বঙ্গবন্ধু উপাধি আগড়তলা ষড়যন্ত্র মামলা প্রত্যাহার আয়ুব খানের পদত্যাগ

মামলা প্রত্যাহারশেখ মুজিব’ বঙ্গবন্ধু উপাধিতে ভূষিত

গণআন্দোলনের মুখে শেষ পর্যন্ত আইয়ুব সরকার ১৯৬৯ খ্রিষ্টাব্দের ২২ ফেব্রুয়ারি আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা প্রত্যাহার করে নিতে বাধ্য হয় এবং শেখ মুজিবসহ সকল বন্দিকে নিঃশর্ত মুক্তি দেয়া হয়। পরদিন ১৯৬৯ খ্রিষ্টাব্দের ২৩ শে ফেব্রুয়ারি ঢাকার রেসকোর্স ময়দানে এক বিশাল জনসভায় শেখ মুজিবর রহমানসহ মামলায় অভিযুক্তদের এক গণসম্বর্ধনা দেয়া হয় এবং শেখ মুজিবকে ‘বঙ্গবন্ধু’ উপাধিতে ভূষিত করা হয়। 

আইয়ুব খানের পদত্যাগ

 ১৯৬৬ খ্রিষ্টাব্দ থেকে ১৯৬৮ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত আইয়ুব বিরোধী আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে আইয়ুব খান ১৯৬৯ খ্রিষ্টাব্দের ২৬ শে ফেব্রুয়ারি রাওয়ালপিন্ডিতে বিরোধী রাজনৈতিক নেতাদের এক গোলটেবিল বৈঠক আহবান করেন। কিন্তু এই সম্মেলন সমস্যা সমাধানে ব্যর্থ হলে  আইয়ুব খান ১৯৬৯ খ্রিষ্টাব্দের ২৪ শে মার্চ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আগা মোহাম্মদ ইয়াহিয়া খানের নিকট ক্ষমতা হস্তান্তর করে রাজনীতি থেকে অবসর গ্রহণ করেন। ১৯৭৪  খ্রিষ্টাব্দের ২০ শে এপ্রিল তাঁর মৃত্যু হয়।১৯৬৯ খ্রিষ্টাব্দের ২৫ শে মার্চ রাষ্ট্রপতি আইয়ুব খান পদত্যাগ করে রেডিও এবং টেলিভিশনে দেওয়া এক বার্তার মাধ্যমে সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল ইয়াহিয়া খানের কাছে দেশের অবস্থা সামাল দেওয়ার দায়িত্ব দিয়েছেন বলে জানান।

error: Content is protected !!