স্বরযন্ত্র নিয়ে দুঃখকথা: শুবাচ থেকে শুবাচির লেখা: সরযন্ত্র নিয়ে ষড়্‌যন্ত্র

খুরশেদ আহমদ
সংযোগ:https://draminbd.com/স্বরযন্ত্র-নিয়ে-দুঃখকথা/

) বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধানে স্বরযন্ত্র বলে নেই কোনো ভুক্তি, নেই কোনো শব্দ—না এর প্রথম প্রকাশ: ফেব্রুয়ারি ২০১৬-র সংস্করণে, না এর পরিবর্ধিত ও পরিমার্জিত সংস্করণ: এপ্রিল ২০১৬-র সংস্করণে।
তবে, বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধানে আছে: “ষড়যন্ত্র /শড়োজন্‌ত্রো/ [. শলাহ্‌+. যন্ত্র] বি. অন্যের ক্ষতি করার জন্য গুপ্ত চক্রান্ত। দেহমধ্যস্থ ষট্‌চক্র।

) বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধান প্রকাশিত হওয়ার আট বছর আগে বাংলা একাডেমি বাংলা বানানঅভিধান [পরিমার্জিত ও পরিবর্ধিত তৃতীয় সংস্করণ ফেব্রুয়ারি ২০০৮] অন্তর্ভুক্ত করেছে দুটো শব্দই—‘স্বরযন্ত্র ষড়্‌যন্ত্র: “স্বরযন্ত্র / শরোজন্‌ত্রো/ (গলার যে প্রত্যঙ্গ স্বর উৎপাদন করে); দ্র. ষড়্‌যন্ত্র।এবং ষড়্‌যন্ত্র / শড়্‌জন্‌ত্রো/ (কোনো ব্যক্তির বিরুদ্ধাচরণের জন্য গুপ্ত মন্ত্রণা); দ্র. স্বরযন্ত্র

[শ্যেনদৃষ্টি শুবাচি লক্ষ করে থাকবেন,
() বাংলা একাডেমি বাংলা বানানঅভিধান স্বরযন্ত্র প্রায়সমোচ্চারিত অন্য শব্দটির বানান উচ্চারণ লিখেছে যথাক্রমে ষড়্‌যন্ত্র শড়্‌জন্‌ত্রো, হস্‌চিহ্নযুক্ত দিয়ে, যেখানে বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধান লিখেছে যথাক্রমে ষড়যন্ত্র শড়োজন্‌ত্রো, ষড়যন্ত্র উচ্চারণে কার দিয়ে; এবং
(
) উভয় অভিধানের একই এবং অভিন্ন সম্পাদক আট বছর পরে বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধানে স্বরযন্ত্র শব্দটিকে অপাঙ্‌ক্তেয় করে দিলেনধ্বনিবিজ্ঞানে শব্দটি যতই গুরুত্বপূর্ণ অপরিহার্য হোক না কেন।]

) ২০১৪ সালে বাংলা একাডেমি প্রমিত বাংলা ব্যবহারিক ব্যাকরণ [প্রথম প্রকাশ: মাঘ ১৪২০/জানুয়ারি ২০১৪] লিখেছে: স্বরযন্ত্র শ্বাসনালীর উপরের দিকে চতুর্থ, পঞ্চম ষষ্ঠ মেরুদণ্ডাস্থির দিকে উল্লম্ব অবস্থায় নলের মতো যে প্রত্যঙ্গটি রয়েছে তার নাম স্বরযন্ত্র (larynx) বাক্‌প্রত্যঙ্গগুলির মধ্যে স্বরযন্ত্রের ভূমিকা ধ্বনির উৎপাদনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ফুসফুস থেকে বেরিয়ে আসা বাতাস স্বরযন্ত্রের মধ্যে বাধাপ্রাপ্ত হয়ে সর্বপ্রথম শ্রবণযোগ্য ধ্বনি উৎপন্ন করে।এবং

