সেন্ট লুসিয়া (Saint Lucia) : ইতিহাস ও নামকরণ

কীভাবে হলো দেশের নাম ( উত্তর আমেরিকা)

ড. মোহাম্মদ আমীন

সেন্ট লুসিয়া (Saint Lucia)

 সেন্ট লুসিয়া পূর্ব ক্যারিবিয়ান সাগরে সেন্ট ভিনসেন্ট (Saint Vincent) এর উত্তর ও উত্তর পূর্বে, বারবাডোস এর উত্তর-পশ্চিমে এবং মার্টিনিকের

প্রকাশক: পুথিনিলয়। উত্তর আমেরিক।

(Martinique) দক্ষিণে অবস্থিত একটি দ্বীপরাষ্ট্র। এর আয়তন  ৬১৭ বর্গকিলোমিটর  ২৩৮.২৩ বর্গমাইল। তন্মধ্যে জলীয় অংশ ১.৬%। ২০০৯ খ্রিষ্টাব্দের  হিসাবমতে মোট জনসংখ্যা ১৭,৩,৭৬৫ জন এবং প্রতি বর্গকিলোটিমারে জনসংখ্যা ২৯৮ জন। আয়তনের দিক হতে এটি পৃথিবীর ১৯১-তম বৃহত্তম দেশ কিন্তু জনসংখ্যার ঘনত্বের দিক হতে পৃথিবীর ৪১-তম জনবহুল দেশ।

২০১১ খ্রিষ্টাব্দের  হিসাবমতে, জিডিপি (পিপিপি) ২.১০১ ইউএস বিলিয়ন ডলার এবং মাথাপিছু আয় ১২,৯২৭ ইউএস ডলার। জিডিপি (নমিনাল) ১.২৩৯ বিলিয়ন ডলার এবং সে হিসাবে মাথাপিছু আয় ৭,৭৬৯ ইউএস ডলার। মুদ্রার নাম  পূর্ব ক্যারিবিয়ান ডলার (East Caribbean dollar)। রাজধানীর নাম ক্যাসট্রিস (Castries)। ১৯৭৯ খ্রিষ্টাব্দের  ২২ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাজ্য হতে স্বাধীনতা লাভ করে।

১৫০২ খ্রিষ্টাব্দের  ১৩ ডিসেম্বর ফ্রান্সের সাইরাকাস অঞ্চলের নাগরিক সেন্ট লুসি Saint Lucy of Syracus) প্রথম দ্বীপটিতে অবতরণ করেন। তিনিই এ দ্বীপের প্রথম ইউরোপীয়ান অভিবাসী। তার নামানুসরে এর নাম রাখা হয় সেন্ট লুসিয়া। সেন্ট লুসিয়ার প্রাক্তন নাম ছিল উইন্ডওয়ার্ড দ্বীপপুঞ্জ (Windward Islands)। দক্ষিণ পূর্বাঞ্চলীয় প্রবল বিপরীত বাতাস ছিল দ্বীপটির বৈশিষ্ট্য। এজন্য সহজে দ্বীপগুলোতে জাহাজ ভেড়ানো যেত না। মার্টিনিক, ডোমিনিকা, সেন্ট ভিনসেন্ট ও গ্রেনাডাইন দ্বীপপুঞ্জ এরূপ যে দিক হতে বায়ু বহে

প্রকাশক: পুথিনিলয়। ওশেনিয়া ও অ্যান্টার্কটিকা।

সেদিকে অবস্থিত দ্বীপ। এজন্য বায়ুর বিপরীতে এসব দ্বীপে অবতরণ ছিল কষ্টকর।  ফ্রান্স ও ইংল্যান্ড নিয়ে দীর্ঘদিন উভয় দেশের মধ্যে যুদ্ধ চলেছে। এভাবে ১৪ বার দেশটি পরস্পরের মধ্যে হস্থানান্তর হয়েছে। ১৭৪৬ খ্রিস্টাব্দে ফ্রান্সের শাসনে সুউফ্রাইয়ের (Soufriere) শহর নির্মান করে। ১৮১৪ খ্রিস্টাব্দে সেন্ট লুসিয়ায় যুক্তরাজ্যের সার্বভৌমত্ব প্রতিষ্ঠা হয়। ১৯৬৭ খ্রিস্টাব্দে ১ মার্চ থেকে অভ্যন্তরীণ বিষয়ে সেন্ট লুসিয়া স্বশাসন অর্জন করে। ১৯৭৯ খ্রিষ্টাব্দের  ২২ ফেব্রুয়ারি সেন্ট লুসিয়া পূর্ণ স্বাধীনতা লাভ করে।

