মঙ্গলকাব্য ধর্মমঙ্গল

ধর্মমঙ্গল
ধর্ম ঠাকুরের মাহাত্ম্য প্রচারের উদ্দেশ্যে বাংলা সাহিত্যে ধর্মমঙ্গল কাব্য রচনার সূত্রপাত। ধর্মঠাকুর নামে কোনো এক পুরুষ দেবতার পূজা ডোম সম্প্রদায়সহ হিন্দু সমাজের নিচু স্তরের লোকদের মধ্যে প্রচলিত রয়েছে। ধর্মমঙ্গল কাব্যের দুটি কাহিনী রয়েছে। যথা- রাজা হরিশ্চন্দ্রের কাহিনী এবং (২) লাউসেনের কাহিনী। লাউসেনের কাহিনীই কাব্যে সমধিক প্রাধান্য পেয়েছে। এ ধারার কবিদের মধ্যে ময়ূরভট্ট, আদি রূপরাম, খেলারাম, মাণিকরাম, রূপরাম, শ্যাম পণ্ডিত, সীতারাম দাস, রাজারাম দাস, রামদাস আদক, দ্বিজ প্রভুরাম, ঘনরাম চক্রবর্তী, সহদেব চক্রবর্তী, নরসিংহ বসু, হৃদয়রাম সাউ প্রমূখ উল্লেখযোগ্য। প্রায় বিশজন কবি ধর্মমঙ্গল কাব্য রচনা করেছিলেন।

ধর্মমঙ্গলের আদি কবি
ময়ূরভট্ট ধর্মমঙ্গলের আদি কবি। তবে তাঁর কোনো পুঁথি পাওয়া যায়নি। পরবর্তীকালে রচিত কয়েক জন কবির রচনায় ময়ূরভট্টকে আদিকবি উল্লেখ করা হয়েছে। গবেষকদের মতে তিনি সপ্তদশ শতকের কবি ছিলেন।

ধর্মমঙ্গলের শ্রেষ্ঠ কবি
কবি ঘনরাম চক্রবর্তী ধর্মমঙ্গলকাব্য ধারার অষ্টাদশ শতকের সর্বশ্রেষ্ঠ কবি। তাঁর কাব্যগ্রন্থটির নাম ‘শ্রীধর্মমঙ্গল’। ১৭১২ খ্রিষ্টাব্দে কাব্যটির রচনা শেষ হয়। বর্ধমান জেলার কৃষ্ণপুর গ্রামে কবি ঘনরাম চক্রবর্তী জন্মগ্রহণ করেন। ধর্মঠাকুরের অনুগৃহীত লাউসেনের কাহিনী তাঁর কাব্যের উপজীব্য।

বাংলা সাহিত্যের প্রথম ও প্রধান/১ ,

বাংলা সাহিত্যের প্রথম ও প্রধান/২

বাংলা সাহিত্যের প্রথম ও প্রধান/৩

বাংলা সাহিত্যের প্রথম ও প্রধান/৪

বাংলা সাহিত্যের প্রথম ও প্রধান/৫

বাংলা সাহিত্যের প্রথম ও প্রধান/৬

বাংলা সাহিত্যের প্রথম ও প্রধান/৭

বাংলা সাহিত্যের প্রথম ও প্রধান/৮

বাংলা সাহিত্যের প্রথম ও প্রধান/৯

বাংলা সাহিত্যের প্রথম ও প্রধান/১০

বাংলা সাহিত্যের প্রথম ও প্রধান/১১

বাংলা সাহিত্যের প্রথম ও প্রধান/১২

বাংলা সাহিত্যের প্রথম ও প্রধান/১৩

বাংলা সাহিত্যের প্রথম ও প্রধান/১৪

বাংলা সাহিত্যের প্রথম ও প্রধান/১৫

শ্রীচৈতন্য (Chaitanya) ও বাংলা সাহিত্য

মঙ্গলকাব্য

বাংলা সাহিত্য অনুবাদ প্রথম ও প্রধান/১

বাংলা সাহিত্য অনুবাদ প্রথম ও প্রধান/২

বাংলা সাহিত্য অনুবাদ প্রথম ও প্রধান/৩

বাংলা সাহিত্য অনুবাদ প্রথম ও প্রধান/৪

মনসামঙ্গল

চণ্ডীমঙ্গল

 

error: Content is protected !!