লেখা দেখে লেখা শেখা/৪

লেখা দেখে লেখা শেখা/৪
Md Muhaimin Arif

বর্ণকাঠামো ঠিক রেখে লেখার গতি দ্রুত করুন (কৌশল-১)

লেখার কাজে দ্রুততা একটা বড়ো ফেক্টর। তাই লেখার টাইপ সুন্দর রেখে দ্রুতগতিতে লেখার অনুশীলন করতে হবে।

অনুশীলনের নিয়ম :

* বাংলা বা ইংরেজি দুটি ক্ষেত্রে একই নিয়ম প্রযোজ্য।

* প্রথমে, একটি বর্ণ নিয়ে অনুশীলন করতে হবে। পরে শব্দ, তার পরে বাক্য এবং তারও পরে অনুচ্ছেদ বা প্যারা আকারে লেখার অনুশীলন করতে হবে। এতে লেখার গতি বাড়বেই।

* শুরুতেই খাতার পৃষ্ঠায় (রুল করা বা সাদা পাতা) একটি বর্ণ লিখতে হবে, যেমন ‘ক’। লেখালেখির উপকরণ হিসেবে লাগবে একটি পেনসিল বা বল পয়েন্ট কলম, কাগজ আর একটি ঘড়ি। ঘড়িতে অ্যালার্ম দিন ১৫ সেকেন্ড। ক-এর কাঠামো ঠিক রেখে স্বাভাবিক গতিতে লিখুন নির্ধারিত পনেরো সেকেন্ডে যতটি সম্ভব ততটি। অ্যালার্ম টাইম শেষ হলে গোনে দেখুন এই পনেরো সেকেন্ডে কয়টি ক লেখা গেছে। ধরুন ১৫টি। এবার আবার স্টপওয়াচ ধরে দ্রুততার সঙ্গে লিখুন আরও পনেরো সেকেন্ড। গোনে দেখুন তা নিশ্চয়ই ১৫টি অতিক্রম করেছে। তারপর আবার ১৫ সেকেন্ড। আবারও ১৫ সেকেন্ড। প্রথম মিনিট শেষে গোনে দেখুন তা অবশ্যই গড় ষাটটি ‘ক’ অতিক্রম করেছে। এভাবে ইংরেজি বর্ণ নিয়েও অনুশীলন করতে হবে। বর্ণ লেখা শেষে শব্দ, বাক্য, অনুচ্ছেদ বা প্যারা অনুশীলন করতে হবে।

নোট : ধৈর্য ধরে অনুশীলন করতে হবে। অন্য কারও সহযোগিতা লাগলে, নেবেন।লেখালেখি করার জন্যে কলম সঠিক নিয়মে ধরা আবশ্যক। সঠিক নিয়মে কলম ধরলে হাতের আঙুল, কবজি, বাহু, কাঁধ স্বাভাবিক অবস্থায় ব্যথামুক্ত থাকে। রক্তপ্রবাহ ঠিক মতো থাকে ফলে মাংসপেশীতে ব্যথা অনুভূত হয় না। অনেকক্ষণ লেখার কাজ চালানো সম্ভব হয়। সঠিক নিয়মে কলম ধরার অনুরোধ রইল।

error: Content is protected !!