সাদা শাদা, হিসাব হিসাবে হিসেব হিসেবে, হিশাব হিশেব

ড. মোহাম্মদ আমীন

সাদা শাদা, হিসাব হিসাবে হিসেব হিসেবে, হিশাব হিশেব

সাদা বনাম শাদা

বিশেষ্য হিসেবে ব্যবহৃত ফারসি সাদা অর্থ— (বিশেষণে) শ্বেত, শুভ্র (সাদা বরফ); শ্বেতকায় (সাদা ভল্লুক), সরল, অকপট, (সাদাসিধে), অলংকারহীন (সাদামাঠা, সাদামাটা), অলিখিত (সাদা কাগজ), সহজ (সাদা মনের মানুষ), স্পষ্ট (সাদা কথা)। বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধানে শাদা বানানের কোনো শব্দ নেই। জীবনে কত পরীক্ষা দিয়েছি, কোথাও শাদা লিখিনি। চর্যাপদের কবিগণ থেকে শুরু করে বড়ু চণ্ডীদাস হয়ে রবীন্দ্রনাথ-নজরুল প্রায় সব লেখকই সাদা লিখেছেন। বাংলাসাহিত্যের দুশো খ্যাতিমান লেখকের মধ্যে শাদার পক্ষে দশ জনের বেশি পাওয়া যাবে না। অনেকে বলেন: ‘সাদা’ শব্দের ফারসি উচ্চারণ শাদা। তাই শাদা লেখা সমীচীন। তাদের দাবি মেনে নিলে বাংলায় আর দন্ত্য-স রাখার প্রয়োজন নেই। কারণ, বাংলার সব দন্ত্য-স বর্ণের উচ্চারণ তালব্য-শ দিয়ে নির্দেশ করা হয়। অথচ শাদা লেখিয়েগণ কেবল সাদার দন্ত্য-স ছাড়া আর সব স বিনা দ্বিধায় ব্যবহার করেন।
.
হুমায়ুন আজাদকে প্রশ্ন করেছিলাম, শাদা লিখেন কেন? “ফারসি শব্দ তাই।”, তিনি বলেছিলেন। বলেছিলাম, ফারসি ‘সাল’ তো ‘শাল’ লিখেন না, শাদা লিখবেন কেন? “তোমাকে কৈফিয়ত দিতে হবে না কি? তোমার আমলাগিরি সচিবালয়ে।” তাঁর উত্তর।আর কোনোদিন প্রশ্ন করিনি। পরে তাঁর কথায় বুঝেছি, কোনো কোনো লেখক কেবল নিজের লেখায় আলাদা বৈশিষ্ট্য আনার জন্য এমন কিছু বানান বানান, যা সাধারণ অধিকজনস্বীকৃত বানান হতে ভিন্ন। এরকম বানান টেকেনি।হুমায়ুন আজাদ ‘শাদা বাঙলা’র জন্য কি না করেছেন; কিন্তু এখন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানেও ‘সাদা বাংলা’। সাদা শব্দের ফারসি উচ্চারণ কী, কেন শাদা লিখব কিংবা কেন সাদা লিখব না— এসব বিষয় নিয়ে গবেষণার মতো মেধা ও যোগ্যতা কোনোটা আমার নেই। আমি সাদা লিখি।
.
কারণ: শিশুবেলা থেকে এ পর্যন্ত সব অভিধানে সাদা দেখে আসছি, লিখে আসছি। পরীক্ষায় সাদা খাতায় white অর্থ সাদা লিখে আস্তে আস্তে মাস্টার্স, তারপর পিএইচডি পর্যন্ত করেছি। বিসিএস পরীক্ষাও সাদা লিখে পাশ করেছি। চাকুরিতে যোগদানের পর সরকারি সব লৈখিক যোগাযোগে সাদা লিখে চাকুরির প্রায় শেষপ্রান্তে চলে এসেছি। সব বিধিবিধানই সাদা, কোথাও শাদা নেই। আমার দাদা তামাক পাতাকে শাদাপাতা লিখতেন। তার যুক্তি, সাদা পাতার সঙ্গে যাতে তামাকপাতা মিলে না যায়।
বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধানে শাদা বানানের কোনো শব্দ নেই। শিক্ষার্থীদেরও শিখতে হয় সাদা। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পুস্তকসমূহে সাদা লেখা হয়। শাদা শেখালে প্রাতিষ্ঠানিক কিংবা বিসিএস পরীক্ষায় গ্রাহ্য হবে না। তাই আমি সাদা লিখি, সাদা লেখা শেখাই। ভুলেও শাদা লিখিনি কখনো। বানান নিয়ে কতিপয় লেখকের এরকম বানানামি, বাংলার বানান বিভ্রাটের অন্যতম কারণ। এমন দলছুটে আচরণ আদর্শ বানান রীতি প্রতিষ্ঠার একটা বিরাট অন্তরায়। কোনো বিষয়ে বাঙালির ঐকমত্য দেখা যায় না।