ধ্বনিদ্বার স্বররন্ধ্র স্বরযন্ত্রের মধ্যেই ধ্বনিদ্বারের (vocal folds/cords) অবস্থান। স্বরযন্ত্রের মধ্যে স্থিত শ্বাসনালি গলবিলের (pharynx) মাঝে অনুভূমিক ভাবে [যদ্দৃষ্ট; (কেন লিখব না ফাঁক-না-রেখে ‘অনুভূমিকভাবে’?)] ধ্বনিদ্বারের উপস্থিতি। ধ্বনিদ্বার পিছন দিকে অ্যারিটিনয়েড উপাস্থি এবং সামনের দিকে থাইরয়েড উপাস্থির সঙ্গে যুক্ত থাকে। ধ্বনিদ্বার আসলে একধরনের শ্লৈষ্মিক ঝিল্লি (mucous membrane) পুরুষের গলায় যে উঁচু অংশটি, যাকে কণ্ঠমণি বা আদমের আপেল (Adams Apple) বলা হয়, সাধারণত বাইরে থেকে দেখা যায়, সেটি আসলে থাইরয়েড বা ফলক উপাস্থি যার সঙ্গে ধ্বনিদ্বারের সামনের দিকটি যুক্ত থাকে। ধ্বনি উচ্চারণে ধ্বনিদ্বারের গুরুত্ব সর্বাধিক।

) আরও আগে, ২০১২ সালে, বাংলা একাডেমী প্রমিত বাংলা ভাষার ব্যাকরণ [প্রথম খণ্ড (দ্বিতীয় সংস্করণ: ২০১২) ৮ নম্বর পৃষ্ঠায়] লিখেছে: “স্বরযন্ত্রে রয়েছে ৯টি উপাস্থি। কিন্তু ধ্বনিউৎপাদনে গুরুত্বপূর্ণ হল ৫টিবলয় উপাস্থি, ফলক উপাস্থি, অলিঞ্জর উপাস্থি, অধিজিহ্বা ধ্বনিদ্বার। বলয় উপাস্থি হল স্বরযন্ত্রের ভিত্তি। গলবিলের ভিত্তির কাছে তা অবস্থিত। ফলক উপাস্থি চেনাও সহজ। পুরুষের গলায় যে উঁচু হাড় থাকে তা ফলক উপাস্থি। কণ্ঠমণি হিসাবেও তা পরিচিত। ফলক উপাস্থির উঁচু অংশ আদমের আপেল নামে পরিচিত।

) সম্প্রতি—২০২০-এর নভেম্বরে প্রথম প্রকাশিত এবং জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড, বাংলাদেশ কর্তৃক ২০২১ শিক্ষাবর্ষ থেকে নবম-দশম শ্রেণির পাঠ্যপুস্তকরূপে নির্ধারিত—বাংলা ভাষার ব্যাকরণ নির্মিতি [১০ নম্বর পৃষ্ঠায়] লিখেছে: স্বরযন্ত্র শ্বাসনালীর উপরের অংশে স্বরযন্ত্রের অবস্থান। মেরুদণ্ডের , নং অস্থির পাশে থাকা এই অংশটি নলের মতো। বাতাস স্বরযন্ত্রের মধ্য দিয়ে বেরিয়ে আসে বলে ধ্বনির সৃষ্টি হয়। অধিজিহ্বা, স্বররন্ধ্র, ধ্বনিদ্বার ইত্যাদি স্বরযন্ত্রের অংশ।এবং
স্বরযন্ত্র সম্পর্কে কেবল এটুকু তথ্য সংযোজন করে বাংলা ভাষার ব্যাকরণ নির্মিতি [১১ নম্বর পৃষ্ঠায়] প্রশ্ন করেছে: “. স্বরযন্ত্রের কোন অংশ ধ্বনি তৈরিতে সরাসরি ভূমিকা পালন করে. বলয় উপাস্থি . মুখবিবর . নাসারন্ধ্র . নাসিকা?

