বাস বাস বাসা বাস বাস, কথকঠাকুর

বিভিন্ন অভিধানে বাস শব্দের ‍পৃথক পাঁচটি ভুক্তি দেখা যায়। তন্মধ্যে তিনটি শব্দের উৎস সংস্কৃত, একটি ইংরেজি এবং একটি ফারসি। নিচে ‘বাস’ শব্দের বিভিন্ন অর্থের বিবরণ দেওয়া হলো:
১. বাস: তৎসম বাস (√বস্‌+অ) অর্থ: বিশেষ্যে সুগন্ধ, সৌরভ। যেমন: ফুলের বাসে অলি হাসে, বধূ আমায় ভালোবাসে।  বাংলায় শব্দটির অর্থ: গন্ধ। যেমন: ঢাকার রাজপথেও মলের বাস। অন্য শব্দের সঙ্গে যুক্ত হয়ে এটি ‘লেশ’ অর্থও দ্যোতিত করে।  যেমন: যা বলছ তার নামগন্ধও   ‍খুঁজে পাচ্ছি না।
 
২. বাস: তৎসম বাস (√ বস্‌+অ) অর্থ বিশেষ্যে বস্ত্র, কাপড়, পোশাক। শীতবাস পরিহিত লোকটি হঠাৎ অন্ধকারে মিলিয়ে গেল। চীরবাস পরিহিত ঋষির দিকে তাকিয়ে বুঝলাম  বাস চীর হলেও তার হাসি চির শান্তির অনন্ত উৎস। এ বাস তোমার ক্ষণিকের, শেষ বাস হবে কফিনের।
 
৩. বাস: তৎসম বাস (√ বস্‌+অ) অর্থ বিশেষ্যে বাসস্থান; অবস্থা, গৃহ, আশ্রয়। তোমার বাস কোথা যে পথিক ওগো দেশে কি বিদেশে… (রবীন্দ্রনাথ)। আমি ঢাকা শহরে বাস করি।
 
৪. বাস: ইংরেজি বাস শব্দের অর্থ যাত্রীবাহী বড়ো সড়কযানবিশেষ, Bus। বাসে করে রওয়ানা দিলেন তিনি।
৫. বাস: ফারসি বাস অর্থ অব্যয়ে যথেষ্ট। যেমন: বাস! দয়া করে এবার একটু থামো। ক্রিয়াবিশেষণে শব্দটির অর্থ সঙ্গে সঙ্গে। যেমন:  বাবুদের তাল-পুকুরে/ হাবুদের ডাল-কুকুরে/ সে কি বাস করলে তাড়া, বলি থাম একটু দাড়া (নজরুল)।।

কথকঠাকুর

“যে ব্রাহ্মণ পুরাণ প্রভৃতি গ্রন্থ পাঠ করে এবং তার বিবরণাদি ব্যাখ্যা করে” তাদের এককথায় কথকঠাকুর বলা হয়। কথক ও ঠাকুর মিলে কথকঠাকুর (কথক+ঠাকুর)। শব্দটি বাক্যে সাধারণত বিশেষ্য হিসেবে ব্যবহৃত হয়। উচ্চারণ: কথোক্‌ঠাকুর্‌
জানা অজানা অনেক মজার বিষয়: https://draminbd.com/?s=অজানা+অনেক+মজার+বিষয়
শুবাচ গ্রুপের সংযোগ: www.draminbd.com
শুবাচ যযাতি/পোস্ট সংযোগ: http://subachbd.com/
আমি শুবাচ থেকে বলছি
error: Content is protected !!