.

হিসাব হিসাবে হিসেব হিসেবে, হিশাব হিশেব

বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধানমতে, বাক্যে বিশেষ্য হিসেবে ব্যবহৃত আরবি ‘হিসাব’ শব্দের অর্থ (১) গণনা, সংখ্যাকরণ (২) জমাখরচের বিবরণ, (৩) দর, (৪) কৈফিয়ত এবং (৫) বিচারবিবেচনা।
একই অভিধানমতে, বাক্যে বিশেষ্য হিসেবে ব্যবহৃত ‘হিসেব’ হচ্ছে আরবি ‘হিসাব’ শব্দের কথ্য রূপ। অতএব, উভয় শব্দের অর্থ অভিন্ন। এবার অভিধানে প্রদত্ত অর্থের প্রয়োগ দেখা যাক:
১. হিসাব/ হিসেব (গণনা, সংখ্যাকরণ)
সাধু: হিসাব করিয়া দেখিলাম আমার আরও পাঁচ হাজার টাকা লাগিবে।
কথ্য : হিসেব করে দেখলাম আমার আরও পাঁচ হাজার টাকা লাগবে।
.
২. হিসাব/হিসেব (জমাখরচের বিবরণ)
সাধু: আমাকে অফিসের হিসাব ঠিক করিয়া বাড়ি যাইতে হইবে।
কথ্য: আমাকে অফিসের হিসেব ঠিক করে বাড়ি যেতে হবে।
.
৩. হিসাব/হিসেব(দর)
সাধু: হিসাব করিয়া বাজার করিবে।
কথ্য: হিসেব করে বাজার করবে।
.
৪. হিসাব/হিসেব ( কৈফিয়ত) 
সাধু: কর্তৃপক্ষ তাহার কৃতকর্মের হিসাব তলব করিল।
কথ্য: কর্তৃপক্ষ তার কৃতকর্মের হিসেব তলব করল।
স্মর্তব্য, হিশাব ও হিশেব অসংগত বানান।
সহায়ক গ্রন্থ:
১. ব্যাবহারিক প্রমিত বাংলা বানান সমগ্র, ড. মোহাম্মদ আমীন, পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স লি.
২. কোথায় কী লিখবেন বাংলা বানান: প্রয়োগ ও অপপ্রয়োগ, ড. মোহাম্মদ আমীন, পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স লি.

You cannot copy content of this page

poodleköpek ilanlarıankara gülüş tasarımıantika alanlarPlak alanlarantika eşya alanlarAntika mobilya alanlarAntika alan yerlerfree cheatsvozol 12000valorant macrovalorant color aimbotvalorant triggerbotvalorant spoofertuzla evden eve nakliyatgebze evden eve nakliyatniğde evden eve nakliyataşk büyüsüeskişehir emlakEtimesgut evden eve nakliyatEşya Depolama
Casibomataşehir escortjojobetfixbetmatadorbetjojobetMeritkingholiganbet