বাগ্‌ধারা: বাগ্‌বিধি: একমলাটে চারশো বাগ্‌ধারা একসঙ্গে

১০৪. ঊনপাঁজুরে — দুর্বল, মন্দভাগ্য
১০৫. এঁটে ওঠা — সমানে পাল্লা নিতে পারা
১০৬. এক কথার মানুষ — কথা রাখে এমন
১০৭. এক গোয়ালের গরু — এক শ্রেণিভুক্ত
১০৮. এক ঢিলে দুই পাখি মারা — এক প্রচেষ্টায় উভয় উদ্দেশ্য সাধন করা
১০৯. এক বনে দুই বাঘ — প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বী
১১০. এক মাঘে শীত যায় না — বিপদ একবারই আসে না
১১১. এক হাত লওয়া — প্রতিশোধ
১১২. একক্ষুরে মাথা মুড়ানো — একই স্বভাবের
১১৩. একচোখা — পক্ষপাতিত্ব, পক্ষপাতদুষ্ট
১১৪. একতাই বল — সম্মিলিত শক্তি
১১৫. একাই একশ — অসাধারণ কুশলী
১১৬. একাদশে বৃহস্পতি — সৌভাগ্যের বিষয়
১১৭. এলাহি কাণ্ড — বিরাট আয়োজন
১১৮. এলোপাতাড়ি — বিশৃঙখলা
১১৯. এসপার ওসপার — মীমাংসা
 
১১৩. ওজন বুঝে চলা — আত্মসম্মান রক্ষা করা
১১৪. ওত পাতা — সুযোগের অপেক্ষায় থাকা
১১৫. ওলট পালট — বিশৃঙখলা
১১৬. ওষুধ পড়া — যথাযোগ্য প্রভাব পড়া
১১৭. ওষুধে ধরা , — প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হওয়া
 
১১৮. ঔষধ ধরা — কাঙ্ক্ষিত ফললাভ
১১৯. ঔষধ পড়া — প্রভাবে পড়া
 
১২০. ক অক্ষর গোমাংস — বর্ণপরিচয়হীন মূর্খ
১২১. কংস মামা — নির্মম আত্মীয়
কচু বনে কালাচাঁদ — অপদার্থ
১২২. কচ্ছপের কামড় — যা সহজে ছাড়ে না
১২৩. কত ধানে কত চাল — হিসাব করে চলা
১২৪. কথার কথা — গুরুত্বহীন কথা
১২৫. কথায় চিঁড়ে ভেজা — ফাঁকা বুলিতে কার্যসাধন
১২৬. কপাল কাটা — অদৃষ্ট মন্দ হওয়া
১২৭. কপাল ফেরা — সৌভাগ্য লাভ
১২৮. কম্বলের লোম বাছা — অকাজ করা
১২৯. কর্তার ইচ্ছাই কর্ম — প্রভুর নির্দেশে কাজ
১৩০. কলকাঠি নাড়া — কুপরামর্শ দেওয়া
১৩১. কলমের খোঁচা — অসৎভাবে সাধিত আদেশ
১৩২. কলুর বলদ — একটানা খাটুনি
১৩৩. কল্কে পাওয়া — পাত্তা পাওয়া
১২৪. কড়ায় গণ্ডায় — সম্পূর্ণ, পুরোপুরি
১২৫. কাঁচা পয়সা — নগদ উপার্জন
১২৬. কাঁচা বাঁশে ঘুণ ধরা — অল্প বয়সে বিগড়ানো
১২৭. কাঁটা দিয়ে কাঁটা তোলা — শত্রু দ্বারা শত্রু নাশ
১২৮. কাঁঠালের আমসত্ত্ব — অসম্ভব বস্তু
১২৯. কাকজোছনা — ক্ষীণ চন্দ্রালোক
১৩০. কাকতালীয় — আকস্মিক যোগাযোগ
১৩১. কাকভূষণ্ডী — দীর্ঘজীবী ব্যক্তি
১৩২. কাকস্নান — সংক্ষিপ্ত গোসল
১৩৩. কাগজে কলমে — লিখিতভাবে
১৩৪. কাছা ঢিলা — অসাবধান
১৩৫. কাজের কথা — প্রয়োজনীয়
১৩৬. কাজের কাজি — কর্মদক্ষ
১৩৭. কাঞ্চনমূল্য — অগ্নিমূল্য
১৩৮. কাটা ঘায়ে নুনের ছিটা — যন্ত্রণায় নতুন মাত্রা যোগ করা
১৩৯. কাঠখড় পোড়ানো — নানারকম চেষ্টা ও পরিশ্রম
১৪০. কাঠের পুতুল — নির্জীব, অসার
১৪১. কাণ্ডজ্ঞান — উচিত অনুচিত বোধ
১৪২. কান খাড়া করা — মনোযোগী হওয়া
১৪৩. কান পাতলা — সহজেই বিশ্বাসপ্রবণ
১৪৪. কান ভারী করা — কুপরামর্শ দান
১৪৫. কানকাটা — নির্লজ্জ
১৪৬. কানামাছি খেলা — শিশুদের খেলা
১৪৭. কানে আঙুল দেওয়া — না শোনার চেষ্টা করা
১৪৮. কানে মন্ত্র দেওয়া — কুপরামর্শ দান
১৪৯. কাপড়ে বাবু — বাহ্যিক সভ্য
১৫০. কুঁড়ের বাদশা — ভয়ানক অলস
১৫১. কুনোব্যাঙ — সীমিত জ্ঞান সম্পন্ন
১৫২. কুপোকাত — পরাজিত
১৫৩. কুলকাঠের আগুন — তীব্র জ্বালা
১৫৪. কূপমণ্ডুক — ঘরকুনো, সীমাবদ্ধ জ্ঞান সম্পন্ন
১৫৫. কেঁচে গণ্ডুষ — পুনরায় আরম্ভ
১৫৬. কেঁচো খুঁড়তে সাপ — সামান্য থেকে অসামান্য পরিস্থিতি
১৫৭. কেউকেটা — সামান্য
১৫৮. কেতাদুরস্ত — পরিপাটি
১৫৯. কেল্লা ফতে করা — কঠিন কাজে সফল হওয়া
১৬০. কৈ মাছের প্রাণ — যা সহজে মরে না
১৬১. কোণঠাসা করা — বেকায়দায় ফেলা
১৬২. কোমর বাঁধা — দৃঢ়সংকল্প
 
