বাংলা সাহিত্যের প্রথম ও প্রধান/৪

প্রথম বাংলা-ইংরেজি অভিধান
রাজা রামমোহন রায়ের সামসময়িক লেখক রামকমল সেন (১৭৮৩-১৮৪৪ খ্রি.) লিখিত এবং ১৮২৫ খ্রিষ্টাব্দে প্রকাশিত বাংলা-ইংরেজি অভিধানটি বাংলা সাহিত্যের ইতিহাসে প্রথম বাংলা-ইংরেজি অভিধান। তিনি কলিকাতার স্কুল বুক সোসাইটির জন্য ১৮২০ খ্রিষ্টাব্দে ‘হিতোপদেশ’ নামে একটি পাঠ্য পুস্তক রচনা করেন। ১৮১৮- ১৮৫১ খ্রিষ্টাব্দের মধ্যে রাধাকান্ত দেব (১৭৮৪- ১৮৭৬ খ্রি.) ‘শব্দকল্পদ্রুম’ নামক একটি বিরাট অভিধান লিখে কয়েক খণ্ডে প্রকাশ করেছিলেন। এটি বাংলা সাহিত্যের প্রথম সুবৃহৎ অভিধান।

শর্টহ্যান্ড লিখন পদ্ধতির প্রথম গ্রন্থ
১৯২২ খ্রিষ্টাব্দে প্রকাশিত এবং ছন্দে বর্ণিত দ্বিজেন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘রেখাক্ষর বর্ণমালা’ বাংলা ভাষার শর্টহ্যান্ড লিখন পদ্ধতির প্রথম গ্রন্থ। তিনি ‘ভারতীয়’ পত্রিকার প্রথম সম্পাদক ছিলেন। উল্লেখ্য ‘ভারতীয়’ পত্রিকাটি প্রথম ১৮৭৭ খ্রিষ্টাব্দে প্রকাশিত হয়। তাছাড়া তিনি ১৮৪৪ খ্রিষ্টাব্দ হতে দীর্ঘ ২৫ বছর ‘তত্ত্ববোধিনী’ পত্রিকার সম্পাদক ছিলেন। ১৮৯১ খ্রিষ্টাব্দে তাঁর প্রচেষ্টায় বিখ্যাত ‘হিতবাদী’ পত্রিকাটি প্রকাশিত হয়।

ভারতবর্ষের প্রথম ছাপাখানা ও লাইনো টাইপের প্রথম ব্যবহার
১৭৭৮ খ্রিষ্টাব্দের ৬ সেপ্টেম্বর হুগলীতে স্থাপিত ছাপাখানা ভারতবর্ষের প্রথম ছাপাখানা। ১৯৩৫ খ্রিষ্টাব্দে ‘বাংলা বাজার’ পত্রিকায় প্রথম লাইনো টাইপের ব্যবহার করা হয়।

error: Content is protected !!