বাংলার প্রথম ঐতিহাসিক সম্রাট

বাংলার প্রথম ঐতিহাসিক সম্রাট
সপ্তম খ্রিষ্টপূর্বাব্দের দিকে বাংলাদেশের পশ্চিমাঞ্চল মগধের অংশ হিসেবে ইন্দো-আর্য সভ্যতার অংশ হয়ে উঠে। নন্দ রাজবংশ হচ্ছে প্রথম ঐতিহাসিক রাষ্ট্র যা ইন্দো-আর্য শাসনের অধীনে বাংলাদেশকে একত্রিত করেছিল।

শ্রীবিজয় সভ্যতা ও বাঙালিদের উপনিবেশকরণ
বাঙালি জাতি দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় একটি বিরাট সভ্যতা গড়ে তুলেছিল। এটি শ্রীবিজয়-সভ্যতা নামে পরিচিত। ভিয়েতনামের ইতিহাসে উল্লেখ আছে ভারতবর্ষের বন-লাং (বাংলা) নামক দেশ থেকে লাক লোং নামক এক ব্যক্তি ভিয়েতনামে গিয়ে “বন-লাং” নামের একটি রাজ্য প্রতিষ্ঠা করেন। এই বন-লাং যে ভারতবর্ষের বাংলা সেই বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই। বাঙালিদের এই রাজ্য খ্রিষ্টপূর্ব তৃতীয় শতক পর্যন্ত বিদ্যমান ছিল। শ্রীলঙ্কার ইতিহাসে বর্ণিত আছে বঙ্গ দেশ থেকে আগত বিজয় সিংহ নামের এক ব্যক্তি স্থানীয় দ্রাবিড় রাজাদের পতন ঘটিয়ে সিংহল নামের এক নতুন রাজ্যের পত্তন করেন। বিজয় সিংহকে সিংহলী জাতির পিতা হিসেবে পরিগণিত করা হয়। বিজয় সিংহকে নিয়ে শ্রীলঙ্কায় একটি মহাকাব্যও রয়েছে যা “মহাবংশ” নামে পরিচিত।

error: Content is protected !!