১৬৩. খণ্ড প্রলয় — তুমুল কাণ্ড, ভীষণ ব্যাপার
১৬৪. খয়ের খাঁ — চাটুকার
১৬৫. খাতির জমা — নিরুদ্বিগ্ন
১৬৬. খাল কেটে কুমির আনা — বিপদ ডেকে আনা
১৬৭. খিচুড়ি পাকানো — জটিল করা
১৬৮. খুঁটির জোর — পৃষ্ঠপোষকের সহায়তা
১৬৯. খোশগল্প — আনন্দের কথাবার্তা
 
১৭০. গড্ডলিকা প্রবাহ — অন্ধ অনুকরণ
১৭১. গণেশ উলটানো — উঠে যাওয়া, ফেল মারা
১৭২. গণ্ডারের চামড়া — অপমান বা তিরস্কার গায়ে লাগায় না এমন
১৭৩. গদাই লস্করি চাল — অতি ধীর গতি, আলসেমি
১৭৪. গভীর জলের মাছ — ধূর্ত
১৭৫. গরজ বড় বালাই — প্রয়োজনেই জিনিসের গুরুত্ব বোঝা যায়
১৭৬. গরিবের ঘোড়ারোগ — অবস্থার অতিরিক্ত চাওয়া
১৭৭. গরু খোঁজা করা — তন্নতন্ন করে খোঁজা
১৭৮. গলগ্রহ — পরের বোঝাস্বরূপ থাকা
১৭৯. গা-ঢাকা দেওয়া — আত্মগোপন করা
১৮০. গা তোলা — নড়েচড়ে ওঠা
১৮১. গাছে কাঁঠাল গোঁফে তেল — প্রাপ্তির পূর্বেই ভোগের আয়োজন
১৮২. গাছে তুলে মই কাড়া — আশা দিয়ে আশ্বাস ভঙ্গ করা
১৮৩. গায়ে পড়া — অযাচিত
১৮৪. গায়ে ফুঁ দিয়ে বেড়ানো — কোনো দায়িত্ব গ্রহণ না করা
১৮৫. গায়ের ঝাল ঝাড়া — শোধ লওয়া
১৮৬. গুড়ে বালি — আশায় নৈরাশ্য
১৮৭. গোঁফ খেজুরে — নিতান্ত অলস
১৮৮. গোঁয়ার গোবিন্দ — নির্বোধ অথচ হঠকারী
১৮৯. গোকুলের ষাঁড় — বেকার, ভবঘুরে
১৯০. গোদের ওপর বিষফোঁড়া — বিপদের ওপর বিপদ
১৯১. গোবর গণেশ — মূর্খ
১৯২. গোবরে পদ্মফুল — অস্থানে ভালো জিনিস
১৯৩. গোবেচারা — নিরীহ ও বোকা
১৯৪. গোলক ধাঁধা — জটিল বিষয়
১৯৫. গোল্লায় যাওয়া — নষ্ট হওয়া, অধঃপাতে যাওয়া
১৯৬. গোড়ায় গলদ — শুরুতে ভুল
১৯৭. গৌরচন্দ্রিকা — ভূমিকা
১৯৮. গৌরবে বহুবচন — গর্ব করার সুযোগ তৈরি হলে তখন সেই বিষয়ের সঙ্গে যুক্ত বা একাত্ম হয়ে ওঠার প্রবণতামূলক ভণ্ডামি
 

error: Content is protected !!