ভাষা আন্দোলন-এর সূত্রপাত

বাংলা ভাষা আন্দোলনের সূত্রপাত
১৯৪৭ খ্রিষ্টাব্দের ২৭ শে নভেম্বর করাচিতে অনুষ্ঠিত শিক্ষা সম্মেলনে ভাষা বিষয়ক প্রস্তাবকে কেন্দ্র করে ১৯৪৭ খ্রিষ্টাব্দের ৪ঠা ডিসেম্বর পাকিস্তানে বাংলা ভাষা বিষয়ক বিতর্ক এবং আন্দোলনের সূত্রপাত ঘটে। শিক্ষা সম্মেলনে উর্দুকে পাকিস্তানের রাষ্ট্রভাষা করার প্রস্তাব সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়। সম্মেলনে গৃহীত প্রস্তাবে উর্দুকে পাকিস্তানের রাষ্ট্রভাষা করার সুপারিশ করা হয়। এ সুপারিশকে বাংলা ভাষা আন্দোলনের সূত্রপাত বলে গণ্য করা হয়।

বাংলা ভাষার মর্যাদা রক্ষাকল্পে অনুষ্ঠিত প্রথম বিক্ষোভ
করাচির শিক্ষা সম্মেলনে বাংলা ভাষাকে বাদ দিয়ে উর্দুকে রাষ্ট্রভাষা হিসাবে স্বীকৃতি প্রদানের প্রস্তাব গৃহীত হওয়ার সংবাদ ১৯৪৭ খ্রিষ্টাব্দের ৬ই ডিসেম্বর ঢাকা ‘মর্নিং নিউজ’ পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর ১৯৪৭ খ্রিষ্টাব্দের ৬ই ডিসেম্বর ঢাকা শহরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহের ছাত্রছাত্রীরা বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠে। বিক্ষুব্ধ ছাত্র-ছাত্রীরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি প্রতিবাদ সভা করে। ‘বঙ্গীয় প্রাদেশিক মুসলিম লিগ ওয়ার্কিং কমিটি’র শেষ বৈঠকে শিক্ষা সম্মেলনের সুপারিশের প্রতিবাদে ঢাকায় ছাত্র-শিক্ষক ও বুদ্ধিজীবীরা বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন।

 ভাষা আন্দোলনের সপক্ষে প্রথম প্রতিবাদ সভা
১৯৪৭ খ্রিষ্টাব্দের ৬ই ডিসেম্বর দুপুর ২টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ঢাকার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীরা প্রথম প্রতিবাদ সভা করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘তমদ্দুন মজলিশে’র স¤পাদক প্রিনিস্পাল আবুল কাশেমের সভাপতিত্ব অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-সংসদের তৎকালীন সহ-সভাপতি জনাব ফরিদ আহমদ প্রস্তাব পাঠ করেন।

বাংলা ভাষা আন্দোলন সমর্থনকারী প্রথম মন্ত্রী
১৯৪৭ খ্রিষ্টাব্দের ৬ই ডিসেম্বরের প্রতিবাদ সমাবেশের পর বিক্ষোভ প্রদর্শনরত বিশাল ছাত্রসমাবেশে তৎকালীন কৃষি মন্ত্রী মহাম্মদ আফজল বক্তৃতা প্রদান করেন এবং ছাত্রদের ভাষা আন্দোলনের প্রতি পূর্ণ সমর্থন ঘোষণা করেন।

বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করার দাবিকারি প্রথম আনুষ্ঠানিক সংগঠন

error: Content is protected !!