স্বাধীনোত্তর ও স্বাধীনতোত্তর

ড. মোহাম্মদ আমীন

বাক্যে বিশেষণ হিসেব ব্যবহৃত সংস্কৃত ‘স্বাধীন (=স্ব+অধীন)’ শব্দের অর্থ বাধাহীন, স্বচ্ছন্দ, নিজের বশে আছে এমন, সার্বভৌম প্রভৃতি। অন্যদিকে, বাক্যে বিশেষ্য পদ হিসেবে ব্যবহৃত সংস্কৃত ‘স্বাধীনতা (=স্বাধীন+তা)’ শব্দের অর্থ বাধাহীনতা, স্বচ্ছন্দতা। যেমন : স্বাধীনতার পর আমি একটি স্বাধীন দেশের

পাঞ্রেরী পাবলিকেশন্স লি.

একজন স্বাধীন নাগরিক। সুতরাং ‘স্বাধীন’ ও ‘স্বাধীনতা’ শব্দদুটি সমার্থক নয়, পরিষ্কারভাবে ভিন্নার্থক। তেমনি, ‘স্বাধীনোত্তর’ ও ‘স্বাধীনতোত্তর’ শব্দদুটিও সমার্থক নয়। ‘স্বাধীন’ শব্দের সঙ্গে ‘উত্তর’ শব্দের সন্ধির ফলে ‘স্বাধীনোত্তর’ শব্দটি গঠিত হয়েছে। শব্দটির অর্থ স্বাধীনের পর কিন্তু উদ্দিষ্ট অর্থ স্বাধীনতার পর। তাই স্বাধীনতার পর অর্থে, স্বাধীনোত্তর শব্দটি অশুদ্ধ।

সুভাষ ভট্টাচার্যর মতে, ‘স্বাধীনতার পর’ অর্থ প্রকাশে গঠিত শব্দের শুদ্ধ রূপ হবে—স্বাধীনতা+উত্তর = স্বাধীনতোত্তর বা স্বাধীনতা-উত্তর। সুতরাং, সন্ধির নিয়ম বিবেচনা করলে ‘স্বাধীনতার পর’ অর্থ প্রকাশে ‘স্বাধীনোত্তর’ শব্দটি ব্যাকরণগতভাবে সুষ্ঠু নয়; অর্থ বিবেচনাতেও শুদ্ধ নয়। যদিও শব্দটি কেউ কেউ ব্যবহার করে থাকেন। এক্ষেত্রে ‘স্বাধীনতা-উত্তর’ বা ‘স্বাধীনতোত্তর’ লেখাই বিধেয়।

এই প্রসঙ্গে গুটি কয়েক জন ‘স্বাধীনতাত্তোর’ নামের একটি  শব্দের কথা বলে থাকেন। তাদের প্রশ্ন, যুদ্ধোত্তর, সমরোত্তর, লোকোত্তর, মরণোত্তর, নির্বাচনোত্তর শুদ্ধ হলে, স্বাধীনতাত্তোর শব্দটি শুদ্ধ হবে না কেন? কেন শুদ্ধ হবে না তা দেখা যাক।

বর্ণিত শব্দগুলি সন্ধিসাধিত। যেমন: যুদ্ধ+উত্তর= যুদ্ধোত্তর, সমর+উত্তর= সমরোত্তর, লোক+উত্তর= লোকোত্তর, মরণ+উত্তর= মরণোত্তর, নির্বাচন+উত্তর= নির্বাচনোত্তর। একইভাবে, স্বাধীনতা+ উত্তর = স্বাধীনতোত্তর; কখনো ‘স্বাধীনতাত্তোর’ নয়। সন্ধির নিয়মানুসারে এটি অসুদ্ধ এবং  সবচেয়ে বড়ো কথা হচ্ছে দুরুচ্চার্য।

অবশ্য ‘স্বাধীনতাত্তোর’ সন্ধির নিয়মানুসারে শুদ্ধ হলেও এমন দুরুচ্চার্য শব্দ গঠন করা সন্ধির উদ্দেশ্য বিবেচনায় সমীচীন হতো না। সন্ধির উদ্দেশ্য হচ্ছে, স্বাভাবিক উচ্চারণে প্রাঞ্জলভাব ও সহজপ্রবণতা আনয়ন এবং ধ্বনিগত মাধুর্য সম্পাদন। যেক্ষেত্রে উচ্চারণ লাঘব হয়, কিন্তু ধ্বনি-মাধুর্য রক্ষিত হয় না, সেসব ক্ষেত্রে সন্ধি করা ব্যাকরণসম্মত নয়। অতএব, যেক্ষেত্রে আয়াসেরও লাঘব হয় না এবং ধ্বনি-মাধুর্যও রক্ষিত হয় না, সেক্ষেত্রে সন্ধি করা শুধু ব্যাকরণরীতিবিরুদ্ধ নয়, উৎকট এবং বিরক্তিকর।


All Link

বিসিএস প্রিলি থেকে ভাইভা কৃতকার্য কৌশল

ড. মোহাম্মদ আমীনের লেখা বইয়ের তালিকা

বাংলা সাহিত্যবিষয়ক লিংক

বাংলাদেশ ও বাংলাদেশবিষয়ক সকল গুরুত্বপূর্ণ সাধারণজ্ঞান লিংক

বাংলা বানান কোথায় কী লিখবেন এবং কেন লিখবেন/১

বাংলা বানান কোথায় কী লিখবেন এবং কেন লিখবেন/২

বাংলা বানান কোথায় কী লিখবেন এবং কেন লিখবেন /৩

কীভাবে হলো দেশের নাম

ইউরোপ মহাদেশ : ইতিহাস ও নামকরণ লিংক

শুদ্ধ বানান চর্চা লিংক/১

দৈনন্দিন বিজ্ঞান লিংক

শুদ্ধ বানান চর্চা লিংক/২

শুদ্ধ বানান চর্চা লিংক/৩

শুদ্ধ বানান চর্চা লিংক/৪

কীভাবে হলো দেশের নাম

সাধারণ জ্ঞান সমগ্র

সাধারণ জ্ঞান সমগ্র/১

সাধারণ জ্ঞান সমগ্র/২

বাংলাদেশের তারিখ

ব্যাবহারিক বাংলা বানান সমগ্র : পাঞ্জেরী পবিলেকশন্স লি.

শুদ্ধ বানান চর্চা প্রমিত বাংলা বানান বিধি : বানান শেখার বই

কি না  বনাম কিনা এবং না কি বনাম নাকি

মত বনাম মতো : কোথায় কোনটি এবং কেন লিখবেন

ভূ ভূমি ভূগোল ভূতল ভূলোক কিন্তু ত্রিভুবন : ত্রিভুবনের প্রিয় মোহাম্মদ

মত বনাম মতো : কোথায় কোনটি এবং কেন লিখবেন

প্রশাসনিক প্রাশাসনিক  ও সমসাময়িক ও সামসময়িক

বিবিধ এবং হযবরল : জ্ঞান কোষ

সেবা কিন্তু পরিষেবা কেন

error: Content is protected !!