সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়: সত্যজিৎ রায়-এর মানসপুত্

ড. মোহাম্মদ আমীন

সত্যজিৎ রায়-এর মানসপুত্র তরুণ রবীন্দ্রনাথ-এর মহাপ্রয়াণ
 
 
অভিনেতা, কবি, নাট্যকার, পরিচালক অনুবাদক ও আবৃত্তি শিল্পী সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় ১৯৩৫ খ্রিষ্টাব্দের ১৯ শে জানুয়ারি জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতৃনিবাস ছিল বর্তমান বাংলাদেশের কুষ্টিয়া জেলার শিলাইদহের নিকটবর্তী কয়াগ্রামে। সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় সিটি কলেজে, সাহিত্য নিয়ে পড়াশোনা করেন। সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের পিতামহের আমল থেকে চট্টোপাধ্যায় পরিবারের সদস্যরা নদিয়া জেলার কৃষ্ণনগরে বসবাস করতে শুরু করেন। সৌমিত্রর পিসিমা তারা দেবীর সঙ্গে ‘স্যার’ আশুতোষ মুখোপাধ্যায়ের জ্যেষ্ঠ পুত্র কলকাতা হাইকোর্টের জাস্টিস রমাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের বিবাহ হয়।
 
১৯৫৯ খ্রিষ্টাব্দে নির্মিত সত্যজিৎ রায়-এর অপুর সংসার ছবিতে শর্মিলা ঠাকুরের বিপরীতে অভিনয়ের মাধ্যমে তার চলচ্চিত্রে  আগমন। সত্যজিৎ রায়-এর ৩৪টি সিনেমার মধ্যে ১৪টিতে তিনি অভিনয় করেছেন। সত্যজিৎ রায়-এর দ্বিতীয় শেষ চলচিত্র শাখা প্রশাখা। এটাতেও সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় অভিনয় করেন। সিনেমা ছাড়াও তিনি বহু নাটক, যাত্রা এবং টিভি ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন। লিখেছেন নাটক ও কবিতা। নাটক পরিচালনাতেও তিনি ছিলেন অতুলনীয়।
 
সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের চেহারা দেখের সত্যজিৎ রায় বলেছিলেন, “তরুণ বয়সের রবীন্দ্রনাথ”। অনেকে বলেন, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় ছিলেন সত্যজিৎ রায়-এর মানসপুত্র। তাঁর অভিনীত চরিত্রগুলোর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় ফেলুদা। তিনি সত্যজিৎ রায়ের পরিচালনায় সোনার কেল্লা ও জয় বাবা ফেলুনাথ ছবিতে ফেলুদার ভূমিকায় অভিনয় করেছেন।
 
সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় ২০০৪ খ্রিষ্টাব্দে ভারত সরকার প্রদত্ত পদ্মভূষণ, ২০১২ খ্রিষ্টাব্দে দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কার; ২০১৭ খ্রিষ্টাব্দে ফ্রান্স সরকার প্রদত্ত লিজিওন অফ অনার ও Commandeur de l’ Ordre des Arts et des Lettres লাভ করেন। তিনি ২০১৭ খ্রিষ্টাব্দে পশ্চিমবঙ্গ সরকার তাকে  বঙ্গবিভূষণ পদকে ভূষিত করেছিল। তবে তিনি তা প্রত্যাখ্যান করেন।
 
 
২০২০ খ্রিষ্টাব্দের ১৫ই নভেম্বর ভারতীয় সময় দুপুর ১২টা ১৫ মিনিটে কলকাতার বেলভিউ হাসপাতালে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় মারা যান।
 
https://draminbd.com/সৌমিত্র-চট্টোপাধ্যায়-সত/
error: Content is protected !!