মাছ ভাজা বনাম ভাজা মাছ

ড. মোহাম্মদ আমীন
‘ভাজা’ শব্দের অর্থ গরম ঘি বা তেলে রাঁধা। ‘ভাজা মাছ’ কিংবা ‘মাছ ভাজা’ মানে গরম ঘি বা তেলে রাঁধা মাছ। সুতরাং, ‘ভাজা মাছ’‘মাছ ভাজা’ দুটো কথাই সমার্থক, কিন্তু প্রায়োগিক অর্থ অভিন্ন হয় না— সূক্ষ্ম হলেও কিছুটা ভিন্নতা পরিলক্ষিত হয়।‘ভাজা’ আগে হবে না কি ‘মাছ’ আগে হবে? এটি নির্ভর করে বক্তা কোন বিষয়টিকে অধিক গুরুত্ব দিতে চাইছে তার ওপর।
প্রসঙ্গত,  ভাজামাছমাছভাজা শব্দদুটো প্রমিত নয়। লিখুন যথাক্রমে— ‘ভাজা মাছ’ এবং ‘মাছ ভাজা’। এবার দেখা যাক ‘মাছ ভাজা’ এবং ‘ভাজা মাছ’ কী ও কেন? কেউ যদি ‘ভাজা’র চেয়ে ‘মাছ’কে অধিক গুরুত্ব দিতে চায় এবং ‘ভাজা’ নয়, ‘মাছ’ই প্রধান লক্ষ্য হয়ে দাঁড়ায়— সেক্ষেত্রে ‘মাছ’ আগে হবে। যেমন:
আমি ইলিশ ভাজা (মাছ ভাজা) খাব।
মামাবাড়ি চলো যাই, কই মাছ ভাজা (মাছ ভাজা) খায়।
এক্ষেত্রে ‘মাছ’টি (কই মাছ), ‘ভাজা’র চেয়ে অধিক গুরত্ব পেয়েছে। এখানে বক্তার উদ্দেশ্য ‘মাছ ভাজা’ নয়, কই মাছ ভাজা। 
যদি মাছ এর চেয়ে ‘ভাজা’কে অধিক গুরুত্ব দেওয়া হয়, সেক্ষেত্রে ‘ভাজা’ আগে বসবে। এখানে ভাজা হলেই চলে— তা যে মাছই  হোক না।  যেমন:
ভাজা মাছের দারুণ স্বাদ, বনভোজনের আহ্লাদ।
মামীর হাতের ভাজা মাছ, ইচ্ছেমতো খাব আজ। 
‘ভাজা মাছ’ ও ‘মাছ ভাজা’ উভয়ই নাম বাচক; প্রথমটি বস্তু এবং দ্বিতীয়টি কর্মের নাম। বাক্যে কর্ম হিসেবে ব্যবহার করলে সেক্ষেত্রে ‘মাছ’ শব্দটি আগে বসবে।  যেমন : মা মাছ ভাজা করছে। মাছ ভাজা শেষ হলে আমরা ভাজা মাছ খেতে শুরু করব।
error: Content is protected !!