পাটোয়ারি, মৌরসি পাট্টা; জমিজমা, পাট্টা ও চিট্‌ঠা, পাট্টাদার, পাট্টাসেলামি, পট্টক, লাল দোপাট্টা, গালপাট্টা, কানপাট্টা, মৌরসি মুকরারি

প্রজা বা রায়ত থেকে খাজনা প্রাপ্তির বিষয়ে জমিদার সন্তুষ্ট হলে  বাপদাদার আমল থেকে  চষে আসা কিছু  জমির বিষয়ে  সেই রায়তের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট  জমি নিয়ে জমিদারের একটা চিরস্থায়ী চুক্তি সম্পাদন  হতো। এই চুক্তিকে বলা হতো  মৌরসি পাট্টা। চুক্তিতে বলা থাকত—  ‍চুক্তি সম্পাদনের পর থেকে রায়ত বংশানুক্রমে এই জমি ভোগ করতে পারবে। সরকার কখনো তার কাছ থেকে চুক্তিবর্ণিত জমি ছাড়িয়ে নেবে না।” পাট্টাতে খাজনার পরিমাণ নির্দিষ্ট করে দিয়ে লেখা হতো— বর্ণিত এই খাজনার পরিমাণ বাড়বেও না কমবেও না। খাজনার এই পরিমাণকে বলা হতো মৌরসি মুকরারিএই চুক্তির ফলে মৌরস থেকে ঔরস এবং তার ওয়ারিশান পর্যন্ত পর্যায়ক্রমে জমি ভোগের অধিকার জন্মাত।  এটি প্রায় মালিকানা পাবার মতো। মৌরসি পাট্টা যে পেয়েছে, তাকে ওই জমি থেকে উৎখাত করা যেত না। এই  অধিকার থেকে জন্ম নিয়েছে: বাংলা বাগ্‌ধারা— মৌরসি পাট্টা নিয়ে গেড়ে বসা।
প্রয়োগ: ১৮৩৯ খ্রিষ্টাব্দে সমাচার দর্পণে লেখা হয়েছে— “তাহাতে মৌরুসী পাট্টাদারেরই স্বত্ব।” ১৮৬৬ খ্রিষ্টাব্দে দীনবন্ধু মিত্র লিখেছেন— “সাড়ে তিন হাত ভূমির মৌরসি পাট্টা লওয়া কর্তব্য।” শ্যামাসঙ্গীতে আছে — “বিষম পাগল জটে ব্যাটা, শ্মশান ত তার মৌরস পাটা।”
জমিজমা
জমিজমা মিশ্র উৎসের শব্দ। বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধানমতে, ফারসি উৎসের জমিন এবং আরবি উৎসের জমা মিলে উদ্ভূত জমিজমা অর্থ—  (বিশেষ্যে)   জমিজিরাত, ভূসম্পত্তি।  এখন দেখা যাক, ভূসম্পত্তি অর্থ  কীভাবে এবং কেন জমিজিরাত হয়ে গেল। জমিন অর্থ— জমি ।  আলোচ্য শব্দসাপেক্ষে জমা অর্থ— খাজনা, রাজস্ব; অধিকারে রাখা কোনো কিছু, খাজনার আওতাভুক্ত জমি প্রভৃতি। সুতরাং,  জমিজমা কথার আক্ষরিক অর্থ—  খাজনা বা রাজস্বের বিনিময়ে সাময়িকভাবে ভোগের অধিকারপ্রাপ্ত  জমি। এর অর্থ জমিদারের মালিকানাধীন জমি। যা জমিদার নির্দিষ্ট শর্তে কিছুদিনের জন্য রায়তের কাছে জমা রাখে বা খাজনার বিনিময়ে অধিকারে দেওয়া জমি। এককথায়, খাজনার বিনিময়ে অস্থায়ীভাবে ভোগের অধিকারপ্রাপ্ত জমি। জমিদার তার প্রজাকে কখনও কোনও জমির মালিকানা দিত না। শুধু চাষের জন্য লিজ দিত বা অস্থায়ীভাবে কিছু জমি, জমা দিত। একে বলে জমি জমা নেওয়া। এখান থেকে জমিজমা কথাটির উদ্ভব। 
পাট্টা ও চিট্‌ঠা

বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধানমতে, সংস্কৃত পট্টক থেকে উদ্ভূত খাঁটি বাংলা শব্দ পাট্টা অর্থ— (বিশেষ্যে) ভূমির ক্রয়বিক্রয় বা পত্তনিসংক্রান্ত দলিল; ভাঁজ (দোপাট্টা); ঘন, স্তর, চাপ (গালপাট্টা), পাট্টা।  যে ব্যক্তি চাষের জমি পাট্টা গ্রহণ করে তাকে বলা হয় পাট্টাদার। বাংলা পাট্টা ও ফারসি দার মিলে পাট্টাদার শব্দের উদ্ভব। পাটোয়ারি হিন্দি উৎসের বাংলা শব্দ। এর অর্থ— (বিশেষ্যে) খাজনা আদায়কারী কর্মচারী, খাজনা আদায় করা যার পেশা, পদবিশেষ; (বিশেষণে) পাটোয়ারি  অর্থ— লাভলোকসান সম্পর্কে অতিশয় হিসাবি মনোভাবসম্পন্ন। পাট্টাপ্রাপ্ত রায়তকে বলা হতো পাট্টাদার। পাট্টা পাওয়ার জন্য  জমিদারকে একসঙ্গে কিছু টাকা  দিতে হতো। সেটা পাট্টাসেলামি। যে কর্মচারী পাট্টা দেওয়ার কাজ করত তাকে  বলা হতো পাট্টাবার বা পাটাওয়ার। ‘পাটোয়ারি বুদ্ধি’ এই পাটাওয়ারের। পাট্টার নামজারি করাকে বলে পাট্টানামা।

লাল পাট্টা
ফিতের আরেক নাম  পাট্টা। উত্তর ভারতে  পাট্টা শব্দটি ফিতে অর্থে বহুল প্রচলিত। ‘উসকে গলে মে পট্টা বাঁধকে লে আও’। যা পাট পাট বা টান টান করে রাখা যায় তাই পাট্টা। দুবার পাট করলে দোপাট্টা। মেয়েরা দোপাট্টা পরে। লাল দোপাট্টা অঙ্গে আমার থাকতে চাই না রে – – -। মাটিতে টান টান বা পাট পাট করে পাট, আঁশ, সুতো প্রভৃতি শুকোতে দেওয়া হয় । মাথায় গামছার ফেট্টি, কুকুরের গলার শেকল, মেয়েদের চুল বাঁধার ফিতে, জ্বরে মাথা ভেজানোর কাপড়— সবই পাট্টা।  আরও আছে — গালপাট্টা, কানপাট্টা। লাল ফিতেকে বলা হয় লালপাট্টা।  দাপ্তরিক কাগজ লাল ফিতে বা লালপাট্টার ফাঁসে বাঁধা থাকত। এই ফিতেটা পাট্টা নামে পরিচিত ছিল। ইংরেজিতে যাকে বলা হয়  রেড টেপ। যা থেকে জন্ম নিয়েছে “লাল ফিতার দৌরাত্ম্য’। অবশ্য এখন ফাইল বাঁধা থাকে সাদা পাট্টায়। রং পরিবর্তন হলেও দৌরাত্ম্য বহাল তবিয়তে আছে।
 পাট্টা দলিল
জমিদারের দপ্তর থেকে রায়তকে  জমির স্বত্ব বা ভোগ দখলের বিপরীতে প্রদত্ত খাজনা বা দেনা-পাওনার প্রাথমিক প্রমাণস্বরূপ  যে খসড়া  পরচা বা  ছিট কাগজ দেওয়া হতো  প্রজারা তাকে বলত— কাচ্চা চিট্‌ঠা বা কাঁচা ছিট কাগজ। এটি ছিল খসড়া। এর গুরুত্ব খুব বেশি ছিল না। জমিদার সহজে এটাকে বাতিল করে দিতে পারত। বন্দোবস্তের (সেটেলমন্ট)  পর, প্রজা তার স্বত্ব অধিকার দায়, জমিদার-রায়ত সম্পর্ক প্রভৃতি বিবরণসংবলিত  সিল মোহর লাগানো যে দলিলে পেত সেটি ছিল পাকা দলিল। এই দলিলটা ফিতে বা পাট্টা দিয়ে বেঁধে রায়তকে দেয়া হতো। পাকা দলিলটা পাট্টা দিয়ে বেঁধে দেওয়া হতো বলে তার নাম হয়ে যায়  পাট্টা দলিল বা শুধুই পাট্টা।
শুবাচ গ্রুপের সংযোগ: www.draminbd.com
শুবাচ যযাতি/পোস্ট সংযোগ: http://subachbd.com/
আমি শুবাচ থেকে বলছি
— — — — — — — — √— — — — — — — — —
প্রতিদিন খসড়া
আমাদের টেপাভুল: অনবধানতায়
— — — — — — — — √— — — — — — — — —
Spelling and Pronunciation
HTTPS://DRAMINBD.COM/ENGLISH-PRONUNCIATION-AND-SPELLING-RULES-ইংরেজি-উচ্চারণ-ও-বান/
বাঙালির খাবারদাবার: https://draminbd.com/বাঙালির-খাবারদাবার/
error: Content is protected !!