বাংলা বানান কৌতুক: ক্যাবলার আম সন্ধি: আজ জোছনা রাতে সবাই গেছে বনে

ড. মোহাম্মদ আমীন
সংযোগ: https://draminbd.com/বাংলা-বানান-কৌতুক-ক্যাবল/

ক্যাবলার আম সন্ধি

দুটি শব্দকে এক শব্দে পরিণত করাকে সন্ধি বলে। যেমন: পাঠ+ শালা= পাঠশালা, চাঁদ+মুখ= চাঁদমুখ, রবি+ইন্দ্র= রবীন্দ্র। যুদ্ধরত দুই পক্ষ অনেক সময় সন্ধির মাধ্যমে যুদ্ধ তুলে নিয়ে এক হয়ে যায়। ব্যাকরণের সন্ধিও অনেকটা তেমন। ক্যাবলা, বুঝেছ?
: বুঝেছি স্যার।
আমি কয়েকটি উদাহরণ দিলাম। এবার তুমি কয়েকটি উদাহরণ দাও।
: স্যার, এখন আমের মৌসুম। বাজারে প্রচুর আম।
ড. মোহাম্মদ আমীন

তাতে কী?

: আম ফলের রাজা।
আমের সঙ্গে সন্ধির কী সম্পর্ক?
: আমি না স্যার আম খেতে খুব পছন্দ করি।
আমিও আম খেতে পছন্দ করি।
: তাইলে স্যার আমি, আম সন্ধির কয়েকটি উদাহরণ দিই?
দাও।
: গোল+আম= গোলাম, সাল+আম= সালাম; বালাম= বাল+আম, দাম+আম= দামাম, তামা+আম= তামাম, হার+আম= হারাম, ক্যারা+ আম= ক্যারাম, বাদ+আম= বাদাম, খেল+আম= খেলাম, পেল+ আম= পেলাম, গেল+ আম= গেলাম- – -।
থাক, যথেষ্ট হয়েছে। উদাহরণ আর লাগবে না। এবার থামো।
: আর একটা আম সন্ধির উদাহরণ দিই, স্যার?
সেটি কোন আম?
: গুদাম। গুদামটা ভেঙে দেখাই স্যার?
“না”, লজ্জায় আঁতকে উঠে শিক্ষক ভয়ে ভয়ে বললেন, “খবরদার।”
: কেন?
তামাম আম নষ্ট হয়ে যাবে। আমজনতা আম খেতে পাবে না গন্ধে।

আজ জোছনা রাতে সবাই গেছে বনে

শুনলাম, সব নেতা বনে গেছেন; ঠিক না কি?
— জি, স্যার। আপনি যাবেন না ?
তারা বনে গেছেন কেন?
—জোছনা রাতে সবাই বনে যায়। রবীন্দ্রনাথও গেছিলেন।
তাই তো!
—আপনি যাবেন না স্যার?
যাব।
— বসে আছেন কেন?
ভাবছি কীভাবে যাব?
—সবাই যেভাবে নেতা বনে গেছেন আপনিও স্যার সেভাবে নেতা বনে যাবেন।
চলো, গিয়ে নেতাদের সঙ্গে বনভোজনটা সেরে আসি।
— চলুন।
নেতারা কোন বনে গেছে?
— বোকা বনে।
এটা কোথায়?
— বানরের বন, মানে বান্দরবন , গাড়িতে উঠতে উঠতে ড্রাইভার বললেন।
ড্রাইভার?
—স্যার?
একটা গান লাগাও।
—কোনটা?
আজ জোছনা রাতে সবাই গেছে বনে- – -।
অনেকদূর যাবার পর স্যার বললেন, বন কোথায়?
—আসলে স্যার, নেতারা বনে যাননি।
তাহলে কোথায় গেছে?
— নেতা বনে গেছেন। মানে সবাই নেতা হয়ে গেছেন।
error: Content is protected !!