Warning: Constant DISALLOW_FILE_MODS already defined in /home/draminb1/public_html/wp-config.php on line 102

Warning: Constant DISALLOW_FILE_EDIT already defined in /home/draminb1/public_html/wp-config.php on line 103
ভূগোল সাধারণ জ্ঞান : অক্ষাংশ দ্রাঘিমাংশ ও বিষুবরেখা – Dr. Mohammed Amin

ভূগোল সাধারণ জ্ঞান : অক্ষাংশ দ্রাঘিমাংশ ও বিষুবরেখা

ড. মোহাম্মদ আমীন

অক্ষাংশের জ্যামিতিক সংজ্ঞা ও বিষুব রেখা
অক্ষাংশ (latitude) হচ্ছে স্থানাঙ্ক ব্যবস্থায়, একটি স্থান বিষুবীয় তলের কেন্দ্রের সঙ্গে যে কোণ উৎপন্ন করে তার পরিমাপ। একই অক্ষাংশ বিশিষ্ট সকল বিন্দুকে যোগ করে যে রেখা পাওয়া যায় সেটি ভূপৃষ্ঠের উপরে অবস্থিত একটি বৃত্ত এবং বিষুবীয় অঞ্চলের পরিধির সাথে সমান্তরাল। পৃথিবীর দু মেরুতে এই রেখাগুলো বিন্দুবৃত্ত গঠন করে। প্রতিটি মেরুর অক্ষাংশের পরিমাপ হচ্ছে ৯০ ডিগ্রি: উত্তর মেরু ৯০ ডিগ্রি উ; দক্ষিণ মেরু ৯০ ডিগ্রি দ। ০ ডিগ্রি সমান্তরাল অক্ষাংশকে বিষুব রেখা বলা হয়। এই রেখাটিই পৃথিবীকে উত্তর ও দক্ষিণ গোলার্ধে বিভক্ত করেছে।

দ্রাঘিমাংশ
দ্রাঘিমাংশ (ষড়হমরঃঁফব) হচ্ছে স্থানাঙ্ক ব্যবস্থার কেন্দ্রে পূর্বে বা পশ্চিমে, ভূপৃষ্ঠের কোনো একটি বিন্দু বিষুব রেখার সঙ্গে উল্লম্ব কোনো পরিধির (যা উত্তর ও দক্ষিণ মেরুকে ছেদ করেছে) সঙ্গে যে কোণ উৎপন্ন করে তার পরিমাপ। একই দ্রাঘিমাংশের সমস্ত বিন্দুকে নিয়ে যে রেখা পাওয়া যায় তাদের বলে মেরিডিয়ান বা ভূমধ্য রেখা। প্রতিটি ভূমধ্য রেখা একটি অর্ধবৃত্ত কিন্তু কেউ কারো সমান্তরাল নয়। সংজ্ঞানুসারে প্রতিটি রেখা উত্তর ও দক্ষিণ মেরুতে মিলিত হয়। ঐতিহাসিকভাবে যে ভূমধ্য রেখাটি রয়াল অবজারভেটরি, যুক্তরাজ্যের গ্রিনউইচ-এর মধ্যে দিয়ে গেছে সেটিকে শূন্য-দ্রাঘিমাংশ বা প্রামাণ্য ভূমধ্য রেখা ধরা হয়। দ্রাঘিমার পার্থক্য ১০ ডিগ্রি হলে সময়ের পার্থক্য হবে ৪ মিনি। এই দুটি কোণের মাধ্যমে ভূপৃষ্ঠের যেকোন স্থানের আনুভূমিক অবস্থান নির্ণয় করা সম্ভব।

ভূগোল সাধারণ জ্ঞান লিংক

ভূগোল সাধারণ জ্ঞান : ভূ-উপগ্রহ কেন্দ্র বাংলাদেশ

ভূগোল সাধারণ জ্ঞান : কৃত্রিম উপগ্রহ প্রথম কৃত্রিম উপগ্রহ

ভূগোল সাধারণ জ্ঞান : বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট

ভূগোল সাধারণ জ্ঞান : কয়েকজন আধুনিক জ্যোতির্বিজ্ঞানী

ভূগোল সাধারণ জ্ঞান : চাঁদে মানুষ : অ্যাপেলো ১১