পায়ে ঠেলা পায়ে পড়া পায়ে পায়ে, রিসালদার, সুমনা, গেঁতো, মুখিকচু, বেহালা, কেশকর্ম, শোনাকথা, জনশ্রুতি, দর্দুর, পূগফল, পাষক পাশুলি

ড. মোহাম্মদ আমীন

পায়ে ঠেলা পায়ে পড়া পায়ে পায়ে, রিসালদার, সুমনা, গেঁতো, মুখিকচু, বেহালা, কেশকর্ম, শোনাকথা, জনশ্রুতি, দর্দুর, পূগফল, পাষক পাশুলি

সংযোগ:https://draminbd.com/পায়ে-ঠেলা-পায়ে-পড়া-পায়ে-পা/ 

পায়ে ঠেলা, পায়ে পড়া, পায়ে পায়ে

পায়ে ঠেলা: উপেক্ষা করা। ব্যবহার: ক্রিয়াবিশেষণ। প্রয়োগ: কাউকে পায়ে ঠেলা উচিত নয়।
পায়ে পড়া: কাতরভাবে অনুরোধ করা। ব্যবহার: ক্রিয়াবিশেষণ। প্রয়োগ: বারবার পায়ে পড়া সত্ত্বেও তার আবেদন খারিজ করে দেওয়া হলো।
পায়ে পায়ে: পদে-পদে, প্রতিকাজে (পায়ে পায়ে বাধা দিয়ো না); ধীরপদে (পায়ে পায়ে লক্ষ্যস্থলের দিকে অগ্রসর হও)। ব্যবহার: ক্রিয়াবিশেষণ।

রিসালদার

আরবি ‘রিসাল’ ও ফারসি ‘দার’ শব্দের সমন্বয়ে ‘রিসালদার’। অশ্বারোহী সৈন্যদলের অধিনায়ককে রিসালদার বলা হয়। শব্দটি বাক্যে সাধারণত বিশেষ্য হিসেবে ব্যবহৃত হয়। উচ্চারণ: রিসাল্‌দার

বিশেষ্যে ‘সুমনা’ শব্দের অর্থ 

সুমনা (সু+মনস্)’ শব্দের অর্থ (বিশেষ্যে) পণ্ডিত ব্যক্তি। বাক্যে এটি পুংবাচক পদ হিসেবে ব্যবহৃত হয়। বিশেষণে ‘সুমনা’ অর্থ— জ্ঞানবান, মহাত্মা, মহানুভব, সদাশয়।
সূত্র: ড. মোহাম্মদ আমীন, কোথায় কী লিখবেন: বাংলা বানান প্রয়োগ ও অপপ্রয়োগ, পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স লি.
দিন দীন
দিন যে আমার আজকে হলো দীন,
একটু বসো কাছে আমার অনেক কথা আছে,
তোমার সময় থেকে কিছু সময় দিও আমায় ঋণ।
— — — —
দিন: উচ্চারণ ‘দিন্‌’ (সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত সময়)
দীন: উচ্চারণ ‘দিন্’ (দরিদ্র, নিঃস্ব)
দিন শব্দের আরেকটি অর্থ হলো: ধর্ম। যেমন: ইসলাম তার দিন

গেঁতো

 অলস কথার একটি উপহাসমূলক প্রতিশব্দ বলতে পারেন গেঁতো। এটি দেশি শব্দ। অর্থ (বিশেষণে) অলস। এরূপ প্রতিশব্দ আরও থাকতে পারে।
গৃহায়ন না কি গৃহায়ণ
সঠিক শব্দ গৃহায়ন। এটি বাংলা/দেশি শব্দ। এর সমার্থক আবাসন।

মুখিকচু

বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধান অনুযায়ী এর প্রমিত নাম মুখিকচু, ছড়াকচু, মুখি। মুখিকচু অঞ্চলভেদে গুঁড়াকচু, কুড়িকচু, ছড়াকচু, দুলিকচু, বিন্নিকচু নামেও পরিচিত।

 

বেহালা

বেহালা পোর্তুগিজ উৎসের শব্দ। ইংরেজিতে যাকে বলা হয়: violin. এটি (বিশেষ্যে) ছড় দিয়ে বাজানো হয় এমন চার তারের তৈরি বাদ্যযন্ত্রবিশেষ।

কেশকর্ম

শুবাচির প্রশ্ন: মেয়েটি চুল পরিপাটি করিতেছে। মেয়েটি চুল আঁচাড়াইতেছে। মেয়েটি চুল বাঁধার কাজ করিতেছে। মেয়েটি চিরুনি দিয়ে কেশবিন্যাস করিতেছে।” বাক্যগুলোর যে-কোনো একটি বাক্যকে বা সবকটি বাক্যকে এককথায় কী বলব? চুল আঁচড়ানো বা পরিপাটি বা কেশবিন্যাস বা চুল বাঁধার কাজকে এককথায় বলা হয় ‘কেশকর্ম’। উচ্চারণ: কেশ্‌কর্‌মো। এই সবকটি বাক্যকে বলা যায়: মেয়েটি কেশকর্ম করিতেছে।

শোনা কথা

কেবল লোকমুখে শ্রুত কিন্তু তার সত্যাসত্য জানা নেই” কথাটিকে সংক্ষেপে বলা হয় ‘শোনা কথা’।

জনশ্রুতি

লোকমুখে প্রচারিত কাহিনি: জনশ্রুতি গুজব। জনশ্রুতি সত্য বা মিথ্যা যে- কোনটি হতে পারে। প্রায়শ এটি অতীতাশ্রয়ী। তাই যাচাই করা প্রায় অসম্ভব।

দর্দুর

দর্দুর শব্দের অর্থ: ব্যাং। প্রতিশব্দ: ভেক, দাদুর, মণ্ডূক। দর্দুর (√দৃৃৃৃৃ+উর) সংস্কৃত (তৎসম) শব্দ।

পাষক পাশুলি

 “পায়ের আঙুলে যে অলংকার পরিধান করা হয় তাকে এককথায় কী বলে জানতে চাই।” তাকে এককথায় পাষক বা পাশুলি বলা হয়। পাষক তৎসম এবং পাশুলি খাঁটি বাংলা শব্দ।

পূগফল

আমাকে একটি পূগফল দাও বললে কে বুঝবে যে, আমি সুপারি চাইছি!

 

error: Content is protected !!