ময়নাতদন্ত, ময়না তদন্তের ময়না; ময়না ও তদন্ত; ময়না তদন্তের ময়না কী

ড. মোহাম্মদ আমীন

ময়নাতদন্ত, ময়না তদন্তের ময়না; ময়না ও তদন্ত; ময়না তদন্তের ময়না কী

পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স লি.
‘ময়না’‘তদন্ত’ শব্দের সমন্বয়ে ‘ময়নাতদন্ত’ শব্দ গঠিত।‘তদন্ত’ শব্দের অর্থ— কোনো বিষয়ে তদন্ত করে সত্য নিরূপণ। বাংলা ভাষায় ব্যবহৃত ‘ময়না’ শব্দের তিনটি অর্থ আছে। ‘ময়না’ যখন দেশি শব্দ তখন এর অর্থ— কালো পালকাবৃত শালিকজাতীয় পাখি। ‘ময়না’ যখন সংস্কৃত শব্দ তখন এর অর্থ— ডাকিনি বা খল স্বভাবের নারী। অভিধানে সংস্কৃত ‘ময়না’ শব্দ দ্বারা বাংলা লোকসংগীতের রাজা মানিকচন্দ্রের জাদুবিদ্যায় পারদর্শী পত্নীকেও চিহ্নিত করা হয়েছে। ‘ময়না’ যখন আরবি শব্দ তখন এর অর্থ— অনুসন্ধান। আরবি ‘মু’আইনা’ শব্দের অর্থ— চক্ষু দিয়ে, চোখের সামনে, প্রত্যক্ষভাবে, পরিষ্কারভাবে । বাংলায় এসে শব্দটি তার আসল রূপ হারালেও অন্তর্নিহিত অর্থ পুরোপুরি হারায়নি। ‘মু’আইনা’ বাংলায় এসে ‘ময়না’ হয়ে গেলেও ‘অনুসন্ধান’ অর্থ নিয়ে সে তার মূল অর্থকে আরও ব্যাপকভাবে প্রসারিত করেছে।
 
সুরতহাল অর্থ তদন্তের উদ্দেশ্যে কোনো ঘটনা বা অকুস্থলের চাক্ষুষ বিবরণ; আদালতের এজাহার। আরবি সুরত অর্থ চেহারা, আকৃতি, ধরন, ঢং, উপায়, অবস্থা, প্রকৃতি, স্বরূপ, মূর্তি। আরবি হাল অর্থ বর্তমান কাল, চলতি (হালনাগাদ), বর্তমান (হাল আমলের) প্রভৃতি। সুরতহালের মাধ্যমে ঘটনার বর্তমান বা সংশ্লিষ্ট সময়ের স্বরূপ নির্ধারণ করার প্রয়াস নেওয়া হয়। তাই তার নাম সুরতহাল।
 
‘ময়নাতদন্ত’ শব্দের ‘ময়না’ বাংলা ও সংস্কৃত ‘ময়না’ নয়। এটি হচ্ছে ‘আরবি’ ময়না। মূলত আরবি ‘মু’আয়িনা’ শব্দ থেকে বাংলায় অনুসন্ধান অর্থে ব্যবহৃত ‘ময়না’ শব্দের উদ্ভব। এই আরবি ‘ময়না’ শব্দের সঙ্গে সংস্কৃত ‘তদন্ত’ শব্দ যুক্ত হয়ে গঠিত হয়েছে ‘ময়নাতদন্ত’ শব্দ রচিত। যার অর্থ, অস্বাভাবিক বা আকস্মিক মৃত্যুর কারণ উদ্‌ঘাটনের উদ্দেশ্যে শবব্যবচ্ছেদ। বাংলায় ব্যবহৃত ‘ময়নাতদন্ত’ শব্দটির ইংরেজি অর্থ Post-mortem এবং এর অর্থ, An examination of a dead body to determine the cause of death.
উৎস : বাংলা ভাষার মজা, ড. মোহাম্মদ আমীন, পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স লি.

বাংলা ভাষার মজা

লেখক : ড. মোহাম্মদ আমীন
প্রকাশক : পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স লি.
প্রচ্ছদ : ধ্রুব এষ
ভূমিকা : আবুল কাসেম ফজলুল হক
পৃষ্ঠা : ২৯৬
মূল্য : ৫৫০ টাকা
প্রথম প্রকাশ : সেপ্টেম্বর ২০১৯
পাওয়া যাবে : পাঞ্জেরীর প্যাভিলিয়ন-১৯ (অমর একুশে গ্রন্থমেলা)।
—————————————————————-
বইটিতে যা পাবে সেগুলো সূচি অনুসারে নিম্নে দেওয়া হলো :
 
অপ যে রূপ- অপরূপ
গরিবের তিন বল
আমন্ত্রণ ও নিমন্ত্রণ
উপমা ও তুলনা
বামপন্থি বনাম ডানপন্থি
 
মরা গোরু হেঁটে যায়
আঁখির ভিতর পাখির বাসা
জয় বাংলা একুশে
হরির উপরে হরি
মরহুম বিবাহিত স্ত্রী
 
