যতদিন রবে পদ্মা যমুনা এবং গৌরী নদী

ড. মোহাম্মদ আমীন

বলুন তো নিচের ছড়াটির রচয়িতা কে? ছড়াটির নাম কী এবং কোন গ্রন্থ থেকে নেওয়া হয়েছে? ছড়াটি কখন রচনা করা হয়েছে?

যতদিন রবে পদ্মা যমুনা
গৌরী মেঘনা বহমান
ততদিন রবে কীর্তি তোমার,
শেখ মুজিবুর রহমান!

দিকে দিকে আজ অশ্রুগঙ্গা
রক্তগঙ্গা বহমান
তবু নাই ভয়, হবে হবে জয়,
জয় মুজিবুর রহমান।

 ছড়াটির রচয়িতা প্রখ্যাত আইসিএস, কবি ও কথাসাহিত্যিক অন্নদাশঙ্কর রায়। ছড়ার নাম ‘বঙ্গবন্ধু’। ছড়াটি অন্নদাশঙ্কর রায় বিরচিত বিখ্যাত ছড়াগ্রন্থ ‘শালি ধানের চিঁড়ে’ থেকে নেওয়া হয়েছে। ১৯৭১ খ্রিস্টাব্দের জুলাই মাসে।

কবি অন্নদাশঙ্কর রায়ের অমর কবিতার প্রথম চার লাইন :
যতদিন রবে পদ্মা যমুনা
গৌরী মেঘনা বহমান
ততদিন রবে কীর্তি তোমার
শেখ মুজিবুর রহমান।

অন্নদাশঙ্কর রায়- এর লেখা ছড়ার পঙ্‌ক্তি হিসেবে:

ভুল: যতদিন রবে পদ্মা মেঘনা/ গৌরী যমুনা বহমান
ততদিন রবে কীর্তি তোমার/ শেখ মুজিবুর রহমান”
শুদ্ধ: “যতদিন রবে পদ্মা যমুনা/ গৌরী মেঘনা বহমান
ততদিন রবে কীর্তি তোমার/ শেখ মুজিবুর রহমান।”
জাতির জনকের সমাধি ফলক থেকে

গড়াই প্রাচীন একটি নদী। অতীতে এর নাম ছিল গৌরী। বিখ্যাত জ্যোতির্বিজ্ঞানী ও ভুগোলবিদ টলেমি তদানীন্তন গঙ্গা প্রবাহের সাগর সঙ্গমে পাঁচটি মুখের কথা উল্লেখ করেছেন। এর মধ্যে ‘কমবরী খান’ নামক মুখটিই প্রকৃতপক্ষে গড়াই বলে কেউ কেউ মনে করেন। গড়াই-মধুমতি নদীর গতিপথ দীর্ঘ এবং বিস্তৃত। গড়াই-মধুমতি নদী গঙ্গা নদীর বাংলাদেশ অংশের প্রধান শাখা। একই নদী উজানে গড়াই এবং ভাটিতে মধুমতি নামে পরিচিত। এক সময় গড়াই-মধুমতি নদী দিয়ে গঙ্গার প্রধান ধারা প্রবাহিত হতো, যদিও হুগলী-ভাগিরথী ছিল গঙ্গার আদি ধারা। কুষ্টিয়া জেলার উত্তরে হার্ডিঞ্জ ব্রিজ-এর ১৯ কিলোমিটার ভাটিতে তালবাড়িয়া নামক স্থানে গড়াই নদী গঙ্গা থেকে উৎপন্ন হয়েছে। নদীটি কুষ্টিয়া জেলার ভিতর দিয়ে প্রবাহিত হয়ে গণেশপুর নামক স্থানে ঝিনাইদহ জেলায় প্রবেশ করেছে। অতঃপর ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়া সীমানা বরাবর প্রবাহিত হয়ে চাদর নামক গ্রাম দিয়ে রাজবাড়ী জেলায় প্রবেশ করেছে। এরপর ঝিনাইদহ-রাজবাড়ী, মাগুরা-রাজবাড়ী এবং মাগুরা-ফরিদপুর জেলার সীমানা বরাবর প্রবাহিত হয়ে মধুমতি নামে নড়াইল ও বাগেরহাট জেলার মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। মধুমতি পরবর্তীকালে পিরোজপুর জেলার মধ্য দিয়ে বলেশ্বর নামে প্রবাহিত হয়েছে এবং মোহনার কাছাকাছি ‘হরিণঘাটা’ নাম ধারণ করে বঙ্গোপসাগরে পড়েছে।

শুবাচ লিংক:  যতদিন রবে পদ্মা যমুনা কবিতার গৌরী নদী

অন্নদাশঙ্কর রায়- এর লেখা ছড়ার পঙ্‌ক্তি হিসেবে

শুবাচ গ্রুপের লিংক: www.draminbd.com
— — — — — — — — — — — — — — — — — — —

All Link (বাংলা বানান কোথায় কী লিখবেন বাকি অংশ)

অথই বনাম অথৈ

অংশগ্রহণ বনাম অংশ গ্রহণ

বাংলায় মোট শব্দ সংখ্যা : শুবাচ জরিপ 

ইদ বনাম ঈদ

বাংলা ভাষার মজা

বাংলা সাহিত্য বিষয়ক লিংক

বাংলা ভাষার মজা

অকালি মাকালী

অগুরু ও গুরু

অনুপস্থিত বনাম অবর্তমান

অনুগত বনাম বাধ্যগত

অনুষ্ঠিতব্য নয়, অনুষ্ঠেয় বা অনুষ্ঠাতব্য

অনুকরণ বনাম অনুসরণ

সাধারণ জ্ঞান সমগ্র

বাংলাদেশ ও বাংলাদেশবিষয়ক গুরুত্বপূর্ণ সাধারণজ্ঞান লিংক

অচিন্তনীয় বনাম অচিন্ত্য

বুঝ্‌ এবং বোঝ্‌ : বাংলা বানান কোথায় কী লিখবেন

বাংলা বানান কোথায় কী লিখবেন : নির্দেশ নির্দেশনা : শাসন অনুশাসন

বাংলা বানান কোথায় কী লিখবেন : স্বর্ণগর্ভ স্বর্ণগর্ভা বনাম স্বর্ণ চোরাচালান

ব্যাবহারিক প্রমিত বাংলা বানান সমগ্র

error: Content is protected !!