ব্যাবহারিক প্রমিত বাংলা বানান সমগ্র : হিসাব ও হিসেবে শব্দের অর্থ

হিসাব ও হিসেব শব্দের অর্থ এবং প্রয়োগ

ড. মোহাম্মদ আমীন

বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধানমতে, বাক্যে বিশেষ্য হিসেবে ব্যবহৃত আরবি ‘হিসাব’ শব্দের অর্থ (১) গণনা, সংখ্যাকরণ (২) জমাখরচের বিবরণ, (৩) দর, (৪) কৈফিয়ত এবং (৫) বিচারবিবেচনা। একই অভিধানমতে, বাক্যে বিশেষ্য হিসেবে ব্যবহৃত ‘হিসেব’ হচ্ছে আরবি ‘হিসাব’ শব্দের কথ্য রূপ। অতএব, উভয় শব্দের অর্থ অভিন্ন। এবার অভিধানে প্রদত্ত অর্থের প্রয়োগ দেখা যাক:
১. হিসাব/ হিসেব (গণনা, সংখ্যাকরণ):
সাধু: হিসাব করিয়া দেখিলাম আমার আরও পাঁচ হাজার টাকা লাগিবে।
কথ্য : হিসেব করে দেখলাম আমার আরও পাঁচ হাজার টাকা লাগবে।
২. হিসাব/হিসেব (জমাখরচের বিবরণ):
সাধু:  আমাকে অফিসের হিসাব ঠিক করিয়া বাড়ি যাইতে হইবে।
কথ্য: আমাকে অফিসের হিসেব ঠিক করে বাড়ি যেতে হবে।
৩. হিসাব/হিসেব(দর):
সাধু:  হিসাব  করিয়া বাজার করিবে।
কথ্য: হিসেব করে বাজার করবে।
৪. হিসাব/হিসেব ( কৈফিয়ত):
সাধু: কর্তৃপক্ষ তাহার কৃতকর্মের হিসাব তলব করিল।
কথ্য:  কর্তৃপক্ষ তার কৃতকর্মের হিসেব তলব করল।
৫. হিসাব/হিসেব(বিচারবিবেচনা):
সাধু: সবকিছু হিসাব করিয়া তাহাকে নিয়োগপত্র প্রদান করা হইয়াছে। শুধু শিক্ষক হিসাবে নয়, মানুষ হিসাবেও তিনি ভালো ছিলেন। প্রয়োগ হিসাবে ‘হিসাব’ সাধারণভাবে বিশেষ্য পদ।
কথ্য: সবকিছু হিসেব করে তাকে নিয়োগপত্র প্রদান করা হয়েছে। শুধু শিক্ষক হিসেবে নয়, মানুষ হিসেবেও তিনি ভালো ছিলেন।প্রয়োগ হিসেবে ‘হিসেব’ সাধারণভাবে বিশেষ্য পদ।
অভিধানে প্রদত্ত অর্থ এবং প্রয়োগ হিসেব করে বলা যায়, ‘হিসাব’ ‘হিসেবে’ শুধু সমার্থক নয়, অর্থ এবং পদেও অভিন্ন। অধিকন্তু, প্রয়োগেও কোনো ভিন্নতা নেই। ‘হিসাব’ সাধু রূপে এবং ‘হিসেব’ কথ্য রূপে ব্যবহৃত হয়— উভয় শব্দের পার্থক্য কেবল এটাই। 

সময় থাকলে দেখে নিন, কাজে লাগবে প্রতিদিন।

কটুক্তি নয়, কটূক্তি।
কতৃক নয়, কর্তৃক।
কতৃত্ত্ব নয়, কর্তৃত্ব।
কতৃপক্ষ নয়, কর্তৃপক্ষ।
কথপোকথন নয়, কথোপকথন।
কদাচিত নয়, কদাচিৎ।
কনা নয়, কণা।
কনিষ্ট নয়, কনিষ্ঠ।
কন্ঠস্ত নয়, কণ্ঠস্থ।
কয়েদী নয়, কয়েদি।
করনিক নয়, করণিক।
কর্তী নয়, কর্ত্রী। ( যেমন : আর্দ্র)।

সাধারণ জ্ঞান সমগ্র

শুবাচ

শুবাচ/২

শুদ্ধ বানান চর্চা/১

শুদ্ধ বানান চর্চা/২

বিসিএস ক্যাডার হওয়ার জন্য যা করতে হবে : 

 

error: Content is protected !!