বাংলা ব্যাকরণ সমগ্র : উচ্চারণ : হ-কাহিনি

হ-কাহিনি
ড. মোহাম্মদ আমীন
সাধারণত ‘হ’-এর সঙ্গে কোনো ব্যঞ্জনবর্ণ যুক্ত হলে যুক্তবর্ণটি উল্টোক্রমে উচ্চারিত হয় ৷ অর্থাৎ ‘হ+ব্যঞ্জনবর্ণ’ -এর উচ্চারণ ‘ব্যঞ্জনবর্ণ+হ’ রূপে
উচ্চারিত হয় ৷ যেমন :
১. হ্ণ=হ্+ণ: পূর্বাহ্ণ (উচ্চারণ – পুর্ বান্ হো) ৷
২. হ্ন=হ্+ন: মধ্যাহ্ন (উচ্চারণ -মোদ্ ধান্ হো) ৷
৩.হ্ম=হ্+ম: ব্রহ্মপুত্র (উচ্চারণ – ব্রোম্ হোপুত্ ত্রো) ৷
৪. হ্ল=হ্+ল: আহ্লাদ (উচ্চারণ -আল্হাদ্) ৷
৫. হ্য=হ্+য: ‘য’, ‘হ’-এর আগে উচ্চারিত হয় এবং ‘হ’, ‘ঝ’ রূপে পরে উচ্চারিত হয় ৷ হ্য=হ্+য: সহ্য (উচ্চারণ -সোজ্ ঝো)
৬. হ্ব=হ্+ব: ‘ব’, ‘হ’-এর আগে ‘ও /উ’ রূপে উচ্চারিত হয় এবং ‘,হ’ ‘ভ’ রূপে পরে উচ্চারিত হয় ৷ ‘ব’-এর ‘ও/উ’ উচ্চারণ অন্তঃস্থ ব-এর উচ্চারণ কিনা কে জানে ৷
হ্ব=হ্+ব: আহ্বান (উচ্চারণ -আওভান্), জিহ্বা (উচ্চারণ – জিউভা) ৷
অন্যান্য সকল ক্ষেত্রে এবং হ-যুক্তবর্ণটি শব্দের আদিতে থাকলে স্বাভাবিক নিয়মে উচ্চারিত হবে ৷ যেমন- হ্লাদ(হ্লাদ্),হ্রদ(হ্রোদ্),হ্রাস(হ্রাশ্), হ্রস্ব(হ্রোশ্ শো) ,হৃদয় (হৃদয়্), হৃৎপিণ্ড(হৃত্ পিন্ ডো), হ্যাজাক(হ্যাজাক্) ৷
সূত্র : মনে পড়ে না আমার।
—————————————————————————————————————————————–
error: Content is protected !!