পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগ

পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী  মুসলিম লীগ

হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী ও আবুল হাশেমের নেতৃত্বাধীন তৎকালীন বঙ্গীয় প্রাদেশিক মুসলিম লীগের একাংশের সম্মেলনের মধ্য দিয়ে ১৯৪৯ খ্রিষ্টাব্দের ২৩শে জুন ঢাকার টিকাটুলীর কেএম দাস লেন রোডের রোজ গার্ডেন প্যালেসে ‘পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগ’ প্রতিষ্ঠিত হয়। যার সভাপতি ছিলেন টাঙ্গাইলের মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী এবং সাধারণ সম্পাদক টাঙ্গাইলের শামসুল হক। জেলে থাকা অবস্থায়  শেখ মুজিবকে নবগঠিত দলের যুগ্ম সম্পাদক পদ প্রদান করা হয়। পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামীলীগই হচ্ছে বর্তমান বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ।

পূর্ব বাংলায় দুর্ভিক্ষ   গ্রেফতার

১৯৪৯ খ্রিষ্টাব্দে পূর্ব বাংলায় দুর্ভিক্ষ শুরু হলে খাদ্যের দাবিতে শেখ মুজিবুর রহমান আন্দোলন শুরু করেন। তাঁর আন্দোলন তীব্র হয়ে উঠে। এই আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়ার কারণে ১৯৫০ খ্রিষ্টাব্দের ১লা জানুয়রি  শেখ মুজিবকে গ্রেফতার করা হয়।

সাধারণ সম্পাদক

১৯৫২ খ্রিষ্টাব্দের ১৬ই নভেম্বর মাত্র ৩৩ বছর বয়সে শেখ মুজিবুর রহমানকে আওয়ামী মুসলিম লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব প্রদান করা হয়। 

 শেখ মুজিব: আওয়ামী মুসলিম লীগের সভাপতি

১৯৫২ খ্রিষ্টাব্দে শেখ মুজিবুর রহমান সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পান। পরের বছর ঢাকার ‘মুকুল’ প্রেক্ষাগৃহে পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগের সম্মেলনে শেখ মুজিবকে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করা হয়।  তিনি ১৯৬৬ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত ১৩ বছর সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।

পাকিস্তানের প্রথম বিরোধী দল

পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগ ছিল তৎকালীন পাকিস্তানে প্রথম বিরোধী দল। এই দলই প্রথম সরকারের জনবিরোধী কর্মকা-ের প্রতিবাদ করেছিল।

পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগের সাধারণ সম্পাদক

বঙ্গবন্ধু ১৯৫৩ খ্রিষ্টাব্দের ৯ই জুলাই পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।

error: Content is protected !!