প্রাকৃতিক দুর্যোগ : সিডর টর্নেডো ক্যাটরিনা নারগিস টাইফুন : টর্নেডো শব্দের উদ্ভব

ড. মোহাম্মদ আমীন

সিডর (২০০৭)

২০০৭ খ্রিষ্টাব্দের ১৫ই নভেম্বর বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত সিডর নামের  এই ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানে। বাতাসের গতিবেগ ছিল সর্বোচ্চ ২২০-২২৫ কিলোমিটার। রাত ১০টার পরই মূলত ঘূর্ণিঝড় সিডর উপকূলীয় এলাকার পাথরঘাটা, সাউথখালী ও দুবলারচরে আঘাত হানে। এসময় জলোচ্ছ্বাসের উচ্চতা ছিল ২০ থেকে ২৫ ফুট ।

টর্নেডো

টর্নেডো হল বায়ুস্তম্ভের আকারে সৃষ্ট প্রচণ্ড বেগে ঘূর্ণায়মান ঝড়। যা মেঘ এবং পৃথিবীপৃষ্ঠের সঙ্গে যুক্ত থাকে। টর্নেডোর আকৃতি বিভিন্ন ধরনের হতে পারে, তবে বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই এটি দৃশ্যমান ঘনীভূত ফানেল আকৃতির হয়, যার চিকন অংশটি ভূপৃষ্ঠকে স্পর্শ করে এবং প্রায়শ বর্জ্যরে মেঘ দ্বারা ঘিরে থাকে। অধিকাংশ টর্নেডোয় বাতাসের গতিবেগ থাকে ঘণ্টায় প্রায় ১৭৭ কিমি, ব্যাপ্তি প্রায় ২৫০ ফুট বা ৭৫ মিটার এবং নিঃশেষ হবার আগে কয়েক কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে পারে। কিছু টর্নেডোয় বাতাসের গতিবেগ থাকে ৩০০ মাইল বা ৪৮০ কিলোমিটারের বেশি, ব্যাপ্তি প্রায় ১.৬ কিলোমিটারের অধিক এবং ভূমির উপর দিয়ে মাইলের পর মাইল প্রায় ১০০ কিলোমিটারেরও অধিক দূরত্ব অতিক্রম করতে পারে।

 টর্নেডো শব্দের উৎপত্তি

টর্নেডো (Tornado) ইংরেজি শব্দ। ইংরেজি ভাষা শব্দটি স্পেনীয় অপভ্রংশ ‘ত্রোনাদা (Tornad0)’ থেকে নিয়েছে; যার অর্থ বজ্রঝড় (Thunder storm)। স্পেনীয় ভাষা শব্দটি নিয়েছে লাতিন ‘তোনারে’ থেকে। প্রসঙ্গত, লাতিন ভাষায় ‘তোনারে’ অর্থ বজ্রপাত। টর্নেডো সাধারণভাবে টুইস্টার নামেও পরিচিত।

ক্যাটরিনা

ক্যাটরিনা  ২০০৫ খ্রিষ্টাব্দে সংঘটিত একটি হ্যারিকেনের নাম। এঝড়ে যে সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাস হয় তাতে যুক্তরাষ্ট্রের লুইজিয়ানা অঙ্গরাজ্যের নিউ অরলিন্স শহরের ৮০ শতাংশ এলাকা ডুবে যায়।

উৎসভেদে টর্নেডোর নাম

টাইফুন চায়নিজ শব্দ। চীন সাগরে সৃষ্ট ঘূণিঝড়কে বলে টাইফুন। বঙ্গোপসাগর বা ভারত মহাসাগরে সৃষ্ট ঘূণিঝড়কে বলে সাইক্লোন। পশ্চিম আটলান্টিক বা প্রশান্ত মহাসাগরে সৃষ্ট ঘূণিঝড়কে বলে  হ্যারিকেন।

সুনামি সিডর সাইক্লোন নারগিস টাইফুন

সুনামি জাপানি, সিডর সিংহলি, সাইক্লোন গ্রিক, নারগিস উর্দু এবং টাইফুন চীনা-আরকি শব্দ। সিংহলি ঝওউজ শব্দের অর্থ চোখ। সিডর আঘাত হানে ২০০৭ খ্রিষ্টাব্দের ১৫ই নভেম্বর সিডর আঘাত হানে।

প্রাকৃতিক দুর্যোগ : সুনামি : ভূমিধ্বস : নদীভাঙন : তুষার ঝড় : সিঙ্কহোল : পৃথিবীর বৃহত্তম সিঙ্কহোল

প্রাকৃতিক দুর্যোগ : আর্সেনিক : দুষণ মাত্রা সনাক্তকরণ ভয়াবহতা : আর্সেনিক দুষণের প্রথম বিশ্বায়ন

প্রাকৃতিক দুর্যোগ : খরা : খরার কারণ : বাংলাদেশের খরা : পাহাড় ধ্বস

——————————————————————————-

বাংলাদেশ ও বাংলাদেশবিষয় সকল গুরুত্বপূর্ণ সাধারণজ্ঞান লিংক

সাধারণ জ্ঞান সমগ্র

শুদ্ধ বানান চর্চা/১

শুদ্ধ বানান চর্চা/২

শুদ্ধ বানান চর্চা /৩

শুদ্ধ বানান চর্চা /৪

error: Content is protected !!