সৈয়দ আমির আলী: কলকাতা হাইকোর্টের প্রথম মুসলিম বিচারপতি

ড. মোহাম্মদ আমীন

সৈয়দ আমির আলী: কলকাতা হাইকোর্টের প্রথম মুসলিম বিচারপতি

কলকাতা হাইকোর্টের প্রথম মুসলিম বিচারপতি, আইনজ্ঞ, সমাজ সংস্কারক, লেখক এবং অল ইন্ডিয়া মুসলিম লীগের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সৈয়দ আমির আলী  ১৮৪৯ খ্রিষ্টাব্দের ৬ই এপ্রিল উড়িষ্যর কটকে জন্ম গ্রহণ করেন। ইরানের মেশেদ থেকে

সৈয়দ আমির আলী

আগত এক শিয়া পরিবারের বংশধর সৈয়দ সা’দাত আলীর পাঁচ পুত্রের মধ্যে তিনি ছিলেন চতুর্থ। আমীর আলীর প্রপিতামহ ১৭৩৯ খ্রিষ্টাব্দে নাদির শাহের সৈন্যদলের সঙ্গে ইরান পরিত্যাগ  করে ভারতীয় উপমহাদেশে আসেনন। 

ইসলামের ইতিহাস নিয়ে তিনি কয়েকটি বিখ্যাত বই লিখেছিলেন। তন্মধ্যে অন্যতম হলো: দ্যা স্পিরিট অব ইসলাম। বইটিই পরবর্তীকালে ব্রিটিশ রাজের সময় ভারতের আইনে মুসলিম আইন প্রবর্তন করার পেছনে ভূমিকা রেখেছিল।  উনিশ শতকের আশির দশকে তিনি ছিলেন ভারতীয় মুসলমানদের রাজনৈতিক জাগরণের উদ্যোক্তা ছিলেন।

তিনি ছিলেন হুগলি মাদ্রাসা ছাত্র। তিনি ১৮৬৭ খ্রিষ্টাব্দে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আসামান্য কৃতিত্ব সহকারে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। ১৮৬৮ খ্রিষ্টাব্দে অনার্স-সহ ইতিহাসে এমএ পাস করেন। ১৮৬৯ খ্রিষ্টাব্দে এলএলবি শেষ করার পর সরকারি বৃত্তি নিয়ে তিনি লন্ডন গমন করেন।

সৈয়দ আমীর আলীকে ভারতবর্ষে মুসলিমদের মধ্যে প্রথম আধুনিক মানুষ বলা হয়, তিনি বুঝতে পেরেছিলেন মুসলিম জাতির পশ্চাদপদতার মুল কারণ অন্ধ-অনুকরণ, পশ্চাদনুবর্তিতা এবং মুক্তবুদ্ধির প্রতিকুল অবস্থান। ধর্মের ভেদবোধহীন চিন্তাচেতনা পরিত্যাগ করে তিনি মুসলিম সমাজকে আধুনিক চিন্তাচেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে মিথ্যা এবং অবাস্তব কল্পনা ছুড়ে ফেলে সত্য ও বাস্তবতার মিছিলে সামিল হয়ে নিজেদের অবস্থানকে সুসংহত করার প্রয়াস নিয়েছিলেন। তিনি বুঝতে পেরেছিলেন ষষ্ঠদশ শতকের তলোয়ার দিয়ে বিংশ শতকের আকাশাভিযান মোকাবেলা নিতান্তই বালখিল্য। তিনি মনে করতেন, স্থিতিশীল ধর্মীয় অনুশাসন দিয়ে পরিবর্তনশীল সমাজের চাহিদা মেটানো সম্ভব নয়। ইসলামের যে সকল বিধান মৌলিক ধর্ম বিশ্বাসের সাথে জড়িত নয় এবং যেগুলো গ্রগতি ও বিজ্ঞানমনস্কতার প্রতিকূল সেগুলোকে তিনি পরিবর্তন, পরিমার্জন এমনকি বর্জনেরও সুপারিশ করেছেন। বহুবিবাহ ও

ড. মোহাম্মদ আমীন

পর্দাপ্রথার বিলুপ্তি, মুসলিম পারিবারিক আইনের সময়োপযোগী সংশোধনসহ আরও বহুবিধ সংষ্কারমূলক প্রস্তাব তার উদারনীতি ও প্রগতিশীল চিন্তার নিদর্শন। তিনি জানতেন পাহাড় পৃথিবীর পেরেক নয়, সূর্য কোন কাদামাখ গর্তে ডুবে যায় না; উল্কাগুলো কোন ক্ষেপণাস্ত্র নয়। ধর্ম ও সমাজ সংস্কারের যুগোপযোগী মতবাদ, সাহসী বক্তব্য, মুক্তচিন্তার প্রসার, অসাম্প্রদায়িক মনোভাব, আধুনিক বিজ্ঞানমনস্কতা প্রভৃতি বিবেচনায় তাকে ভারতবর্ষের মুসলমানদের মধ্যে প্রথম আধুনিক মানুষ বলা হয়।

সৈয়দ আমীর আলী ১৯২৮ খ্রিষ্টাব্দের ৩ আগস্ট ইংল্যান্ডে মারা যান। সন্তানেরা তার নির্দেশানুযায়ী তার ব্যক্তিগত কাগজপত্র নষ্ট করে ফেলেন।

কিছু প্রয়োজনীয় পোস্ট

শুবাচ গ্রুপের লিংক: www.draminbd.com
তিনে দুয়ে দশ: শেষ পর্ব ও সমগ্র শুবাচ লিংক
এই পোস্টের ওয়েব লিংক: কিছু প্রয়োজনীয় পোস্ট
এই পোস্টের ওয়েব লিংক: কিছু প্রয়োজনীয় পোস্ট

error: Content is protected !!