ব্যাবহারিক প্রমিত বাংলা বানান সমগ্র

ড. মোহাম্মদ আমীন

ব্যাবহারিক প্রমিত বাংলা বানান সমগ্র
দুই মিনিটের পাঠশালা
 
অগনতি (গুণে শেষ করা যায় না এমন, অগণ্য), কিন্তু অগণিত (গোনা হয়নি এমন, গণনার অসাধ্য): অতৎসম ‘গনতি’ শব্দ থেকে ‘অগনতি’ (অ+গনতি) শব্দের উদ্ভব।‘অগনতি’ অতৎসম শব্দ। তাই ‘অগনতি’ শব্দের বানানে ‘দন্ত্য-ন’। উদাহরণ: তিনি অগনতি টাকার মালিক। ‘অগণিত’ (ন+√গণ্‌+ত) সংস্কৃত শব্দ । তাই, ‘গণ’ শব্দ-অনুসরণে বানানে ‘মূর্ধন্য-ণ’। উদাহরণ: ব্রহ্মাণ্ডে নক্ষত্রের সংখ্যা অগণিত। প্রসঙ্গত,  ‘গণ’ শব্দের বানানে কোনো সূত্র ছাড়াই স্বাভাবিকভাবে ‘মূর্ধন্য-ণ’ হয়।
অঘ্রাণ (গন্ধহীন), কিন্তু অঘ্রান (অগ্রহায়ণ মাস): ‘গন্ধহীন’ অর্থে ব্যবহৃত ‘অঘ্রাণ’ একটি সংস্কৃত শব্দ। তাই ‘ণত্ব-বিধি’ অনুযায়ী শব্দটির বানানে ‘মূর্ধন্য-ণ’ হয়। উদাহরণ:  বিশুদ্ধ জল একটি অঘ্রাণ তরল।‘অঘ্রান’ সংস্কৃত ‘অগ্রহায়ণ’ শব্দের কোমল রূপ। শব্দটি অতৎসম, তাই বানান ‘মূর্ধন্য-ণ’ বিবর্জিত।  উদাহরণ: ও মা, অঘ্রানে তোর ভরা ক্ষেতে —। প্রসঙ্গত, অতৎসম শব্দের বানানে ‘মূর্ধন্য-ণ’ হয় না।
ফাউ
‘অগস্ট’ ও ‘আগস্ট’ দুটোই প্রমিত, কিন্তু আগস্ট বহুল প্রচলিত।
অংক নয়, লিখবেন অঙ্ক।অঙ্ক অর্থ গণিত। তাই, গণিতের মতো ‘অঙ্ক’ বানানটিও জটিল যুক্তাক্ষরে সজ্জিত।
অঙ্গিভঙ্গি নয়, লিখুন অঙ্গভঙ্গি।
ক্ষ-এর পর সাধারণত ‘মুর্ধন্য-ণ’ হয়, কিন্তু ‘এক্ষুনি’ বানানে দন্ত্য-ন। নিমোনিক হচ্ছে, খুনি বানানে দন্ত্য-ন, তাই এক্ষুনি বানানেও ‘দন্ত্য-ন’।
———————————————————————–
সূত্র: ব্যাবহারিক প্রমিত বাংলা বানান সমগ্র, ড. মোহাম্মদ আমীন, পর্যবেক্ষণ ও পরিশীলনে: হায়াৎ মামুদ, পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স লি.
error: Content is protected !!