বাতাবি কেন লেবু, খাপছাড়া এবং শিকড় শিখর

ড. মোহাম্মদ আমীন

বাতাবি কেন লেবু, খাপছাড়া এবং শিকড় শিখর

বাতাবি অর্থ কী? বাতাবি লেবু কেন? জানতে চাই।

বাটাভিয়া (Batavia) থেকে বাতাবিয়া এবং বাতাবিয়া থেকে বাতাবি। আমাদের পরিচিত বাতাবি বা বাতাবি লেবুর আদি জন্মস্থান বাটাভিয়া। বাটাভিয়া থেকে এই লেবুর আমদানি। তাই নাম হয়েছে বাতাবি বা বাতাবি লেবু। বাটাভিয়া ছিল ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী বর্তমান জাকার্তার মূল বা কেন্দ্র।
বাটভিয়া ছিল ডাচ ইস্ট ইন্ডিজের রাজধানী শহর। যা ছিল মূলত বর্তমান ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী কেন্দ্রীয় জাকার্তার সঙ্গে সম্পর্কিত ডাচ ইস্ট ইন্ডিজিয়ান নাম।

খাপছাড়া

‘খাপছাড়া’ শব্দের আভিধানিক অর্থ— মিলহীন, বেমানান, অসংলগ্ন, অদ্ভুত, উদ্ভট প্রভৃতি। ‘খাপ’ ও ‘ছাড়া’ শব্দের মিলনে ‘খাপছাড়া’ শব্দের উদ্ভব। ‘খাপ’ অর্থ আবরণ। সুতরাং, ‘খাপছাড়া’ অর্থ আবরণহীন। অনেক বস্তু বা বিষয় আছে যাকে আবরণ দিয়ে ঢেকে রাখতে হয় বা আড়াল করে রাখতে হয়। নইলে সংশ্লিষ্ট বিষয়-বস্তু অসংলগ্ন হয়ে পড়ে, নষ্ট হয়ে যায়, উদ্ভট দেখায়।
খাদ্য ঢেকে না-রাখলে স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর হয়ে ওঠে। তলোয়ার খাপে না ভরলে তো বহনকারীর সমূহ বিপদ থেকেই যায়। কিছু কিছু কথা আড়াল করে না-রাখলে অনেকের জন্য ক্ষতির কারণ হয়ে উঠতে পারে। আচরণের মধ্যেও কার্যকারণ ও পরম্পরা থাকতে হয়। এ সম্পর্ক বা পরম্পরাটি হলো কাজের বা আচরণের আবরণ। পোশাক সভ্য মানুষের একটি অনিবার্য খাপ বা আবরণ। যার আবরণ আবশ্যক তার আবরণ না-থাকলে তাকে খাপছাড়া, অসংলগ্ন, উদ্ভট ও বেমানান মনে হবে। আবরণ-আবশ্যক বস্তু বা বিষয় আবরণহীন হলে অসংলগ্ন, উদ্ভট ও বেমানান হয়ে যায়। বস্তুত এ বিষয় থেকে বাংলা ‘খাপছাড়া’ শব্দের উদ্ভব।

শিকড় ও শিখর
দেশি ‘শিকড়’ শব্দের আভিধানিক অর্থ গাছের মূল, মূল, গোড়া প্রভৃতি। ‘শেকড়’ হচ্ছে ‘শিকড়’ শব্দের কথ্য রূপ। সংস্কৃত শিখর (শিখা+র) শব্দের আভিধানিক অর্থ চূড়া, শীর্ষদেশ, উপরিভাগ, উপর প্রভৃতি।
দুটো শব্দের উচ্চারণ প্রায় অভিন্ন বলে কখন কোন বানান হবে তা নিয়ে অন্য কারও সংশয় হয় কি না জানি না, আমার বেশ সংশয় লেগে যায়। এজন্য আমি একটা কৌশল প্রয়োগ করি। কৌশলটা হচ্ছে :

‘ক’ এর পর যেমন ‘খ’-য়ে যেতে হয় তেমনি মূল-এর পর যেতে হয় ‘চূড়া’য়। তাই ‘শিকড়’ বানানে ‘ক’ এবং ‘শিখর’ বানানে ‘খ’।
তাহলে ‘শিকড়’ বানানের শেষে ‘ড়’ এবং ‘শেখর’ বানানে ‘র’ কেন?
শিকড় শব্দের অর্থ গোড়া। ‘ গোড়া’ থেকে শুরু হয় বলে ‘শিকড়’ বা ‘শেকড়’ বানানে ‘গোড়া’ শব্দের ‘ড়’ বসাতে হয়। অন্যদিকে, ‘শেখর’ শব্দের অর্থ ‘উপর’ বলে শব্দটির বানানে ‘উপর’ শব্দের ‘র’ বসাতে হয়।


শুবাচ গ্রুপের লিংক: www.draminbd.com
error: Content is protected !!