মুখবিবর বা নাসারন্ধ্র বা নাসিকা নিশ্চয়ই স্বরযন্ত্রের কোনো অংশ নয়; এবং বাংলা ভাষার ব্যাকরণ নির্মিতি কোথাও দেয়নি বলয় উপাস্থির সংজ্ঞার্থ বা ব্যাখ্যা বা বর্ণনা। অবস্থায় ধরনের প্রশ্ন করাটা নবমদশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের প্রতি পুস্তকপ্রণেতাদের তথা জাতীয় শিক্ষাক্রম পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের জুলুম নয় কি?
তাঁরা কি আশা করেন নবম-দশম শ্রেণির একজন শিক্ষার্থী বাংলা ভাষার ব্যাকরণ ও নির্মিতি-তে বলয় উপাস্থি সম্পর্কে কোনো ব্যাখ্যা না পেয়ে বাংলা একাডেমী প্রমিত বাংলা ভাষার ব্যাকরণ প্রথম খণ্ড পৃষ্ঠা-৮-এ গিয়ে পড়বে ও জানবে, “বলয় উপাস্থি হল স্বরযন্ত্রের ভিত্তি।“ এবং তারপর বিবেচনা করবে ওই বহু-নির্বাচনি প্রশ্নের উত্তর সে কী দেবে?

বাংলা ভাষার ব্যাকরণ নির্মিতি আলোচিত বহুনির্বাচনি প্রশ্নটি বইটিতেদেওয়া তথ্যের আলোকে কতটুকু শিক্ষার্থীবান্ধব অথবা শিক্ষার্থীবৈরী, প্রিয় শুবাচি?

শেষ-কথা:
) স্বরযন্ত্র আমি উচ্চারণ করি /শর্‌জন্‌ত্রো/; আপনি কীভাবে উচ্চারণ করেন?
) আমি ধারণা করি, বলয় উপাস্থি ইংরেজিতে cricoid cartilage, যা সম্পর্কে আগ্রহী শিক্ষার্থী আরও তথ্য পেতে পারেন এখান থেকে:
https://en.wikipedia.org/wiki/Cricoid_cartilage;
যেমন: “The cricoid cartilage /ˌkraɪkɔɪd ˈkɑːrtɪlɪdʒ/, or simply cricoid (from the Greek krikoeides meaning “ring-shaped”) or cricoid ring, is the only complete ring of cartilage around the trachea. It forms the back part of the voice box and functions as an attachment site for muscles, cartilages, and ligaments involved in opening and closing the airway and in producing speech.”
শুবাচে প্রকাশের তারিখ:  ২রা ফেব্রুয়ারি, ২০২১

 

খুরশেদ আহমেদের লেখা
https://draminbd.com/স্বাগত-সুস্বাগত-স্বাগতং/
https://draminbd.com/তৎসম-শব্দের-কণ্টকারণ্যে/
https://draminbd.com/স্বাগত-সুস্বাগত-স্বাগতং/
https://draminbd.com/ব্যবহারিক-বা-ব্যাবহারিক/
 
https://draminbd.com/বাংলা-একাডেমি-আধুনিক-বাং/
সংযোগ:https://draminbd.com/স্বরযন্ত্র-নিয়ে-দুঃখকথা/
— — — — — — — — — — — — — — — — —
 
 
কিছু প্রয়োজনীয় সংযোগ
শুবাচ গ্রুপের সংযোগ: www.draminbd.com
শুবাচ যযাতি/পোস্ট সংযোগ: http://subachbd.com/
আমি শুবাচ থেকে বলছি
 
— — — — — — — — — — — — — — — — —
প্রতিদিন খসড়া
আমাদের টেপাভুল: অনবধানতায়
— — — — — — — — — — — — — — — — —
Spelling and Pronunciation
 
/
 
 
error: Content is protected !!