প্রাকৃতিক দুর্যোগ : চুয়াত্তরের (৭৪) দুর্ভিক্ষ : ৭৭-এর মহাপ্লাবন : ১৯৯১ এর ঘূর্ণিঝড় ম্যারি এন

ড. মোহাম্মদ আমীন

চুয়াত্তরের  দুর্ভিক্ষ

১৯৭১-এর যুদ্ধকালীন ক্ষয়ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই টানা দুই বছর আউশ ও আমন ধানের উৎপাদন ব্যাহত হয়। ১৯৭৩ খ্রিষ্টাব্দের অনাবৃষ্টি এবং ১৯৭৪  খ্রিষ্টাব্দের বন্যায় ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়। ফলে চালডাল-সহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম প্রচণ্ড বেড়ে যায়। ১৯৭২ খ্রিষ্টাব্দের জুলাই থেকে ’৭৪ খ্রিষ্টাব্দের এপ্রিল পর্যন্ত ২২ মাসের মধ্যে কোনো কোনো  নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম ৮০০ ভাগ পর্যন্ত বেড়ে যায়। কিছু ক্ষেত্রে তা ১৫০০ ভাগ হতেও দেখা গেছে। ১৯৭২ খ্রিষ্টাব্দের ১লা জুলাই প্রতিমণ সরু আমন চালের খুচরা দাম ছিল বাজারে ৭৫ টাকা। ’৭৩ খ্রিষ্টাব্দের জুলাইয়ে হয়েছে ১১৫ টাকা। ১৯৭৪ খ্রিষ্টাব্দের মার্চে বেড়ে হয়েছে ১৬০ টাকা। বৃদ্ধির হার ২১৫ শতাংশ। এসময় রংপুর অঞ্চলে প্রথম মন্দা দেখা দেয়। সারা দেশে দুর্ভিক্ষ ছড়িয়ে পড়ে।

 ৮৮এর মহাপ্লাবন

১৯৮৮ খ্রিষ্টাব্দের মহাপ্লাবনে ক্ষয়ক্ষতির পাশাপাশি দেশের প্রায় ৩০ হাজার বর্গমাইল তলিয়ে যায়। সরকারি হিসাব অনুযায়ী লোক মারা যায় ৩৩৩ জন। আর বেসরাকরি হিসাবে ছয় শতাধিক।  ৬৪ জেলার মধ্যে ৪৭টি বন্যায় প্লাবিত হয়েছিল। ৪৬৮টি উপজেলার ২৯৩টি সম্পূর্ণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত লোকের সংখ্যা সরকারি হিসাবে ২ কোটি ১০ লাখ; বেসরকারি হিসাবে প্রায় ৩ কোটি। বাস্তুহারা হয় ৩০ লাখ মানুষ। বন্যায় দেশের প্রায় ৮০ লাখ ঘরবাড়ি সম্পূর্ণভাবে বিধ্বস্ত হয়েছিল।

১৯৯১এর ঘূর্ণিঝড় ম্যারি এন

১৯৯১  খ্রিষ্টাব্দের ২৯ শে এপ্রিল উপকূলীয় অঞ্চলসমূহে ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ২৫০ কিলোমিটার গতিবেগে আঘাত হানে ঘূর্ণিঝড়। এর ফলে সৃষ্ট ৬ মিটার (২০ ফুট) উচ্চতার জলোচ্ছ্বাস ভাসিয়ে নিয়ে যায় মানুষ, গবাদিপশু, ঘরবাড়ি এবং বিভিন্ন স্থাপন। দক্ষিণ-পূর্ব উপকূলীয় অঞ্চলের প্রায় ১ লাখ ৩৮ হাজার মানুষ নিহত এবং এক কোটি মানুষ সর্বস্ব হারিয়ে ফেলে। মারা পড়ে ২০ লাখ গবাদিপশু। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় চট্টগ্রাম শহরের উপকূল; কুতুবদিয়া, বাঁশখালী, আনোয়ারা এবং চকরিয়া উপজেলা। নিহতের সংখ্যা বিচারে এটি ছিল স্মরণকালের ভয়াবহতম ঘূর্ণিঝড়। ধারণা করা হয়, এই ঘূর্ণিঝড়ে প্রায় ১ দশমিক পাঁচ বিলিয়ন ডলার ক্ষতি হয়। এই ঘূর্ণিঝড়ের পর বাংলাদেশে আসা মার্কিন টাস্কফোর্সের নাম ছিল :অপারেশন সি এঞ্জেল।

প্রাকৃতিক এবং পরিবেশগত সমস্যা

উষ্ণমণ্ডলীয় ঘূর্ণিঝড়, হ্যারিকেন, বা টাইফুন  প্রভৃতি কারণে  ১৯৮০ খ্রিষ্টাব্দ থেকে ২০০০ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত, প্রতিবছর গড়ে ১১,৮০০ জন মারা যায়।  এখন প্রাকৃতিক দুর্যোগে প্রতিবছর প্রায় ১২০০০ লোক মারা যায়। গত শতকে এর পরিমাণ ছিল প্রায় ৫০,০০০।


খনার মিথ্যাচার এবং শাস্তি

বুড়ো বয়সেই ভীমরতি : রতিক্রিয়ার শেষ গতি

সমাস : বাংলা ব্যাকরণের পিঁয়াজ

প্রাকৃতিক দুর্যোগ : প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণ

প্রাকৃতিক দুর্যোগ : ঝড় : বজ্রপাত : কালবৈশাখী ঝড় : জলোচ্ছ্বাস : বজ্রঝড় ও আশ্বিনের ঝড়

প্রাকৃতিক দুর্যোগ : বাংলাদেশের বন্যা : ইতিহাস : প্রথম বন্যা কমিটি

প্রাকৃতিক দুর্যোগ : ভূমিকম্প : ভূমিকম্পের ইতিহাস : কারণ : ভুমিকম্পের কেন্দ্র : ভূমিকম্প জোন

প্রাকৃতিক দুর্যোগ : সুনামি : ভূমিধ্বস : নদীভাঙন : তুষার ঝড় : সিঙ্কহোল : পৃথিবীর বৃহত্তম সিঙ্কহোল

প্রাকৃতিক দুর্যোগ : আর্সেনিক : দুষণ মাত্রা সনাক্তকরণ ভয়াবহতা : আর্সেনিক দুষণের প্রথম বিশ্বায়ন

প্রাকৃতিক দুর্যোগ : খরা : খরার কারণ : বাংলাদেশের খরা : পাহাড় ধ্বস

প্রাকৃতিক দুর্যোগ : সিডর টর্নেডো ক্যাটরিনা নারগিস টাইফুন : টর্নেডো শব্দের উদ্ভব

প্রাকৃতিক দুর্যোগ : সমুদ্র বন্দরের জন্য বিপদ সংকেত

প্রাকৃতিক দুর্যোগ : নদী বন্দরের জন্য বিপদ সংকেত

——————————————————————————-

বাংলাদেশ ও বাংলাদেশবিষয় সকল গুরুত্বপূর্ণ সাধারণজ্ঞান লিংক

সাধারণ জ্ঞান সমগ্র

শুদ্ধ বানান চর্চা/১

শুদ্ধ বানান চর্চা/২

শুদ্ধ বানান চর্চা /৩

শুদ্ধ বানান চর্চা /৪

error: Content is protected !!