প্রায় সমোচ্চারিত শব্দ : কোন শব্দ কোথায় হবে

প্রায় সমোচ্চারিত শব্দ: কোনটি কোথায় হবে 

মনি মোহন মুখার্জী

 

পাক – দড়িতে পাক দেওয়া, পবিত্র।

পাঁক – সাধারণত পচা কাদামাটি।

প্রোফাইল লকড, ছবি নেওয়া গেলা না।

কাচা – যেমন কাপড় কাচা।
কাঁচা – যেমন কাঁচা আম।

বাধা – প্রতিবন্ধকতা।
বাঁধা – যেমন তল্পিতল্পা বাঁধা।

ধোয়া – ধৌত করা।
ধোঁয়া – ধুম্র।

 

শাখা – ডাল।
শাঁখা – শঙ্খ।

আধার – পাত্র
আঁধার – অন্ধকার।

বিস্মিত – অবাক।
বিস্মৃত – ভুলে যাওয়া।

গাদা – যেমন খড়ের গাদা।
গাঁদা – ফুলবিশেষ।

হাসি – যেমন মুখের হাসি।
হাঁসি – হাঁসা বলে হাঁসি।

দখল – জোর করে আত্মস্যাৎ।
ধকল – হ্যাপা; আজ খুব ধকল গেছে।

ফাঁড়া – বিপদ।
ফাড়া – চিরে ফেলা।

ফোটা – যেমন ফুল ফোটা।
ফোঁটা – বিন্দু।

প্রায় সমোচ্চারিত ভিন্নার্থক শব্দ/২

আত্ম — নিজ
আর্ত — পীড়িত, দুঃখিত, কাতর।

উদ্যম — উৎসাহ
উদ্দাম — দুর্দান্ত, অসংযত, উচ্ছৃঙ্খল।

উদ্ভব — উৎপত্তি
উদ্ভাব — উদ্ভাবন।

উপ্ত — রোপিত, প্রোথিত।
উক্ত — যা বলা হয়েছে।

কমল — পদ্মফুল
কোমল — নরম।

গা — শরীর
গাঁ — গ্রাম।

গাথা — কাহিনীমূলক গীত
গাঁথা — গ্রথিত করা। যেমন – মালা গাঁথা।

চাচা — পিতৃব্য, কাকা।
চাঁচা — অস্ত্রাদি দ্বারা উপরের কিছু অংশ তুলে ফেলা।

দার — স্ত্রী
দ্বার — দরজা।

দাড়ি — শশ্রূ
দাঁড়ি — যে দাঁড় বায়; পূর্ণচ্ছেদ।

সূত্র: মনি মোহন মুখার্জী, প্রায় সমোচ্চারিত শব্দ :  কোনটি কোথায় হবে;  শুদ্ধ বানান চর্চা (শুবাচ)।


সাধারণ জ্ঞান সমগ্র/২

সাধারণ জ্ঞান সমগ্র/১

বাংলা বানান কোথায় কী লিখবেন এবং কেন লিখবেন/১

বাংলা বানান কোথায় কী লিখবেন এবং কেন লিখবেন

কীভাবে হলো দেশের নাম

শুদ্ধ বানান চর্চা প্রমিত বাংলা বানান বিধি : বানান শেখার বই

বাংলা ভাষার মজা, ড. মোহাম্মদ আমীন, পাঞ্জেরী পাবিলিকেশন্স লি.।

error: Content is protected !!