কলা সেন্ট লুসিয়ার প্রধান রপ্তানি পণ্য। তবে তারা বিয়ার ও পেট্রোলিয়ামও রপ্তানি করে। চার্লস জেসে Charles Jesse) রচিত “Sons and Daughters of Saint Lucia” সেন্ট লুসিয়ার জাতীয় সংগীত।  সেন্ট লুসিয়ার জাতীয় পাখি লুসিয়া প্যারট (Jacquot)। এটি একটি আগ্নেয়দ্বীপ এবং ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জের সবচেয়ে পার্বত্য দ্বীপ। ৯৫০ মিটার উঁচু মাউন্ট গিমি (Mount Gimie) এ দেশের সবচেয়ে উচ্চত্তম পর্বত। সেন্ট লুসিয়ার মোট জাতীয় আয়ের ৭৫% আসে পর্যটন হতে।  সেন্ট লুসিয়া হানিমুন পর্যটন কেন্দ্র বিশ্বের অন্যতম আকর্ষণীয় একটি পর্যটন কেন্দ্র। পৃথিবীর সকল প্রকার উপাদেয় খাদ্য এবং আনন্দ এখানে উপভোগ করার ব্যবস্থা আছে। ক্যারিবিয়ান ক্রুজ (Caribbean cruise) পৃথিবী বিখ্যাত। এমন একটি দ্বীপ যাতে প্রতিটি স্থানে পর্যটকেরা নতুনত্ব ও বিস্ময়কর আনন্দ খুঁজে পায়। সারা বছর তাপমাত্রা ২৭ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড।


কিউবা ( Cuba) : ইতিহাস ও নামকরণ

ডোমিনকা (Dominica) : ইতিহাস ও নামকরণ

 ডোমিনিকান রিপাবলিক (Dominican Republic) : ইতিহাস ও নামকরণ

এল স্যালভেডর (El Salvador) : ইতিহাস ও নামকরণ

গ্রেনাডা (Grenada) : ইতিহাস ও নামকরণ

গুয়েতেমালা (Guatemala) : ইতিহাস ও নামকরণ

ইউনাইটেড স্টেটস (United States) : ইতিহাস ও নামকরণ

হাইতি (Haiti) : ইতিহাস ও নামকরণ

হন্ডুরাস (Honduras) : ইতিহাস ও নামকরণ

জ্যামাইকা (Jamaica) : ইতিহাস ও নামকরণ

মেক্সিকো (Mexico) : ইতিহাস ও নামকরণ

নিকারাগুয়া (Nicaragua) : ইতিহাস ও নামকরণ

পানামা (Panama) : ইতিহাস ও নামকরণ

সেন্ট কিটস এন্ড নেভিস (Saint Kitts and Nevis) : ইতিহাস ও নামকরণ

সূত্র:  কীভাবে হলো দেশের নাম, ড. মোহাম্মদ আমীন, পুথিনিলয়, বাংলাবাজার, ঢাকা।

All Link

সাধারণ জ্ঞান সমগ্র

Knowledge Link

বাংলাদেশ ও বাংলাদেশবিষয়ক সকল গুরুত্বপূর্ণ সাধারণজ্ঞান লিংক

আফ্রিকা মহাদেশ : ইতিহাস ও নামকরণ লিংক

ইউরোপ মহাদেশ : ইতিহাস ও নামকরণ লিংক

এশিয়া মহাদেশ : ইতিহাস ও নামকরণ লিংক

error: Content is protected !!