নির্দেশ ও নির্দেশনা
আমার ছেলে ছেলেটি, বেড়ায় যেন গোপালটি
বাচ্চা শিশু
জল পানি
আপনি ভাই খেয়েছেন, আমিও ভাই খেয়েছি
 
আমি খাসি আমার সাহেব বলদ
দায়িত্ব ও কর্তব্য
প্লিজ বসেননা
রবীন্দ্রনাথের নিচ নীচ
শুভসন্ধ্যা এবং শুভ সন্ধ্যা
 
ভাতের জন্য ভাতার
মঞ্জুভাষণ
GHOTI শব্দের উচ্চারণ
সাত সকাল
ভালোবাসা ও প্রেম
 
ব্রাশ ফায়ার ও ব্রাস্ট ফায়ার
চিকামারা
চিকুনগুনিয়া
দিকবিচিত্রার খুঁটিনাটি
ময়না ও ময়নাতদন্ত
 
দায়িত্ব এবং কর্তব্য
অবাকে বাক্ নেই, হতবাকে হত
কলম চোরের হাতিয়ার
কুম্ভকর্ণের ঘুম
নদ ও নদী
 
লক্ষ লক্ষ্য এবং উপলক্ষ্য
সাহাবা থেকে সাহেব
চার্মিং গার্ল থেকে ডাইনি
সস্তার তিন অবস্থা
কৃষ্ণ থেকে কৃষ্ণচূড়া
 
একজন ও এক জন
যতদিন রবে পদ্মা যমুনা
ঘড়েল
বাসর রাতের বিড়াল
মারের সাগর
 
কদলি
ঠান্ডায় গন্ডগোল
পটোল তোলা
মিছিল নিয়ে ধর্মঘট
ভীমরতি ও নিরানব্বইয়ের ধাক্কা
 
কপোল ভিজিয়া গেল নয়নের জলে
কাক কাকবিষ্ঠা উচ্ছিষ্ট ও বমি
ঘোড়ায় চড়িয়া মর্দ হাঁটিয়া চলিল
মূর্তি ও ভাস্কর্য
পাকিস্তান আফগানিস্তান এবং হিন্দুস্থান
 
কুসংস্কার বাণী
কুম্ভীলক
বাংলা বাঙলা বাঙ্গলা ও বাঙ্গালা
আর্ষপ্রয়োগ
নিপাতনে সিদ্ধ
 
আম পচে বেল
বাবুল বিস্কুট কোম্পানি শব্দ যমক
মালাউন ও কাফের
শুদ্ধ বানান শুদ্ধ বাংলা
সাতসতের
 
ইদ এবং ঈদ
হরিঘোষের গোয়াল
বাল আবাল
ফুলের শুভেচ্ছা এবং ফুলেল শুভেচ্ছা
লবণ থেকে লাবণ্য
 
ইকড়ি মিকড়ি
বিনত ও বিনয়াবনত
অশ্রু অশ্রুজল অশ্রুবারি
যত দোষ নন্দ ঘোষ
যবন-এর যবনিকা
 
সংজ্ঞা নয় সংজ্ঞার্থ
বাসা বাড়ি
ব্যবহারিক ও ব্যাবহারিক
পার্থক্য ও তফাত
সর্বজনীন বনাম সার্বজনীন
 
প্রবন্ধ নিবন্ধ ও প্রবাদ-প্রবচন
এপার ওপাড়
চীন তুমি চিন
সুচরিতাসু বনাম সুচরিতেষু
রবীন্দ্রনাথ মৃত্যুবরণ করেননি
 
খাঁটি গরুর দুধ
পরিবহণ না পরিবহন
আল্পস পবর্ত থেকে অল্প
জাত শব্দ
গর্ব ও গৌরব
 
সাবেক ও প্রাক্তন
গোরুর খোঁজে গবেষণা
ঘটি-বাঙাল আর জগা বাবুর খিচুড়ি
কলিযুগের কলিক্ষণ
শুভঙ্করের ফাঁকি
 
রাজা বাদশাহ শাহেনশাহ
ও-কার বিড়ম্বনা
বারোয়ারি
লিঙ্গ-জ্ঞান
জনাব বনাম জনাবা
 
আমার কথা ফুরালো নটে গাছটি মুড়ালো
আর্য
চড়ুইভাতি
বক ধার্মিক
চিলেকোঠা
 
অন্নচিন্তা চমৎকারা
কাক ও কাক ভূষণ্ডী
উদোর পিন্ডি বুদোর ঘাড়ে
শনির দৃষ্টি এবং পোড়া শোল
শ্রীঘর
 
জয়ন্তী
বানপ্রস্থ
বাংলা ভাষার মজা
বিশেষ কচুর সভাপতি
প্রতয়ন ও প্রত্যায়ন
 
উপলক্ষ ও উপলক্ষ্য
জোড়কলম : খিচুড়ি শব্দ
টিকটিকি ঠিক ঠিক
গোলাম আজম জেলে
সাহেবের সিংহ ভাগ
 
একজন ও এক জন
 
শুবাচ গ্রুপের লিংক: www.draminbd.com
তিনে দুয়ে দশ: শেষ পর্ব ও সমগ্র শুবাচ লিংক
error: Content is protected !!