ণ নামের জনেক প্রভাবশালী হিন্দু জমিদার তাহির রাজবংশ নিয়োজিত এক মুসলিম জমিদারের নিকট থেকে একটি পরগনা জোরপূর্বক দখল করে সেখানে একটি কালীমন্দির পত্তন করে। অন্যান্য হিন্দু জমিদারগণও এ মন্দিরের নামে জমি পত্তন দিত। পত্তনি তোলা থেকে মন্দিরটি পরিচালিত হতো। ফলে কালীমন্দির এলাকাটির নাম হয়ে যায় পত্তনিতোলা। যার অপভ্রংশ পত্নীতলা। অনেকে ঐতিহাসিকভাবে এটি নিছক প্রবাদ মনে করেন।
সূত্র: বাংলাদেশের জেলা উপজেলা ও নদনদীর নামকরণের ইতিহাস, ড. মোহাম্মদ আমীন।

মলদ্বীপ না কি মালদ্বীপ

‘মালদ্বীপ’ না কি ‘মলদ্বীপ’— কোন বানানের শব্দটি সঠিক? যুক্তি-সহ উত্তর কাম্য।

মলদ্বীপ বা মালদ্বীপ ভারত মহাসাগরে শ্রীলঙ্কা হতে প্রায় ৪০০ মাইল দক্ষিণ পশ্চিমে এক হাজারের অধিক প্রবাল দ্বীপ নিয়ে গঠিত ১২০ বর্গমাইল আয়তনের একটি খুদে দ্বীপ রাষ্ট্র। ধিবেহি এই রাষ্ট্রের সরকারি ভাষা।
মলদ্বীপ বা মালদ্বীপের ইংরেজি নাম Maldives. উচ্চারণ মলদিভ্স। তবে বাংলাদেশে লেখা হয় মালদ্বীপ। পশ্চিমবঙ্গে লেখা হয় মলদ্বীপ
বাংলা বানান (মালদ্বীপ) অনুসারে উচ্চারণ করলে প্রকৃত উচ্চারণের কাছাকাছি যায় না। মলদ্বীপ কথাটি মূল উচ্চারণের অনেকটা কাছাকাছি হয়। কিন্তু বাংলাদেশে সর্বপর্যায়ে বহুল প্রচলিত বানান— মালদ্বীপ।

নামকরণ: মহল থেকে মল। মহলদ্বীপ থেকে মলদ্বীপ। এখানে মল মানে মহল আর মহল মানে প্রসাদ। আরব পর্যটক ইবনে বতুতা বর্তমানে Maldives নামে পরিচিত দ্বীপ রাষ্ট্রটিকে বলেছেন, ‘মহল দ্বীপ’ বা রাজপ্রাসাদের দ্বীপ। Maldives-এর রাষ্ট্রীয় প্রতীকে এখনো ইবনে বতুতার ব্যাখ্যার পরিপ্রেক্ষিতে মহল/মল বা রাজপ্রাসাদের ছবি ব্যবহার করা হয়। এছাড়াও নামকরণের একাধিক প্রবাদ প্রচলিত। তবে সরকারিভাবে এটিই গৃহীত।

মহাসাগর সাগর উপসাগর ও হ্রদ

মহাসাগর: সীমারেখা নির্ণয় প্রায় দুঃসাধ্য এমন সুবিশাল এলাকা নিয়ে বিস্তৃত জলরাশিকে মহাসাগর বলে। যেমন: প্রশান্ত মহাসাগর। মহাসাগরের আয়তন মূলত ভৌগলকি অনুমানভিত্তিক বিষয়।
সাগর: তুলনামূলকভাবে মহাসাগরের চেয়ে এলাকা নিয়ে বিস্তৃত জলরাশিকে সাগর বলে । যেমন: বঙ্গোপসাগর। সাগরের আয়তন মূলত ভৌগলকি অনুমানভিত্তিক বিষয়।
উপসাগর: যে সাগরে তিনদিক স্থল সীমানা দ্বারা পরিবেষ্টিত তাকে উপসাগর বলে।
হ্রদ: সাগরের চেয়ে ছোট বিস্তৃত জলরাশি।যার চারদিকে স্থলভাগ দ্বারা পরিবেষ্টিত থাকে তাকে হ্রদ বলে। যেমন: বৈকাল উপসাগর।
শুবাচ গ্রুপের সংযোগ: www.draminbd.com
শুবাচ যযাতি/পোস্ট সংযোগ: http://subachbd.com/
আমি শুবাচ থেকে বলছি
— — — — — — — — √— — — — — — — — —
প্রতিদিন খসড়া
আমাদের টেপাভুল: অনবধানতায়
error: Content is protected !!